Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

অজানা রোগে বিঘার পর বিঘা জমির গোলাপ চাষ ক্ষতিগ্রস্ত 

হরিহর ঘোষাল, মেদিনীপুর: অজানা রোগের প্রকোপে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় বিঘার পর বিঘা জমিতে গোলাপ চাষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। রোগ প্রতিরোধে চাষিদের পক্ষ থেকে গোলাপ গাছে নানা ধরনের ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু, তাতে কোনও লাভ হচ্ছে না। উল্টে যত দিন যাচ্ছে, গোলাপ গাছের কুঁড়ি শুকিয়ে যাচ্ছে। পাতা ঝরে ঝরে পড়ছে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে চাষিরা জেলা উদ্যানপালন আধিকারিক, জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষের দ্বারস্থ হয়েছেন। তাঁরাও ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের জমি পরিদর্শন করেছেন।
জেলা উদ্যানপালন আধিকারিক কুশধ্বজ বাগ বলেন, গোলাপ গাছের পাতায় কালো কালো দাগ হয়ে যাচ্ছে। গাছের বেশ কিছুটা অংশ কালো হয়ে গিয়ে ফেটে যাচ্ছে। আর ফুলের কুঁড়ি শুকিয়ে যাচ্ছে। চাষিরা সব ধরনের ওষুধ দেওয়ার পরও রোগ প্রতিরোধ করতে পারেননি। প্রাথমিকভাবে ছত্রাকের জেরে এরকম অবস্থা হতে পারে। বিষয়টি রাজ্য দপ্তরে জানানো হয়েছে। এই জেলায় খড়্গপুর-১ ও ২, ডেবরা, নারায়ণগড়, সবং, পিংলা এবং দাসপুর-১ ও ২ ব্লকে ফুলের চাষ হয়। তারমধ্যে খড়্গপুর-২ ব্লকে বেশি পরিমাণে গোলাপ ফুলের চাষ হয়। এছাড়াও ডেবরা, নারায়ণগড়, দাসপুর-১ ও ২ ব্লকেও এই ফুলের চাষ কিছুটা হয়। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিঘার পর বিঘা গোলাপ বাগানে এই অজানা রোগের প্রকোপ শুরু হয়েছে। খড়্গপুর-২ ব্লকের জকপুরের চাষি প্রণবীর মাইতির বিঘার পর বিঘা গোলাপ চারা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। প্রণবীরবাবু বলেন, সাড়ে পাঁচ একর জমিতে গোলাপ চারা লাগিয়েছি। আমরা মূলত গোলাপের চারা বিক্রি করি। মাসখানেক ধরে এই রোগ শুরু হয়েছিল। এই এলাকায় প্রথম আমার বাগানেই এই রোগ দেখা দেয়। প্রথমে ভেবেছিলাম আমার কোনও ভুলের কারণেই গাছে এরকম রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। কিন্তু, গত দু’সপ্তাহ ধরে এই এলাকায় অধিকাংশ গোলাপ বাগানে এই অজানা রোগ দেখা দিয়েছে। গাছ বাঁচাতে ইতিমধ্যেই ৫০ হাজার টাকার ওষুধ স্প্রে করেছি। কিন্তু, কাজের কাজ কিছুই হয়নি। কী করব বুঝতে পারছি না। খড়্গপুর-২ ব্লকের চক গণেশ গ্রামের ফুল ব্যবসায়ী প্রশেষ মান্না বলেন, আমার এক বিঘা জমিতে গোলাপ বাগান রয়েছে। বাগানের ফুল কোলাঘাট বাজারে বিক্রি করি। এছাড়া ১৫ কাঠা জমিতে আমার গোলাপ চারা লাগানো রয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আমার জমিতে গোলাপ গাছে অজানা রোগের প্রকোপ শুরু হয়। প্রায় ৮০০০ টাকার ওষুধ স্প্রে করেছি। কোনও লাভ হয়নি। গাছ ঝলসে যাচ্ছে। খুব দুশ্চিন্তায় রয়েছি। জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি বলেন, খড়্গপুর-২ ব্লকে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাছাড়া ডেবরা, নারায়ণগড় যেখানে গোলাপ চাষ হয়েছে, সেখানে এই রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। আমি নিজে খড়্গপুর-২ ব্লকের জকপুর এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত গোলাপ বাগান পরিদর্শন করেছি। বিঘার পর বিঘার গোলাপ গাছ নষ্ট হয়ে গিয়েছে। চাষিরা নানা ধরনের ওষুধ দিয়েও গাছ বাঁচাতে পারছেন না। কী রোগ তা চাষিরা বুঝতে পারছেন না। বিষয়টি কল্যাণীর বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিশেষজ্ঞকে জানানো হয়েছে। তিনি খুব শীঘ্রই এই জেলায় ক্ষতিগ্রস্ত গোলাপ বাগান পরিদর্শনে আসবেন। 
04th  March, 2020
চাহিদা তুঙ্গে, জোগান বাড়াতে
আরামবাগে বাদাম বীজ চাষ 

