বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
আমরা মেয়েরা
 

এখন মেয়েরা

মেয়েদের স্বনির্ভর করছে মধ্যপ্রদেশ ট্যুরিজম
মহিলাদের উন্নয়নের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে মধ্যপ্রদেশ পর্যটন দপ্তর। মহিলাদের স্বনির্ভরতার উদ্দেশ্যে তারা রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন ধরনের হোম স্টে শুরু করেছে। এই ধরনের হোম স্টে মূলত মহিলা দ্বারা পরিচালিত। শুধু তা-ই নয়, হোম স্টে সংলগ্ন কিছু হ্যান্ডিক্র্যাফট বাজারও শুরু করেছে মধ্যপ্রদেশ পর্যটন দপ্তর। সেখানেও গ্রাম্য মহিলারা তাঁদের হাতের তৈরি নানা ধরনের জিনিস বিক্রি করার সুযোগ পাচ্ছেন। এমপি ট্যুরিজম-এর ডেপুটি ডিরেক্টর যুবরাজ পাড়োল বলেন, ‘মধ্যপ্রদেশের ঐতিহ্যকে পর্যটকদের সামনে তুলে ধরাই আমাদের উদ্দেশ্য। আর সেই উদ্দেশ্য নিয়েই রাজ্যের পর্যটন বিভাগকে আরও আর্কণীয় করে তুলছি আমরা।’ তিনি লক্ষ করেছেন, গত কয়েক বছরে বিদেশের মতো দেশেও একক মহিলা পর্যটকের সংখ্যা খুবই বেড়ে গিয়েছে। তাঁদের কাছে মধ্যপ্রদেশকে ‘সেফ ডেস্টিনেশন’ হিসেবে তুলে ধরতে চান যুবরাজ পাড়োল। একই সঙ্গে তিনি রাজ্যের মহিলাদের উন্নয়নের কাজেও আগ্রহী। ট্যুরিজমের মাধ্যমে মহিলাদের কীভাবে স্বনির্ভর করা যায়, সে নিয়ে বিস্তর ভাবনাচিন্তা চালিয়েছেন তিনি ও তাঁর টিম। এবং তাঁরা মনে করেন মধ্যপ্রদেশের মহিলাদের হাতের কাজ বিদেশি পর্যটকদের সামনে তুলে ধরতে পারলে সেটা একটা রোজগারের উপায় হতে পারে। এছাড়া গ্রাম্য মহিলাদের দৈনন্দিন কাজ নিয়ে কিছু কর্মশালারও আয়োজন করেন তাঁরা। তাতে ধান ভাঙা বা হস্তশিল্পর মতো বিভিন্ন বিভাগ রয়েছে। সেইসব কাজে মেয়েরা কীভাবে যুক্ত, সেটাও পর্যটনের অঙ্গ হিসেবে তুলে ধরছেন তাঁরা। এছাড়াও মহিলাদের বিভিন্ন ধরনের রান্নাও তাঁরা পর্যটকদের সামনে তুলে ধরছেন। বিদেশি পর্যটকদের কাছে রাজ্যের রান্নার কদর সবচেয়ে বেশি। হোম স্টে-তে ঘরোয়া রান্নার বিশেষ কদর লক্ষ করা যায়। তাছাড়া হোম স্টে-র পরিচালনাতেও মহিলারা বিশেষভাবে অগ্রসর হয়ে উঠেছেন। ঘর গোছানো, রান্না করা, অতিথি আপ্যায়ন ইত্যাদিতে তাঁরা সাধারণভাবেই পারদর্শী। সামান্য প্রশিক্ষণ নিয়ে সেই পারদর্শিতা দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে। ফলে রাজ্য পর্যটন দপ্তরের সাহায্যে ক্রমশ নিজেদের স্বনির্ভর করে তুলতে সক্ষম হয়ে উঠছেন মধ্যপ্রদেশের মেয়েরা।

সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা
‘সংবাদমাধ্যম যখন স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে, তবে তা হয় সুস্থ গণতন্ত্রের অন্যতম লক্ষণ’— শহরে সম্প্রতি মহিলা সাংবাদিকদের জন্য একটি আন্তর্জাতিক মিডিয়া ওয়ার্কশপে এই মন্তব্য করেন কলকাতার মার্কিন কনসাল জেনারেল মেলিন্ডা পাভেক। ওয়ার্কশপটি আয়োজন করেছিল মার্কিন কনস্যুলেট, কলকাতা। সঙ্গে ছিল ‘কনজিউমার ইউনিটি অ্যান্ড ট্রাস্ট সোসাইটি’, সহযোগিতায় ছিল ‘সাউথ এশিয়ান উওম্যান ইন মিডিয়া’ এবং ‘ইস্ট ওয়েস্ট সেন্টার’। আলোচনায় আমেরিকায় তৈরি হওয়া ডিজিটাল কমিউনিকেশন নেটওয়ার্কের কথা উল্লেখ করেন মেলিন্ডা। যেখানে আট হাজারের বেশি সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ, পাবলিক অফিশিয়াল, মিডিয়া প্রফেশনাল কাজ করছেন। এই নেটওয়ার্কের সাহায্যে সাধারণ মানুষের হাতে এমন সরঞ্জাম পৌঁছে যাচ্ছে, যার মাধ্যমে যে কোনও তথ্য সঠিক কি না, তা যাচাই করে নেওয়া সম্ভব। কলকাতার আমেরিকান সেন্টারের ডিরেক্টর অ্যাডরিয়ান প্র্যাট ওই কর্মশালায় ডিজিটাল টেকনোলজির ভালো-মন্দ দুই দিকের কথাই উল্লেখ করেন। একদিকে যেমন রিয়্যাল টাইমে গোটা বিশ্বের মানুষের হাতে তথ্য পৌঁছে যাচ্ছে, তেমনই অন্যদিকে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দিয়ে সাংবাদিক, বিশেষত মহিলা সাংবাদিকদের অনেক সময় হেনস্থা করা হয়। ‘সাউথ এশিয়ান উওম্যান ইন মিডিয়ার’ জেনারেল সেক্রেটারি নীলোভা রায়চৌধুরী দক্ষিণ এশিয়ায় মহিলা সাংবাদিকদের কত রকমের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি পড়তে হয়, তার উল্লেখ করেন। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ‘কনজিউমার ইউনিটি অ্যান্ড ট্রাস্ট সোসাইটি’র এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর বিপুল চট্টোপাধ্যায় এবং ‘ইস্ট ওয়েস্ট সেন্টার’-এর মিডিয়া প্রোগ্রাম ম্যানেজার সুজান ক্রেইফেলস। বিভিন্ন দেশের প্রায় ৬০ জন মহিলা সাংবাদিক এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেছিলেন। 

সানফ্রান্সিসকোর অ্যাভিয়েশন মিউজিয়ামে ক্যাপ্টেন জোয়া
নর্থ পোল বা সুমেরুর উপর দিয়ে বিমান নিয়ে উড়ে গিয়েছিলেন তিনি। ১৬ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে রেকর্ড করেছেন। সে কারণেই সানফ্রান্সিসকোর জনপ্রিয় অ্যাভিয়েশন মিউজিয়াম তথা ‘এসএফও অ্যাভিয়েশন মিউজিয়াম’-এ স্থান হল তাঁর। তিনি এয়ার ইন্ডিয়ার সিনিয়র মহিলা পাইলট জোয়া আগরওয়াল। ২০২১-এ জোয়ার নেতৃত্বে মহিলা পাইলটদের একটি দল পৃথিবীর সর্ববৃহৎ বিমান পথ আমেরিকার সানফ্রান্সিসকো থেকে ভারতের বেঙ্গালুরু পর্যন্ত পাড়ি দিয়েছিলেন। তার মধ্যে পড়েছিল নর্থপোলও। এই সাফল্যের স্বীকৃতি পেলেন জোয়া। এ প্রসঙ্গে সংবাদসংস্থাকে জোয়া বলেন, ‘ওই মিউজিয়ামে আমিই একমাত্র হিউম্যান অবজেক্ট। প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবেও এই সম্মান পেলাম। আমি কৃতজ্ঞ। আমেরিকার এই অ্যাভিয়েশন মিউজিয়ামের অংশ হতে পেরেছি, এটা এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না। নিজের জন্য এবং আমার দেশের জন্যও এটা গর্বের মুহূর্ত।’ মিউজিয়ামের তরফে এক আধিকারিক সংবাদমাধ্যমে জানান, জোয়ার কেরিয়ার অত্যন্ত আকর্ষণীয়। তিনি সবসময় সদর্থক চিন্তা করেন। বহু মহিলাকে স্বপ্নপূরণে উৎসাহ দেন। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম জোয়ার থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে। 
 

27th     August,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