বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
সিনেমা
 

ইফি থেকে বাদ ‘ডিকশনারি’
বিজেপিকেই তোপ ব্রাত্যর

 

গোয়ায় আসন্ন ৫২তম ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অব ইন্ডিয়া (ইফি)-র ইন্ডিয়ান প্যানোরামা বিভাগে নির্বাচিত হয়েও শেষপর্যন্ত বাদ পড়েছে বাংলা ছবি ‘ডিকশনারি’। এই ছবির পরিচালক রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। ছবি বাদ পড়ার কারণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কি না, সেই প্রশ্ন উঠছিলই। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে সরাসরি কেন্দ্রীয় সরকারের দিকেই আঙুল তুললেন ব্রাত্য। ঠিক কী ঘটেছে? গত ৫ নভেম্বর কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলা হয়েছিল ইফিতে নির্বাচিত পাঁচটি বাংলা ছবির মধ্যে রয়েছে ‘ডিকশনারি’। শুধু প্রেস বিজ্ঞপ্তি নয়, একাধিক ইমেল মারফত ফেস্টিভ্যাল কো-অর্ডিনেটর, ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টরেটের অতিরিক্ত অধিকর্তা সহ একাধিক আধিকারিক ছবির পরিচালককে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন। ক্যাটালগ তৈরির জন্য নথিও চেয়ে পাঠানো হয়। তার সঙ্গে ২২ নভেম্বর সকাল ১০টায় পানাজিতে এই ছবি প্রদর্শিত হবে বলেও জানানো হয়। পরদিন নতুন প্রেস বিজ্ঞপ্তি জারি হয়, বাদ পড়ে ‘ডিকশনারি’। হাস্যকর বিষয় হল, এর পরেও গত ৮ নভেম্বর ব্রাত্যর আপ্তসহায়ককে একটি ইমেল করে ফেস্টিভ্যালের অ্যাসিস্ট্যান্ট ফিল্ম প্রোগ্রামার রুদ্রপ্রসাদ সিং নানা বিষয়ে আলোচনা করেন। এখন প্রশ্ন উঠছে ঠিক কী কারণে বাতিল হল ‘ডিকশনারি’? ফেস্টিভ্যালের তরফে ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া ও ছবির প্রযোজককে ৬ নভেম্বর ইমেলে মারফত জানানো হয়, ‘ডিকশনারি’ ছবিটি যখন ফেডারেশনের তরফে সুপারিশ করা হয়েছিল, তখন ফর্মে ছবির পরিচালকের নামের বানান ভুল ছিল। এটি একটি ‘গুরুতর ত্রুটি’ তাই মনোনয়ন বাতিল করা হচ্ছে। ৬ নভেম্বর সকালে ফেডারেশনের তরফে জানানো হয়, পরিচালকের নামের বানানে ‘বি’-এর জায়গায় ‘ডি’ হয়ে গিয়েছে। তারা যেন বাতিলের সিদ্ধান্ত পুনরায় বিবেচনা করে। সেদিনই ফেস্টিভ্যালের তরফে তাদের অক্ষমতার কথা জানানো হয়। আরও বলা হয়, ফিরদৌসুল তাঁর প্রযোজনা সংস্থার অন্য যে কোনও ছবি পাঠাতে পারেন, তবে ‘ডিকশনারি’ নয়, এমনটাই এই প্রযোজকের দাবি।
বৃহম্পতিবার ব্রাত্য ও ছবির প্রযোজক তথা ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার সহ-সভাপতি ফিরদৌসুল হাসান সাংবাদিক সম্মেলন করে এই গোটা বিষয়টি তুলে ধরেন। বেশ কয়েকটি প্রশ্ন উঠে এসেছে। এক, নামের বানান ভুলই যদি বাতিলের কারণ হয় তাহলে প্রথম প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ব্রাত্যর নাম সঠিক থাকল কী করে? দুই, ফেস্টিভ্যালের আধিকারিকরা যখন ব্রাত্যকে অভিনন্দন জানিয়ে ইমেল করছিলেন, সেখানেও নামের বানান সঠিক থাকল কী করে? ব্রাত্য বলছেন, ‘এটা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। ছবিটি আন্তর্জাতিক স্তরে পুরস্কারপ্রাপ্ত। ইফিতে নির্বাচিত হওয়ার পর মনে হয় কর্তৃপক্ষ আমার রাজনৈতিক পরিচয় জানতে পারেন। ফলত ছবিটি বাদ দেওয়া হয়। এটা বিজেপির চক্রান্ত। আমি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য। আমার নেত্রীর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কারণে যদি আপনারা ছবি বাদ দিতে চান, দিন। আমার বিজেপি বিরোধিতা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড অব্যাহত থাকবে।’ 
মনে রাখতে হবে, ছবির বিষয়বস্তু কিন্তু একেবারেই রাজনৈতিক নয়। বুদ্ধদেব গুহর দু’টি ছোট গল্প নিয়ে মানবিক সম্পর্কের গল্প রয়েছে এই ছবিতে। ছবির নায়িকা নুসরত জাহানও তৃণমূলের সাংসদ। সেখানেও কি সমস্যা? এ প্রসঙ্গে নুসরতের বক্তব্য, ‘ছবি বাতিলের কারণ মেধা হলে আমার সমস্যা নেই। কিন্তু বাদ পড়ার কারণ যদি পরিচালক আর অভিনেত্রী তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য বা গোয়ায় চলতি তৃণমূল-বিজেপি’র রাজনৈতিক সংঘাতের কারণে হয়,সেটা খুবই খারাপ। চলচ্চিত্র আমাদের দেশের সংস্কৃতির অঙ্গ। এর মধ্যে রাজনীতি আনার কোনও মানে হয় না।’ ব্রাত্যর কথায়, ‘ছবি আর রাজনীতিকে যদি ওঁরা মেলান, সেটা ওঁদের বিবেচনা।’ তবে, পরিচালক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যতদিন বিজেপি কেন্দ্রে রয়েছে, ততদিন এই ফেস্টিভ্যালে তিনি আর ছবি পাঠাবেন না। 

12th     November,   2021
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021