বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বর্ধমানের পুলিস লাইনে কুচকাওয়াজের মহড়া। - নিজস্ব চিত্র

ফরাক্কার কুলিদিয়ারে ব্যাপক ভাঙন
তলিয়ে গেল কয়েক বিঘা চাষের জমি

সংবাদদাতা, জঙ্গিপুর: সামশেরগঞ্জের পর এবার ফরাক্কার পূর্বপাড়ের গঙ্গায় ব্যাপক ভাঙন শুরু হল। শনিবার সকালে ফরাক্কার নয়নসুখ চর গ্রাম পঞ্চায়েতের কুলিদিয়ারে ভাঙনে বেশ কয়েক বিঘা চাষের জমি তলিয়ে গিয়েছে। আর মাত্র কয়েক মিটার দূরেই জনবসতি এলাকা। এভাবে পাড় ভাঙতে থাকলে অচিরেই পাকা ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফলে, আশপাশের এলাকার বাসিন্দারা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। এলাকার লোকজন ফরাক্কা ব্যারেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে গঙ্গার ভাঙন রোধের ব্যবস্থা করা হোক। 
ফরাক্কার ভিডিও জুনায়েদ আহমেদ বলেন, জলস্তর কমায় ভাঙন দেখা দিয়েছে। কিছু এলাকা তলিয়ে গিয়েছে। তবে, ঘরবাড়ি বা জনজীবনে কোনও সমস্যা হয়নি। পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হচ্ছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাব।
জানা গিয়েছে, এদিন সকালে থেকে কুলিদিয়ার চর এলাকার সৈয়দ আলি পাড়া ও অর্জুনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের খাসপাড়া এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দেয়। ভাঙনের ফলে প্রায় ২০-২৫ বিঘা চাষের জমি গঙ্গার গর্ভে তলিয়ে যায় বলে স্থানীয়দের দাবি। এছাড়া, পার্শ্ববর্তী হোসেনপুর, পাড় সুজাপুর এলাকায় ভাঙন দেখা দেয়। ফলে নয়নসুখ চর ও অর্জুনপুরের বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় কয়েক হাজার মানুষ আতঙ্কে ভুগছেন। এইসময় চর এলাকায় মাঠে চাষ হয়েছে। এভাবে লাগাতার চাষের জমি তলিয়ে যাওয়ায় কার্যত মাথায় হাত পড়েছে চাষিদের। স্থানীয় বাসিন্দা সাবির আহমেদ বলেন, যে হারে ভাঙন শুরু হয়েছে তাতে জনবসতি এলাকা তলিয়ে যাওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা। অথচ ফরাক্কা ব্যারাজ কর্তৃপক্ষ ও সরকারের কোনও হেলদোল নেই। অবিলম্বে ভাঙন রোধের ব্যবস্থা না হলে এলাকার কয়েক হাজার বাসিন্দা ভয়ঙ্কর সমস্যায় পড়বেন। হোসেনপুর গঙ্গা ভাঙন প্রতিরোধ কমিটির সম্পাদক আসিফ ইকবাল বলেন, ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। মানুষ আতঙ্কে রয়েছে। সরকার অবিলম্বে ভাঙন রোধের ব্যবস্থা না করলে কয়েকটি গ্রাম তলিয়ে যাবে। সরকার আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে গঙ্গার ভাঙন রোধের ব্যবস্থা করুক। প্রসঙ্গত, গতবছর কুলিদিয়ার ও হোসেনপুরে ব্যাপক ভাঙন হয়েছিল। বিঘার পর বিঘা চাষের জমি ও বসতভিটে তলিয়ে গিয়েছে। ফরাক্কা ব্যারাজের জেনারেল ম্যানেজার রঙ্গাস্বামী এজহাগেসন বলেন, ওই এলাকা ব্যারাজের এক্তিয়ারে পড়ে না। এবিষয়ে আমাদের কিছু করার নেই।

28th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021