সুদেব দাস, আরামবাগ: অতিবৃষ্টির কারণে গত বছর বাদাম চাষে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল। বাদামের রঙের উজ্জ্বলতা হারিয়ে কালো হয়ে গিয়েছিল। তাই খোলাবাজারে চাহিদা থাকলেও, ভালো মানের বাদামের জোগান দিতে পারেননি চাষিরা। পুজোর পরে আরামবাগ মহকুমাজুড়ে শুরু হবে বাদাম চাষ। তবে এবার ভালো ফলন পেতে এখন থেকেই বাদাম চাষে বাড়তি জোর দিচ্ছেন চাষিরা।   বিশদ

23rd  September, 2020
টবেই ১৮ মাসে
ড্রাগন ফল 

নিজস্ব প্রতিনিধি: টবেই ফলানো যাবে ড্রাগন ফ্রুট। ১৮ মাসের গাছেই মিলবে ফল। এমনটাই জানাচ্ছেন উদ্যানপালন আধিকারিকরা।
ক্যাকটাস গোত্রের এই ফল চাষে ঝক্কি নেই বললেই চলে।   বিশদ

23rd  September, 2020
নাকাশিপাড়ায় ফ্রেঞ্চ বিন চাষ
করে স্বনির্ভর হচ্ছেন যুবকরা 

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর: বেকার যুবকদের জীবন বদলে দিচ্ছে ফ্রেঞ্চ বিন চাষ। নদীয়ার নাকাশিপাড়ার পাটিকাবাড়ির তাঞ্জির মণ্ডল, চিচুড়িয়ার সাজিদুর রহমান এখন আত্মবিশ্বাসী। একবছর আগে প্রথম এই চাষ শুরু করেছিলেন তাঁরা। বেশ ভালো লাভ হয়েছিল।   বিশদ

23rd  September, 2020
ইংল্যান্ডের হারানো বাজার ধরতে
সবংয়ে জৈব পদ্ধতিতে পান চাষ 

হরিহর ঘোষাল, মেদিনীপুর: একটা সময় সবং থেকে বিপুল পরিমাণ পান রপ্তানি হতো ইংল্যান্ডে। বছর চারেক আগে তাতে ছেদ পড়ে। সালমোনেলা নামে এক ধরনের ব্যাক্টেরিয়ার প্রকোপ দেখা দেয় পানে। তার জেরে সবংয়ের পান তো বটেই, এ রাজ্যের পান নেওয়া বন্ধ করে দেয় ইংল্যান্ড। সেই হারানো বাজার ফিরে পেতে এবার সবংয়েরই একদল চাষি সম্পূর্ণ জৈব পদ্ধতিতে পান চাষের উদ্যোগ নিয়েছেন।   বিশদ

23rd  September, 2020
ছাদের ট্যাঙ্কে অনায়াসেই পছন্দের মাছ চাষ 

ব্রতীন দাস: মাছ চাষের জন্য এখন আর পুকুরের দরকার নেই। বাড়ির ছাদে ট্যাঙ্কেই পছন্দমতো মাছ চাষ করা সম্ভব। মৎস্য বিজ্ঞানীরা বলছেন, যেভাবে দ্রুত নগরায়ণ হচ্ছে, তাতে কমছে জলাশয়। আবার প্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য হিসেবে বাড়ছে মাছের চাহিদা।   বিশদ

23rd  September, 2020
সেচে জল সাশ্রয়ের লক্ষ্যে
ভর্তুকিতেই স্প্রিংলার যন্ত্র
কাটোয়া

 জল সাশ্রয় করতে ভর্তুকি দিয়েই কাটোয়া মহকুমাজুড়ে চাষিদের হাতে স্প্রিংলার তুলে দিচ্ছে কৃষিদপ্তর। এই যন্ত্র দিয়েই অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে জমিতে সেচ দিতে পারবেন চাষিরা। বাংলার কৃষি সেচ যোজনার মাধ্যমে এই ধরনের যন্ত্রপাতি দেওয়া হচ্ছে। মহকুমার প্রতিটি ব্লকেই বিলি করার কাজ শুরু হয়েছে।
বিশদ

