Bartaman Patrika
ভ্রমণ
 

বর্ষায় হেসাডি 
সুভাষ বন্দ্যোপাধ্যায়

একটু ছুটি পেল কি না পেল বাঙালি ঘুরতে বেরিয়ে পড়ল। সেরকম বর্ষায় দু-চারদিনের ছুটি পেলে যাওয়া যেতেই পারে অরণ্য, পাহাড়ে ঘেরা হেসাডি। বর্ষায় প্রকৃতির রূপ আর সবুজ বনাঞ্চলের বৃষ্টিস্নাত শ্যামলিমা দু’চোখ ভরে দেখার স্মৃতি বহুদিন অমলিন থাকবে এখানে এলে।
হাওড়া থেকে রাতে পশ্চিম ভারতগামী ট্রেনে চড়ে ভোরবেলা পৌঁছন চক্রধরপুর স্টেশনে। সূর্যদেব পুব আকাশে উঁকি দিলে স্টেশনের বাইরে বেরিয়ে কচুরি-জিলিপি-চা দিয়ে ভরপেট প্রাতঃরাশ সেরে নিন। একটা গাড়ি ঠিক করে ২/৩ দিনের রেশন মানে সব্জি-মাছ-ডিম কিনে রওনা দিন। চক্রধরপুর থেকে হেসাডি ৩৯ কিমি। প্রায় দশ কিমি যাওয়ার পর শুরু হবে ঘাট রোড। রাস্তার দু’পাশে শাল, সেগুন, মহুয়া, আর কেন্দু গাছের সারি। মাঝে মাঝেই চোখে পড়বে আদিবাসী নারী-পুরুষদের। তারা দল বেঁধে মাথায় কাঠের বোঝা, অথবা ঘর-গেরস্থালির জিনিসপত্র নিয়ে হাসি-গল্পে মেতে ঘরের পথে।
আরও কিছু দূর যাওয়ার পর চোখে পড়বে ছবির মতো এক জনপদ। নাম নাকটি। আরও কিছুটা পর আসবে জিলাবি ঘাটি। যেখানে রাস্তা অনেকটাই জিলিপির মতো প্যাঁচানো। এরপর পড়বে টেবো। বেশ বড় জনপদ। কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবি কল্পনায় স্থান পাওয়া এ শহর। টেবো ছাড়ালেই এক এক করে পার হবেন লোটা, কুরুন, কুন্দরগুট্ট প্রভৃতি গ্রাম। শেষে আসবে জরাকেল। যেখানকার ঘন জঙ্গল থেকেই ব্রিটিশ পুলিসের হাতে ধরা পড়েছিলেন বীরসা মুণ্ডা। আদিবাসীরা যাকে বলতেন ‘ধরতি আনা বীরসা ভগওয়ান’। জরাকেল পার হয়ে কিছুক্ষণ গেলেই হেসাডি। থাকার ব্যবস্থা পিডব্লুডির বাংলোয়।
বাংলোয় দুপুরের খাওয়া সেরে একটু বিশ্রাম নিয়ে চলুন হিরণি জলপ্রপাত দেখতে। প্রায় একশো ফুট ওপর থেকে হিরণি নদীর মূলধারা তিরিশ ফুট চওড়া হয়ে নীচে নেমেছে। নামার পথে সে সঙ্গী করেছে আরও দু-তিনটি পাহাড়ি ঝোরাকে। পর্যটকদের জন্য তৈরি চাতালের বাঁদিকে একটা ছোট্ট সাঁকো। যেটা টপকে নদীর ওপারে যাওয়া যায়। তারপর সিঁড়ি ভেঙে ওপরে উঠলেই ভিউ পয়েন্ট। একটু বাঁদিকে এগলেই হিরণি-জলপ্রপাতের মূল উৎস। চারপাশে ঘন জঙ্গল। দূরে পাহাড়ের খাঁজে সমতলে ধান গাছ বাতাসে মাথা দোলায়। অজানা পাখির ডাক ভেসে আসে।
জলপ্রপাত থেকে ফিরে যাওয়া যাবে আদিবাসী হাটে। এসব অঞ্চলে হাট হল আদিবাসীদের জীবনের অক্সিজেন। এটাই তাদের মিলন মেলা। চার চোখের মিলনে এই হাটেই পুরুষ খুঁজে নেয় তার মনের মানুষ। হাটেই তারা ঘর বাঁধে আবার হাটেই তাদের ঘর ভাঙে। ছোট বেলায় পড়া হাট কবিতার বাস্তব রূপ এখানেই চোখে পড়ে। মুড়ি-সব্জি-বাসনপত্র-তেলেভাজা থেকে শুরু করে জামাকাপড়, হোমিওপ্যাথি ভ্রাম্যমান চিকিৎসা কেন্দ্র সব এক ছাতার তলায়। এ অঞ্চলে মূলত মুণ্ডা, হোঁ, ওঁরাও প্রভৃতি আদিবাসীদের বসবাস। হেসাডির আশপাশে হাট বসে বুধবার বন্দরগাঁও। বৃহস্পতিবার মুরহু, শুক্রবার খুঁটি, শনিবার চাকিতে।
