বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিনোদন
 

শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

আমেদাবাদের গান্ধী আশ্রমে বলিউড সুপারস্টার সলমন খান। —পিটিআই

রূপকথার মোড়কে উঠে এল বাস্তবের ছবি

দেবত্রী ঘোষ:  আচ্ছা, শূন্য থেকে বুঝি সম্পদ তৈরি হয়? যাহ্‌, সে আবার হয় নাকি? হয় বইকি! তবে খাটাতে হয় মাথা, জানতে হয় কলা-কৌশল... তবেই না রাজকোষ ভরে ওঠে সম্ভারে আর দেশের বাড়ে বল! গুর্জর দেশ থেকে সুখী বোম্বাগড়ে এল এক অজানা পথিক। নাম তার গবুচন্দ্র (খরাজ মুখোপাধ্যায়)। কথায় বার্তায় তুখোড়। আর যেন জানে এক আজব ম্যাজিক! তাকে যেই কাজের দায়িত্ব দাও, সে ঘড়িতে দম দেওয়ার কাজই হোক কি রাজ্যের সব ইঁদুর নির্মূল করার— সব কাজের শেষেই সে থলে ভরে নিয়ে আসে স্বর্ণমুদ্রা, মণি-মাণিক্য, গয়নাগাঁটি। দেখে অবাক (সঙ্গে খুশিও) বোম্বাগড়ের রাজা হবুচন্দ্র (শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়) আর রানি কুসুমকলি (অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়)। এইবার রাজকোষ যাবে ভরে, এই আনন্দে রাজা বিদায় দিলেন বহু বছরের সঙ্গী বুড়ো মন্ত্রীকে। সেই জায়গায় গবুচন্দ্র হবে নতুন মন্ত্রী। বুড়ো মন্ত্রী রিটায়ার করার আগে গবুকে শুধোলেন, ‘কী তোমার মনের আশ?’ গবু বলল, ‘বিকাশ।’ এই বলে বিকাশের লম্বা-চওড়া ডেফিনিশন দিল। বুড়ো মন্ত্রীর মনে সন্দেহ, ‘কিন্তু সুখ? সুখ থাকবে তো?’ 
সুখ কীসের? গবু এল আর বদলে গেল বোম্বাগড়ের আগা-মাথা। কার্যত ‘সারভাইভাল অব দ্য ফিটেস্ট’ (যোগ্যতমের উদবর্তন) মন্ত্রে চলতে লাগল রাজ্য। গবুর নিধানে প্রজারা হাতিদের নিজের মাসি মানতে শুরু করল, রাজ্যে মুড়ি-মিছরি-রসগোল্লার এক দর হল, তৈরি হল রাজ্যের জাতীয় সঙ্গীত আর সক্কলে গাইতে লাগল ‘এই রাজ্যে বেঁচে আছ, মাশুল দিতে হবে রোজ’। আর যাদের মুখে বেশি বুলি, রাজার বিরুদ্ধে যারা কথা বলে, তাদের ঠাঁই হয় জেলে। রাজা-রানি দেখেও দেখেন না, শুনেও শোনেন না। গবুর বুদ্ধির মহিমায় তাঁরা গদগদ। কী উপায়ে এই ফেরেব্বাজ মন্ত্রীর খপ্পর থেকে মুক্তি পাবে বোম্বাগড়ের রাজ্য? পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়, দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদারের লেখা দুটি গল্প ‘সরকারমশায়ের থলে’ আর ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ থেকে তৈরি করেছেন এই ছবির চিত্রনাট্য। আপাতদৃষ্টিতে ছোটদের ছবি বা কমেডি ড্রামা হলেও দর্শকের কাছে এর পলিটিক্যাল স্যাটায়ারের বার্তা স্পষ্ট পৌঁছয়। অভিনয়ে শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় ও খরাজ মুখোপাধ্যায় দু’জনেই নজর কেড়েছেন। ভালো লেগেছে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, শুভাশিস মুখোপাধ্যায় ও বরুণ চন্দকেও। ছন্দ মিলিয়ে মিলিয়ে সংলাপ শুনতে বেশ কিছু জায়গায় মজা লাগে। সেই সঙ্গে কবীর সুমনের লেখা গানও যথাযথ। এই গানের কথার মধ্যে দিয়ে সুখের রাজ্য বোম্বাগড় কীভাবে ধীরে ধীরে অনাচারের রাজ্যে পরিণত হল, তা যেন আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। 
এই প্রথম, কোনও বাংলা ছবি ‘বাহুবলী’র ফিল্ম সেট’এ শ্যুট করা হয়েছে। শুধুমাত্র এই কারণের জন্যই এই ছবির আরও বেশি করে বড়পর্দায় মুক্তি পাওয়ার প্রয়োজন ছিল। টিভির সেট-এ বোম্বাগড়ের জাঁকজমক সেভাবে ফুটে উঠল কই? সুপ্রিয় দত্ত আর হরেন্দ্র সিংয়ের সিনেম্যাটোগ্রাফির ম্যাজিকও তাই বিশেষ বোঝা গেল না। তবে, এ ধরনের ছবিতে ভিএফএক্সের কাজ আরও উন্নত হওয়ার প্রয়োজন ছিল। আর রূপকথা আর ছড়ার মোড়কে বাস্তব পরিবেশন? সেইদিক থেকে ‘দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চারস’-এর ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ ভালো নম্বর পেয়েই পাশ করবে।

12th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021