বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

আহারে মগ্ন। বারাসত গভর্নমেন্ট কলেজে তোলা নিজস্ব চিত্র। 

বেড সংরক্ষণে বিশেষ সফটওয়্যার
ব্যবহারের আর্জি, রাজ্যের মত তলব

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ট্রেনে যেভাবে আসন সংরক্ষণ করা হয়, তেমনই বিশেষ সফটওয়্যারের মাধ্যমে সরকারি হাসপাতালে মুমূর্ষু রোগীদের জন্য বেড সংরক্ষণ করা হোক। তাহলে রোগীর আত্মীয়রা সহজেই নির্দিষ্ট হাসপাতালে দ্রুত নিয়ে যেতে পারবেন রোগীকে। অসুস্থ রোগীকে নিয়ে বেডের জন্য এই হাসপাতাল ওই হাসপাতাল ঘুরতে হয় না পরিবারকে। এই ব্যবস্থা চালু হলে চিকিৎসায় দেরির কারণে মৃত্যুহারও কমানো যাবে। প্রায় দু’বছর আগে এই আর্জি নিয়েই জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল। সোমবার সেই মামলাতেই প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ এ প্রসঙ্গে রাজ্যের অভিমত জানতে চাইল। মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে মামলার পরবর্তী শুনানি।
ক্যান্সারে আক্রান্ত ৫২ বছরের মালতী নস্করের চিকিৎসা চলছিল চিত্তরঞ্জন ক্যান্সার হাসপাতালে। ২০১৯ সালের ২২ জানুয়ারি শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ওই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, সেখানে আইসিইউ বেড খালি না থাকায় রোগীকে অন্যত্র নিয়ে যেতে বলা হয়। এরপর বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরলেও মেলেনি আইসিইউ বেড। শেষমেশ বাধ্য হয়েই তাঁকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ২৪ জানুয়ারি রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব সহ প্রতিটি সরকারি হাসপাতালের সুপারকে রোগীর অবস্থা জানিয়ে মেইল করা হলেও সাড়া মেলেনি বলে অভিযোগ। ২৫ জানুয়ারি মালতীদেবী মারা যান।
আইনজীবী ইন্দ্রজিৎ রায়চৌধুরী আদালতকে জানান, মৃতার ছেলে চান, হাসপাতালের বেডের জন্য এভাবে যাতে কাউকে পথে পথে ঘুরতে না হয়। রোগীকে নিয়ে ঘোরাঘুরি করতে গিয়েই অনেকের প্রাণ যায়। রোগীর সংখ্যা যদি হঠাৎ বেড়ে যায়, তাহলে সব সময় প্রয়োজনীয় বেড নাও পাওয়া যেতে পারে। তবে ট্রেনে যেমন সব আসন সংরক্ষিত হয়ে গেলে যাত্রীর নাম ওয়েটিং লিস্টে চলে যায়, তেমনই কোনও আধুনিক ব্যবস্থা এক্ষেত্রে ব্যবহার করা যায় কি না, তা পর্যালোচনা করা যেতে পারে। তিনি চান, সরকারি চিকিৎসা ব্যবস্থায় বেড সংরক্ষণে কোনও সফটওয়্যার ব্যবহার করা হোক। তাহলে রোগীকে নিকটবর্তী কোনও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার পর সেখানকার কর্তৃপক্ষই কম্পিউটারে দেখে নিতে পারবে, কোথায় বেড খালি আছে। যদি থাকে, তাহলে রোগীর আধার নম্বর নিয়ে ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রই বেড বুক করে দিতে পারবে। সেক্ষেত্রে রোগীর আত্মীয়রা নিশ্চিন্তে সরাসরি সেই হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারবে রোগীকে। তাহলে রোগীকে নিয়ে এদিক-ওদিক টানাহ্যাঁচড়া বন্ধ হবে। এমনকী হাসপাতালে বেড পাওয়া নিয়ে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগও বন্ধ করা সম্ভব হবে।

18th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