দ্বিতীয় দিন সকাল সকাল বেরিয়ে পড়ুন। রাঁচির রাস্তায় ১৩ কিমি দূরে বন্দরগাঁও। বীরসা মুণ্ডার জীবনের শেষ ঠিকানা। বদগাঁও থেকে প্রায় ৬ কিমি দূরে পঞ্চপ্রপাত। একটা ছোট্ট ব্রিজ টপকে সিঁড়ি ভেঙে ওপরে উঠলেই নদী। নাম তার বনাই। যেটি ওপর থেকে নীচে নামার পথে পাঁচটি ধারায় ভাগ হয়েছে। সে জন্যই নাম হয়েছে পঞ্চপ্রপাত। ঝাড়খণ্ড সরকার এখানে একটি পিকনিক স্পট বানিয়েছে। বর্ষায় ভিড় কম থাকলেও শীতে লোকে-লোকারণ্যর চেহারা নেয়।
পঞ্চপ্রপাত দেখে চলুন দশ কিমি দূরের মুরহু বা মুড়ি। ওখানে ১৮৭৪ সালে তৈরি প্রাচীন চার্চে কিছুটা সময় কাটিয়ে যাওয়া যাবে পিঙ্গুরা জলপ্রপাত। জনশ্রুতি এই জলপ্রপাতের নীচে কেউ যায় না। কারণ গেলে সে আর ফিরে আসবে না। বর্ষায় জলপ্রপাতের চেহারাই বদলে যায়। সেটা দেখতেই পর্যটকরা ভিড় জমান পিঙ্গুরায়।
পিঙ্গুরা থেকে মুড়ি ফিরে দুপুরের খাবার খাওয়া। তারপর তামার মোড় পার হয়ে প্রায় দশ কিমি মেঠো পথে গাড়ি চলার পর পৌঁছনো যাবে কাজলা নদীর ধারে। এরপর কিছুটা পায়ে হাঁটা। বালিয়াড়ি পার হয়ে জঙ্গল। সেটাও টপকে পাথরের ওপর সাবধানে পা ফেলে নদী। যেখানে নীচে নেমেছে সেখানে পৌঁছলে চোখে পড়বে চারদিকে রং-বেরঙের পাথর ছড়ানো-ছিটানো। ওপর থেকে নামা জলের তোড়ে সৃষ্টি হয়েছে প্রাকৃতিক গুহা। এই জলপ্রপাতের নাম রানি। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর রানি জলপ্রপাতের রূপ মিলে-মিশে একাকার এখানে। যে রূপ-মাধুরী পথের ক্লান্তি ভোলায়। মনকে মুগ্ধ করে।
কাজলা নদীর ধারে রানি জলপ্রপাতের কাছে কিছুটা সময় বয়ে যেতে দেওয়া যেতেই পারে। এরপর পথের ধারে কোথাও গরম গরম পকোড়া ও চা খেয়ে সোজা ফেরা হেসাডি। রাতে যদি বৃষ্টি নামে তাহলে হ্যারিকেনের আলোয় বৃষ্টির ঝরনার শব্দ ডাক বাংলোয় তৈরি করবে এক রোম্যান্টিক পরিবেশ। যে পরিবেশে দিশি মুরগির ঝোল আর গরম ভাত সঙ্গে ঝিঁঝিঁর ডাক। রাতের ঘুম জমে যাবে। পরদিন সকালে আবার ফেরার পালা।
প্রয়োজনীয় তথ্য
কীভাবে যাবেন
হাওড়া থেকে পশ্চিম ভারতগামী যে কোনও ট্রেনে চক্রধরপুর। স্টেশন থেকে একটু দূরের বাসস্ট্যান্ড থেকে রাঁচিগামী বাসে পৌঁছনো যায় হেসাডি। তবে দু-রাত্রি তিন দিনের জন্য গাড়ি বুক করে যাওয়াই ভালো। তাতে ঘোরাঘুরির সুবিধা হয়।
থাকার ব্যবস্থা
পিডব্লুডি বাংলো। বুকিং যোগাযোগ—
এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার
পিডব্লুডি (রোডস), চাইবাসা সদর। চাইবাসা, জেলা-সিংভূম।
ঝাড়খণ্ড। 
04th  August, 2019
জয়সলমিরের মরু উৎসব 

বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী: রঙের রাজ্য রাজস্থান, উৎসবের রাজ্য রাজস্থান, সারা বছর ধরেই এই রাজ্যের এক এক শহরে পালিত হয় নানা ধরনের অনুষ্ঠান। তারই এক অঙ্গ হিসেবে দীর্ঘকাল ধরে মরু রাজ্যের জয়সলমির শহরে পালিত হয় এক অসাধারণ সুন্দর, উপভোগ্য আর বর্ণাঢ্য উৎসব ‘মরু উৎসব’ বা ‘ডেজার্ট ফেস্টিভ্যাল’।   বিশদ

01st  December, 2019
বন্য সুন্দর মাধব ন্যাশনাল পার্ক শিবপুরী

সুভাষ বন্দ্যোপাধ্যায়: চারদিকে মধ্যপ্রদেশের ঘেরাটোপের মধ্যে রয়েছে উত্তরপ্রদেশের ঝাