Bartaman Patrika
সিনেমা
 

 বিয়ে করে বউকে যেন মিথ্যে বলতে না হয়

 বললেন রুদ্রনীল ঘোষ। ‘বিবাহ অভিযান’-এর গল্প বলতে এসে অভিনয়ের পাশাপাশি কথা বললেন রাজনীতি নিয়েও।

 বিবাহ অভিযান কি টলিউডের সাম্প্রতিক প্রজন্মের ছবি? ছবির শিল্পী ও কলাকুশলীদের তালিকা সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে।
 একেবারে তাই। ‘বিবাহ অভিযান’-এর অভিনেতা- কলাকুশলী সকলেই নবীন। তবে ইয়ং তিনিই, যিনি বর্তমান সময়কে মেনে নিতে জানেন। গত এক-দু’বছর ধরে সিনেমা হলের ষাট শতাংশ দর্শক কিন্তু তরুণ প্রজন্মের। তুলনায় বয়স্ক দর্শকরা হিসেব নিকেশ করে হলে যান। তাই অ্যাভারেজ ইয়ং মনের মানুষ কী চাইছেন, এটা খোঁজার চেষ্টা করছি। যেহেতু হিন্দি-ইংরেজি ছবির দর্শক অনেক বেশি, তাই বাংলা ছবিকে বেশি লড়াই করতে হচ্ছে । ছবি দেখতে বসে কোন ভাষা, বাজেট কত তা নিয়ে দর্শক মাথা ঘামান না। তাঁরা মূল গল্পটা খোঁজার চেষ্টা করেন। তাঁরা একই মূল্যের টিকিট কাটছেন। ফলে তাঁদের কিছু ফেরত দেওয়াটাও কর্তব্য। সেই জায়গা থেকে বিবাহ অভিযান তরুণ প্রজন্মেরও একটা অভিযান।
 টিম ‘বিবাহ অভিযান’-এর টার্গেট অডিয়েন্স কারা?
 গ্রাম ও শহরের এই যে একটা অদ্ভুত তফাত করে রেখে দিয়েছিল কিছু লোক, তার কোনও মানে হয় না। দেখুন লেখকের, অভিনেতার, পরিচালকের গ্রাম-শহর হয় না। যাঁর সামান্যতম বুদ্ধি আছে, তিনি দুই জায়গাই কমিউনিকেট করতে পারবেন। সেটাই কিন্তু প্রতিফলিত হয়েছে ‘বিবাহ অভিযান’-এ।
 চিত্রনাট্যকার রুদ্রনীল কি লেখার সময় আগে অভিনেতা-অভিনেত্রীর কথা ভেবে চরিত্রায়ণ করেন?
 না, ঠিক তা নয়। আমি যখন প্রথমে গল্প লিখি, তখন আটপৌরে জীবনের কথা লেখার চেষ্টা করি। একটি বিশেষ চরিত্রের মুখ কোনও বিশেষ অভিনেতার কাছাকাছি আসছে — সেই ধারণাটা আসে লেখা শেষের পরে। যদি সেই মিলে যাওয়াটা সংশ্লিষ্ট অভিনেতার পছন্দ-অপছন্দ, ডেট ইত্যাদির সঙ্গে মিলে যায়, তখন আমি আবার সেই চরিত্রটাকে তাঁর মতো করে ঘষামাজা করতে শুরু করি। এই ছবির ক্ষেত্রেও কাস্টিংয়ের জায়গা বদলেছে। অভিনেতা মানে আমি ধরে নিতেই পারি, তিনি সব ধরণের চরিত্রে অভিনয় করতে পারবেন। সেইসঙ্গে কোনও বিশেষ ক্ষেত্রে তাঁর পারদর্শিতা বেশি থাকতে পারে। চিত্রনাট্য লেখার সময় অবশ্যই তাঁর সেই অতিরিক্ত স্কিলের কথাটা মাথায় রাখতে হবে। এই ছবির ক্ষেত্রে রেখেছিও।
 ছবির মুখ্য অভিনেতা, সেই ছবিরই গল্প ও চিত্রনাট্যকার। তখন নিজের অভিনীত চরিত্রটা কীভাবে সামলান?
 এটা সত্যিই একটা চাপ। সেটা পদ্মনাভরও (দাশগুপ্ত) মাঝে মধ্যে হয়। পদ্মনাভ তো মূলত লেখক, মাঝেমধ্যে অভিনয় করেন। আবার আমি মূলত অভিনেতা মাঝেমধ্যে লিখি। নিজের অভিনীত চরিত্রের সংলাপ লিখতে গিয়ে প্রায়ই সংশয়ে ভুগি, আমি কি নিজের সংলাপ বেশি লিখে ফেলছি? ‘চকোলেট’ ছবির স্ক্রিপ্ট লিখতে গিয়ে আমি আমার সংলাপ বেশি লিখে ফেলেছি ভেবে এত কেটে দিয়েছিলাম যে, সারা ছবিতে সব থেকে কম সংলাপ ছিল আমার।
 পরিচালক হিসেবে বিরসা দাশগুপ্তকে ভরসা করার কারণ?
 ফিল্ম নিয়ে বিরসার অসম্ভব পড়াশোনা। তাই ওর ফ্রেম টু ফ্রেম কপি করার দৈন্যতা আসেনি। আরে বাবা মেনস্ট্রিম গল্প লেখার লোকই তো নেই। বিরসারা মৌলিক ছবির পরিচালক। বছরে পাঁচটা ছবি করব, অথচ গল্প লেখার লোক দুজন, তখন কী করে হবে। বিরসাকে ভালো মৌলিক গল্প দিন, ফাটিয়ে দেবে।
 ‘বিবাহ অভিযান’ কি পরোক্ষে ‘লিভ ইন’ সম্পর্ক বা ডিভোর্সের বিরুদ্ধে বার্তা দেওয়ার প্রয়াস?
 দেখুন, আমার এখনও পর্যন্ত বিয়ে হয়নি। বিয়ে করিনি না, হয়নি। আমি নিজেকে তাই স্বামী বলে মেনে নিতে পারি না। তবুও সময়টাকে আমি অস্বীকার তো করতে পারব না। আর্থ-সামাজিক অস্থিরতা বাড়ছে সারা পৃথিবী জুড়ে। তারপরেও কোথাও তো একটা পদবি দরকার। ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফিরে সাবধানতা অবলম্বন না করে একে অপরের জীবনের দুঃখ, আনন্দ, রাগগুলোকে শেয়ার করার একটা জায়গা দরকার। সেক্ষেত্রে ঘরের বিকল্প নেই। যখন স্ত্রী বন্ধু হয়, তখন মনে হয় পৃথিবীর সব সমস্যার সমাধান হয়ে যায়। আমরা বড্ড বেশি ‘আমি’র জগতে চলে যাচ্ছি। আমি তো আমার নাম করে নিজেকে ডাকতে পারি না। অন্যে কেউ আমার নাম ধরে ডাকলে তবেই আমার পরিচিতি, স্বীকৃতি। আমি মনে করি আবার আমার পিছনে ফিরছি। শেকড়ে ফেরার চেষ্টা করছি।
 আর রুদ্রনীলের বিবাহ অভিযান?
 বিয়ের বয়স হয়ে গিয়েছে বলেই বিয়েটা করে ফেলা উচিত, এই চাপটা এখনও নিতে চাইছি না। যেদিন বুঝব বাড়ি ফিরে নিজের ঘরে লুঙ্গি পরে ঘুরে বেড়ানোর স্বাধীনতায় কেউ হস্তক্ষেপ করলে আমার অসুবিধে হচ্ছে না, দেওয়াল ফাটিয়ে আমার হাসির শব্দে আপত্তি জানালেও আমি মেনে নিচ্ছি, সর্বপরি আমার ব্যাচেলার লুকটাকে তিনি না মেনে নিলেও, তাঁর অসুবিধে হচ্ছে না, সেদিন বিয়েটা করব। সময়টা আসছে আস্তে আস্তে। আর একটু নিজেকে সংযত করার দরকার রয়েছে জীবনে। বিয়ে করে বউকে যেন মিথ্যে কথা না বলতে হয়। আসলে আমি ঠিক গুছিয়ে মিথ্যে কথাটা বলতে পারি না। বিয়েটা একটা অন্যরকম জায়গা। ‘আমি’ শব্দটা যত্ন করে মুছে দিয়ে ‘আমরা’ হয়ে ওঠার জায়গা। তাই আমি এখনও সঠিক সময়ের অপেক্ষায় আছি।
 বাংলা ছবিতে মহিলা কমেডিয়ান আসছেন না কেন?
 ‘কমেডি অ্যাক্টর’ শব্দটাই ডাইনোসর যুগের। সারা পৃথিবীতে তাই পুরস্কারের ভাষাটাও বদলে যাচ্ছে। এখন বলা হচ্ছে, বেস্ট অ্যাক্টর বা অ্যাকট্রেস ইন এ কমিক রোল। আগে ভালো অভিনেতা হতে হবে। যিনি অভিনয়ের সূক্ষ্মতম দিকটা বোঝেন, তিনিই অনায়াসে দর্শককে হাসাতে বা কাঁদাতে পারেন। যিনি ক্লাসিক্যাল গাইতে পারেন, তিনি যে কোনও গান তুড়ি মেরে গেয়ে দিতে পারেন। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে, আমাদের এখানে কমেডি অ্যাক্টিংয়ের সুযোগ কোথায়? যাঁরা বলেন, চিত্রনাট্য সেভাবে লেখা হয় না, সেটা মিথ্যা কথা। আসলে হল পরিচালক-প্রযোজকদের মাইন্ড সেট। সুখের কথা সেটা বদলাচ্ছে। এই ছবিতে সোহিনী, নুসরত, প্রিয়াঙ্কারা কমেডি করে ফাটিয়ে দিয়েছেন। ভালো অভিনেতা সুযোগ পেলে ভালো কমেডি করতে পারেন এই ছবিটাই তার প্রমাণ।
 এমন দুঃসহ গরমে ছবির মুক্তির কথা ভাবলেন কেন?
 এই মুহূর্তে দেশ জুড়ে, রাজ্য জুড়ে এত অস্থিরতা চলছে, সেই পরিস্থিতিতে মানুষ রিলিফ চাইছেন। তাছাড়া পরপর তো বেশ কয়েকটা ভালো গুরুগম্ভীর ছবি দেখলেন বাংলার দর্শক। এবার একটা হাল্কা মজার ছবিই না হয় দেখুন।
 রাজ্য জুড়ে অস্থির পরিস্থিতি বলতে আপনি ঠিক কী বোঝাতে চাইছেন?
 শুধু মাত্র রাজ্যের কথা আমি বলব না। গত একবছরে, জানুয়ারি পর্যন্ত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রে আটশোজন কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। দেশ ভালো আছে? পশ্চিমবঙ্গে ডাক্তার এবং রোগীর সম্পর্ক ক্রমশ খারাপ হয়ে যাচ্ছে। এটা কি ভালো লক্ষণ? এটাকে তো ঠিক করবে অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পক্ষপাতদুষ্ট না হয়ে। শরীর থেকে রাজনৈতিক সমীকরণের চাদর খুলে ফেলে সব ধর্মের, সব জাতের, সব পেশার মানুষের জন্য প্রশাসকদের অবতীর্ণ হতে হবে, নম্রতার সঙ্গে। তাঁরা যদি কেউ ব্যস্ত থাকেন অন্য কাজে, বা চুপ করে থাকেন, তাহলে কিন্তু মানুষ আবার প্রশাসক পাল্টে দেবেন। এর আগের নির্বাচনের সময় মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘যদি আমাদের কোনও ভুল হয়, দোষ হয়, তোমরা আমাকে বলো, আমরা শুধরে নেব।’ আমি ব্যক্তিগতভাবে খুব কাছ থেকে ওঁকে দেখেছি। উনি প্যাঁচালে রাজনীতিক নন। সাধারণ মানুষ আর অপরের জন্য করতে করতেই তিনি কিন্তু এই জায়গায় এসেছেন।
 সাম্প্রতিক লোকসভা নির্বাচনে কি সেই নিরপেক্ষহীনতারই প্রতিফলন ঘটেছে শাসক দলের ভোটব্যাঙ্কে?
 রাজ্য সরকার পরিচালনায় যে দলটি রয়েছে তার নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি যখনই আমাকে বা আমাদের আহ্বান করেছেন, রাজ্যের উন্নয়নে আমরা সদর্থক মনোভাব নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছি। এবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে মনে হয়েছে, দল তাঁর কন্ট্রোলের বাইরে বেরিয়ে অন্য অনেক কথাবার্তা বলছে, যে খবরগুলো তাঁর কাছে পৌঁছচ্ছে না বা তাঁর কাছের লোকগুলো তাঁর কাছে ভুল বার্তা পৌঁছচ্ছেন। সেইজন্য এবার নির্বাচনের দু’-এক মাস আগে থেকেই আমি কিন্তু নীরব ছিলাম। নিরপেক্ষভাবে আমি নির্বাচনটাকে লক্ষ্য করছিলাম। আমি কিন্তু কারও পক্ষে কথা বলিনি। আমি বিজেপি-কে তো চিনি না। তারা অন্য রাজ্যে কোথায় কী করেছে, সেটা আলাদ জিনিস। আমার রাজ্যে তো আমি বিজেপি-কে দেখিনি। তাই তাদের সমর্থন বা তিরস্কার করার অভিজ্ঞতা আমার কাছে নেই। কিন্তু, যে রাজনৈতিক দলটিকে আমার রাজ্যকে আমি সামলাতে দেখেছি, তাকে ভালো কাজগুলো করতে দেখেছি, সেই দলেরই কয়েকজন রাজনৈতিক কর্মী এখন মানুষের সঙ্গে এত অহমিকার সঙ্গে ব্যবহার করছেন, সে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পৌঁছচ্ছে না। যার ফলে উনি কিন্তু বলতে বাধ্য হয়েছেন যে, ‘আমাকে তোরা ভুল বোঝালি’। তাঁর মানে ভুল বোঝানো হয়েছে। আমার মনে হয়েছে বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রসঙ্গক্রমে উনি যা যা কথা বলছেন, ভুল বোঝাবার মতো লোকগুলোকে শনাক্ত করে কেটে ছুঁড়ে ফেলে দিতে হবে। তবে হয়তো আবার ওঁর প্রতি সর্বস্তরের মানুষের ভালোবাসাটা ফিরে আসবে। অভিনয়ের পর আমার যেটুকু সময় আছে দেশ ও রাজ্যের ভালোর জন্য কেউ কিছু করতে বললে আমি রাজি। কিন্তু অন্যায় আমি মেনে নিতে পারব না। ভুলটাকে আমি মানতে পারব না। তিনি যেই করে থাকুন না কেন। আমি নিঃশব্দে সরে যাব সেখান থেকে। আমাকে রুদ্রনীল ঘোষ বানিয়েছেন সাধারণ মানুষ। তাঁদের কাছে আমি দায়বদ্ধ। কোনও একটি রাজনৈতিক দল বা নেতা কিংবা নেত্রীকে পছন্দ করি বলে সবকিছু চুপ করে মেনে নেব এটা তো হতে পারে না। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট বলুন, অন্য কোনও মাধ্যম বলুন অনেকভাবে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীকে বোঝানোর চেষ্টা করছি, এরকমটা ঠিক হচ্ছে না। কিন্তু ওঁর পাশে কিছু মানুষ রয়েছেন, যাঁরা ওঁকে ক্রমাগত ভুল বুঝিয়ে যাচ্ছেন। আর একদল ভয় পাচ্ছেন, পাছে ওঁকে ঠিক বললে যদি নিজের চেয়ার চলে যায়? তাই চুপ করে আছেন। একজন ভালো মানুষকে আমরা মাথা গরম করতে সাহায্য করছি। এটা অত্যন্ত যন্ত্রণার।
প্রিয়ব্রত দত্ত
21st  June, 2019
তমালিকা পণ্ডা শেঠ স্মৃতি পুরস্কার

গত ৬ আগস্ট ছিল প্রয়াত কবি তমালিকা পণ্ডা শেঠের ৬৩তম জন্মদিন। তিনি ছিলেন বিধায়ক, পুরপ্রধান, সংস্কৃতি সংগঠক, রাজনীতিবিদ ও আপনজন পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক। প্রয়াত কবির জন্মদিনে কলকাতার জাতীয় গ্রন্থাগারে সংবাদ সাপ্তাহিক আপনজন পত্রিকার উদ্যোগে সাহিত্য আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
বিশদ

09th  August, 2019
লক্ষ্য যখন মঙ্গল

১৪ আগস্ট চাঁদের কক্ষপথে ঝাঁপ দেবে ভারতের চন্দ্রযান-২। তার ঠিক পরের দিন, অর্থাৎ স্বাধীনতা দিবসে মুক্তি পাবে অক্ষরকুমার অভিনীত জগন শক্তির ছবি ‘মিশন মঙ্গল।’ ইতিমধ্যেই সিনেপ্রেমীরা দেখে ফেলেছেন মিশন মঙ্গলের ট্রেলার। সেখানে স্পষ্টই বলা হয়েছে, সত্য ঘটনা অবলম্বনে এই ছবি তৈরি করা হয়েছে।
বিশদ

09th  August, 2019
অবশেষে চৌধুরী পরিবারে
শামিল হয়ে খুশি ঋতুপর্ণা

আগ্রহটা ছিল দু’তরফেই। টলিউডের তামাম পরিচালক ও প্রযোজকের ছবিতে কাজ করলেও বাংলা সিনেমা জগতের অন্যতম ইতিহাস সৃষ্টিকারী ‘চৌধুরী পরিবার’-এর কোনও ছবিতে অভিনয় করেননি ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। টলিউডের শীর্ষ অভিনেত্রীর ভাষায় যা ‘অঞ্জন চৌধুরী ঘরানা’। এতদিনে সেই আক্ষেপ মিটল ঋতুপর্ণার।
বিশদ

02nd  August, 2019
অন্য উত্তম 

বাংলা চলচ্চিত্রে রোম্যান্টিসিজমকে এক অন্য মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছিলেন উত্তমকুমার। কিন্তু সত্যিই কি উত্তমকুমার মানে শুধুই একজন রোম্যান্টিক নায়ক? মহানায়কের ৪০তম প্রয়াণ দিবসের দু’দিন পর অভিনেতার অন্য দিক আলোচনায় প্রীতম দাশগুপ্ত  
বিশদ

26th  July, 2019
 বছরের প্রথমার্ধের বলিউড

 দেখতে দেখতে বছরের অর্ধেক কেটে গেল। বলিউড থেকে নানা স্বাদের ছবি উপহার পেয়েছেন দর্শক। সেখানে যেমন মাল্টিস্টারার ছবি রয়েছে, তেমনই বিষয়ভিত্তিক ছবিও রয়েছে। থ্রিলার যেমন আছে, তেমনই আছে জাতীয়তাবোধের ছবি। ইদানীং কনটেন্ট বনাম তারকা— এই বিতর্ক বলিউড পেরিয়ে দেশের আঞ্চলিক ইন্ডাস্ট্রিকেও গ্রাস করেছে। কে এগিয়ে কে পিছিয়ে? গত ৬ মাসের হিন্দি ছবির বক্সঅফিসের দিকে তাকালে বিষয়টা পরিষ্কার হবে।
বিশদ

19th  July, 2019
উত্তম চলচ্চিত্র উৎসব

দেখতে দেখতে প্রায় ৪০ বছর হয়ে গেল উত্তমকুমার নেই। কিন্তু আপামর বাঙালির কাছে তাঁর জনপ্রিয়তা আজও অটূট। আগামী ২৪ জুলাই মহানায়ক উত্তমকুমারের ৪০তম প্রয়াণ দিবস। সেই উপলক্ষে শিল্পী সংসদের পক্ষ থেকে প্রতি বছরের মত এবছরও নন্দনে মহানায়কের অভিনীত ছবির প্রদর্শনের মাধ্যমে তাঁকে স্মরণ করা হবে।
বিশদ

19th  July, 2019
 কল্পবিজ্ঞান আর রহস্যের মিশেলে তৈরি হচ্ছে ব্ল্যাক ডে

  হিন্দি ছবি দ্য ডার্লিং ওয়াইফের কাজ শেষের প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই পরিচালক বর্ষালি চট্টোপাধ্যায় তাঁর পরবর্তী বাংলা ছবির কাজ শুরু করে দিয়েছেন। এবারের ছবি ‘ব্ল্যাক ডে’। কল্পবিজ্ঞান আর রহস্যের মিশেলে গল্পের প্লট সাজিয়েছেন নবীন গল্পকার জয় রায়, যিনি এই ছবির নায়কও বটে। টলিউডের ফ্যাশন স্টাইলিস্টদের মধ্যে অন্যতম জয়।
বিশদ