16th  September, 2020
শখ থেকে জীবিকা যখন বনসাই 

না রঙের বাহারি টবে সাজানো রয়েছে বট, তেঁতুল, শ্যাওড়া, পাকুড়, অর্জুন, বাবলা গাছ। নানা ধরনের গাছের তালিকাটি যেমন দীর্ঘ, তেমনই বৈচিত্র্য তাদের গড়নে। আর তার বর্ণনা দিতে গিয়ে প্রাপ্তির আনন্দে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলছিলেন ববিন। পোশাকি নাম প্রসেনজিৎ গুহ।
বিশদ

09th  September, 2020
বাঁকুড়ায় এবার ৪০০ বিঘায় বর্ষাকালীন পেঁয়াজ 

তের মুখে পেঁয়াজের সঙ্কট কাটাতে ও দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে সরকারি উদ্যোগে বর্ষাকালীন পেঁয়াজ চাষের উদ্যোগ নিয়েছে বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন। ছাতনা, বড়জোড়া, সোনামুখী ও গঙ্গাজলঘাটি ব্লকে মোট ৪০০ বিঘা জমিতে চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জেলা কৃষিদপ্তর ও উদ্যানপালন দপ্তরের তরফে।
বিশদ

09th  September, 2020
পুরুলিয়ায় ফলের বাগান গড়ছে বনদপ্তর 

পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজে লাগিয়ে লালমাটিতে ফলের বাগান তৈরি করছে বনদপ্তর। পুরুলিয়া মফস্‌সল থানার ছররাতে ১১ ব্যাটালিয়নের ১০ হেক্টর জমিজুড়ে তৈরি হচ্ছে ওই বাগান। গোটা জেলার মধ্যে ছররাতেই বনদপ্তর সবচেয়ে বড়সড় ফলের বাগান তৈরি করছে বলে দাবি আধিকারিকদের।
বিশদ

09th  September, 2020
বৃষ্টিতে সব্জির ক্ষতি পুষিয়ে দিচ্ছে বরবটি ও লাফা চাষ 

 সাম্প্রতিক বৃষ্টিতে নষ্ট হয়েছে পটল, লঙ্কা, বেগুন সহ নানা ধরনের সব্জি চাষ। এর জেরে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন কৃষকরা। সেই ক্ষতি থেকে বাঁচতে চাষিদের ভরসা জোগাচ্ছে লাফা ও বরবটি। তেহট্ট সহ নদীয়া জেলার বিভিন্ন এলাকার চাষিরা জানাচ্ছেন, উম-পুন ঘূর্ণিঝড়ে জমির ধান, পাট, কলা সহ বিভিন্ন সব্জির অনেক ক্ষতি হয়েছিল। বিশদ

09th  September, 2020
ভগবানগোলার মোজাম্মেলের জমিতে ১২-১৩ কেজির ওল 

ক-একটি ওলের ওজন ১২ থেকে ১৩ কেজি। জমি থেকে তোলার পরে তা বিক্রি হতে বেশি সময় লাগে না। দামও ভালোই পাওয়া যায়। অথচ চাষের খরচ নেই বললেই চলে। 
বিশদ

09th  September, 2020
আমন চাষের মাধ্যমেই ঘুরে
দাঁড়ানোর আশায় গ্রামীণ অর্থনীতি

 কেরলে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন খানাকুলের মানিক সাঁতরা। লকডাউনে তিনি বাড়ি ফিরে আসেন। তারপর করোনা আতঙ্কে আর সেখানে যাওয়া হয়নি। কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন। কী করবেন ভেবে পাচ্ছিলেন না। শেষমেশ বাবার সঙ্গে চাষের কাজে হাত লাগান।
বিশদ

26th  August, 2020
পুরুলিয়ায় পড়ে থাকা কিষাণ মাণ্ডিতে
কৃত্রিম মাছচাষের হাপা তৈরির উদ্যোগ

 কৃষকদের ফসল বিক্রির জন্য জেলায় কৃষক বাজার বা কিষাণ মাণ্ডি তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু, অনেক জায়গায় ভৌগোলিক দূরত্ব বা অন্যান্য কারণে সেই কিষাণ মাণ্ডি কার্যত ফাঁকা পড়ে থাকছে। বিশদ

26th  August, 2020
মাছচাষে আগ্রহ বাড়ছে
কান্দির চাষিদের

 সংবাদদাতা: ধান সহ অন্যান্য ফসল লাগিয়ে সেভাবে লাভের মুখ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না। তাই মাছ চাষ করার দিকে ঝুঁকছেন কান্দি ব্লকের আন্দুলিয়া পঞ্চায়েত এলাকার চাষিরা। মাছচাষ করার জন্য কিছু চাষি নিজেদের উদ্যোগে পুকুর খনন করলেও, বেশিরভাগ চাষিই সরকারিভাবে পুকুর খনন করার দাবি জানাচ্ছেন।
বিশদ

26th  August, 2020

Pages: 12345

একনজরে
সংবাদদাতা, পতিরাম: গঙ্গারামপুর ব্লকের বেলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের মোহিনীপাড়ায় রবিবার গভীর রাতে ভেঙে গেল পূনর্ভবা নদী বাঁধের একাংশ। ভোররাত থেকেই বাঁধ বাঁচাতে কাজ শুরু করেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সেচ দপ্তর। যদিও রবিবার রাত থেকেই ওই নদী বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় জল ঢুকে ...

বরফ দেওয়া থার্মোকলের বাক্সের ভিতরে বোঝাই করে চলে আসছে ‘রুপোলি শস্য’। কোথাও নদীপথ, কোথাও কাঁটাতারের ফাঁক গলে এপারে তারা। চকচক করতে থাকা আটশো থেকে এক ...

 ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়াল আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। বিতর্কিত নাগোর্নো-কারাবাখ এলাকার দখল নিয়েই দুই দেশের লড়াই। রবিবার থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে দু’পক্ষের ২৩ জনের। আহত হয়েছেন ১০০ জনেরও বেশি। ...

 আগামী বছরের শেষদিকে বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত প্রাকৃতিক গ্যাসের পরিকাঠামো সম্পূর্ণভাবে তৈরি হয়ে যাবে বলেই দাবি করল ইন্ডিয়ান অয়েল। সোমবার পশ্চিমবঙ্গের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর প্রীতীশ ভারত বলেন, বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত যে গ্যাস লাইন আসার কথা, তার কাজ আগামী বছরের মাঝামাঝি ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মক্ষেত্রে প্রভাব প্রতিপত্তি বৃদ্ধি। অত্যধিক ব্যয় প্রবণতায় রাশ টানা প্রয়োজন। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে আজ শুভ। সৎসঙ্গে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: অভিনেতা মেহমুদের জন্ম
১৯৭১: ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গে ঝড় ও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসে অন্তত ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৮৭ টাকা ৭৪.৫৮ টাকা
পাউন্ড ৯২.৫৪ টাকা ৯৫.৮৪ টাকা
ইউরো ৮৪.২৪ টাকা ৮৭.৩৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০, ৩১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮, ৪৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫৮, ৪৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫৮, ৫৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১২ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী ৩৮/৪১ রাত্রি ৮/৫৯। ধনিষ্ঠানক্ষত্র ৪২/৪৯ রাত্রি ১০/৩৮। সূর্যোদয় ৫/৩০/৪৪, সূর্যাস্ত ৫/২৩/৫৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে পুনঃ ৮/৪০ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৯ গতে ১১/৪ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/২৭ গতে ৩/৫৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৭ গতে ১১/২৭ মধ্যে।
১১ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী রাত্রি ৯/৪৮। ধনিষ্ঠানক্ষত্র রাত্রি ১২/২৮। সূর্যোদয় ৫/৩০, সূর্যাস্ত ৫/২৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৯ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১০/৫৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৭ গতে ১০/৫৭ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৭ মধ্যে। কালবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/২৭ গতে ৩/৫৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৮ গতে ১১/২৮ মধ্যে।
১০ শফর।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ২৭/১ (৫ ওভার) 

10:09:48 PM

করোনা আক্রান্ত দেশের উপ-রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু 

10:01:01 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালসকে ১৬৩ রানের টার্গেট দিল হায়দরাবাদ 

09:30:56 PM

আইপিএল: হায়দরাবাদ ১২৮/২ (১৬ ওভার) 

09:09:08 PM

এফটিআইআইয়ের প্রেসিডেন্ট ও গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হলেন শেখর কাপুর 

08:41:11 PM

আইপিএল: হায়দরাবাদ ৫২/০ (৭ ওভার) 

08:17:03 PM