12th  July, 2019
সৌমিত্র-মাধবী জুটি

দীপ প্রোডাকশনের নতুন ছবি ‘১০ মাস ১০ দিনের গল্প’। বৃদ্ধাশ্রমের বাসিন্দাদের জীবনের দুঃখ-কষ্টের ছবিই ফুটে উঠেছে এই ছবির গল্পে। গল্পের কেন্দ্রবিন্দুতে ‘আপনজন’ নামে এক বৃদ্ধাশ্রম। সেখানকার বাসিন্দা এক অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল।
বিশদ

12th  July, 2019
 অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়ের জন্মশতবর্ষ

 সম্প্রতি প্রখ্যাত চিত্রপরিচালক অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়ের জন্মশতবর্ষ পালিত হল নন্দন ২ প্রেক্ষাগৃহে। অভিনেত্রী মাধবী মুখোপাধ্যায় পরিচালকের সঙ্গে তাঁর নানা ঘটনার স্মৃতিচারণ করলেন। মাধবী বলেন, ‘গল্পের সঙ্গে একটা বার্তা এই দুয়েরই একটা সংমিশ্রণ তাঁর ছবিতে ঘটাতেন অরবিন্দবাবু।
বিশদ

05th  July, 2019
 তিন স্তরে নারীর আত্মপ্রতিষ্ঠা নিয়ে ‘তুমি ও তুমি’

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সংবাদপত্রের পাতায় এক মর্মান্তিক প্রতিবেদনের ঝলক, ছেলে বউমার সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় গঙ্গায় ঝাঁপ দিলেন এক বৃদ্ধ দম্পতি। তলিয়ে গিয়ে মৃত্যু ঘটেছে বৃদ্ধর, প্রাণে বেঁচেছেন তাঁর স্ত্রী। তাঁর মুখেই জানা গিয়েছে কেন এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন তাঁরা।
বিশদ

05th  July, 2019
ঋতুপর্ণা-টোটার সুন্দর জীবন

জীবনের সংজ্ঞা আমাদের এক একজনের কাছে এক একরকম। জীবনকে সর্বাঙ্গীন সুন্দর করে তোলাই আমাদের প্রত্যেকের লক্ষ্য। এই ভাবনা থেকেই নবাগত পরিচালক আর ডি নাথ তাঁর ছবি ‘বিউটিফুল লাইফ’-এর চিত্রনাট্য লিখেছেন। পরিচালক নিজে একাধারে চিত্রকর, ভাস্কর, কবি-তাই তাঁর ছবিতে শিল্প প্রাধান্য পাবে সেটাই স্বাভাবিক।
বিশদ

28th  June, 2019
জীবনে ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প

  পরিচালক রুনা চৌধুরী নতুন ছবির কাজ শেষ করেছেন। স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবিটির নাম ‘ইনসেপশন’। ছবিতে দুটি মুখ্য চরিত্র। একজন দৃষ্টিহীন মেয়ে মীরা ও একজন দুষ্কৃতী আদিত্য। একটি রাতের গল্পকে কেন্দ্র করে ছবির গল্প এগিয়েছে। সংক্ষেপে দেখে নেওয়া যাক।
বিশদ

21st  June, 2019
 প্রধানমন্ত্রী কুণালজিত্

 দরিদ্র পরিবারের ছেলে অগ্নীশ্বর। ছোটবেলা থেকেই তার দেশকে সেবা করার ইচ্ছে। কথায় বলে না, ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়। অগ্নীশ্বরের ক্ষেত্রেও তাই। মানবাধিকার সংঘের ছত্রছায়ায় এসে তার রাজনীতিতে হাতেখড়ি হয়। এরপর সময় যত এগতে থাকে, ধীরে ধীরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং পরে দেশের প্রধানমন্ত্রীর আসন অলঙ্কৃত করে সে।
বিশদ

21st  June, 2019
 সলমনের দুরন্ত কামব্যাক
চিন্তিত শাহরুখও আমির?

সময়ের সঙ্গে বলিউডে ‘স্টারডম’ শব্দটার অর্থ পাল্টেছে। ছবির পাশাপাশি বদলেছে সিনেমা শিল্প, বক্স অফিসের চলন। বলা যায় বলিউড এখন সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে। যেখানে লার্জার দ্যান লাইফ চরিত্র বনাম পাশের বাড়ি থেকে উঠে আসা নায়কের লড়াই। আজকের বলিউড মানে ক্রমাগত কনটেন্টের চাপে কোণঠাসা হচ্ছেন তারকারা।
বিশদ

14th  June, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দক্ষিণ ভারতে একের পর এক পুলিসি অভিযানে ধরা পড়েছে বেশ কয়েকজন জেএমবি জঙ্গি। তাই জায়গা পরিবর্তন করে মধ্য ভারতে ঘাঁটি বানাতে শুরু করেছিল এই জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা।  ...

বেজিং, ১২ আগস্ট (পিটিআই): ঘূর্ণিঝড় লেকিমার তাণ্ডবে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪৯ জন। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ২১ জন। প্রশাসন সূত্রে এই তথ্য জানা গিয়েছে। ...

প্রসেনজিৎ কোলে, কলকাতা: জোর করে দরজা আটকে পাতাল পথের ট্রেনে ওঠার অভিযোগে এক মাসেই জরিমানা বাবদ আদায় হয়েছে ১০ হাজার টাকা। স্টেশনে চলছে প্রচারও। তবুও ...

নয়াদিল্লি, ১৩ আগস্ট (পিটিআই): উন্নাওয়ের নির্যাতিতা এবং তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে ২০টি মামলা দায়ের হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। মঙ্গলবার উত্তরপ্রদেশ সরকারের কাছ থেকে সেই মামলাগুলির স্ট্যাটাস রিপোর্ট তলব করার ব্যাপারে অসম্মতি জানাল সুপ্রিম কোর্ট।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কোনও কিছুতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভাববেন। শত্রুতার অবসান হবে। গুরুজনদের কথা মানা দরকার। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সুফল ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৪৭- পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস
১৯৪৮- শেষ ইনিংসে শূন্য রানে আউট হলনে ডন ব্র্যাডম্যান
১৯৫৬- জার্মা নাট্যকার বের্টোল্ট ব্রেখটের মৃত্যু
২০১১- অভিনেতা শাম্মি কাপুরের মৃত্যু 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.২৭ টাকা ৭১.৯৭ টাকা
পাউন্ড ৮৪.২৫ টাকা ৮৭.৩৭ টাকা
ইউরো ৭৮.০৭ টাকা ৮১.০৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৪৩০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৪৬০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,০০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৬০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৭০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, চতুর্দশী ২৬/১৩ দিবা ৩/৪৬। উত্তরাষাঢ়া ০/৫ প্রাতঃ ৫/১৯। সূ উ ৫/১৬/৩৫, অ ৬/৬/১৬, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৮ মধ্যে পুনঃ ৯/৩৩ গতে ১১/১৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩২ গতে ৫/১৫ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫২ গতে ৯/৬ মধ্যে পুনঃ ১/৩৩ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/২৯ গতে ১০/৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ১/১৮ মধ্যে, কালরাত্রি ২/২৯ গতে ৩/৫২ মধ্যে। 
২৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, চতুর্দশী ২৪/৩১/৩ দিবা ৩/৪/৩। উত্তরাষাঢ়ানক্ষত্র ২/১০/১৭ দিবা ৬/৭/৪৫, সূ উ ৫/১৫/৩৮, অ ৬/৮/৪২, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে ও ৯/৩২ গতে ১১/১৪ মধ্যে ও ৩/২৮ গতে ৫/১০ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৪৬ গতে ৯/১ মধ্যে ও ১/৩২ গতে ৫/১৬ মধ্যে, বারবেলা ১১/৪২/১০ গতে ১/১৮/৪৮ মধ্যে, কালবেলা ৮/২৮/৫৪ গতে ১০/৫/৩২ মধ্যে, কালরাত্রি ২/২৮/৫৪ গতে ৩/৫২/১৬ মধ্যে। 
১২ জেলহজ্জ 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
তৃতীয় একদিনের ম্যাচ: বৃষ্টিতে ফের বন্ধ খেলা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৫৮/২(২২ওভার)  

09:25:56 PM

তৃতীয় একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩১/২(১৫ওভার)  

08:44:01 PM

তৃতীয় একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১১৪/০(১০ ওভার)  

08:19:26 PM

 আগামীকাল কম ট্রেন মেট্রোয়
আগামীকাল ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ছুটি থাকায় ...বিশদ

08:12:59 PM

তৃতীয় একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৯/০(৫ ওভার)  

07:49:21 PM

তৃতীয় একদিনের ম্যাচ: বৃষ্টিতে বন্ধ খেলা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮/০(১.৩ ওভার) 

07:24:54 PM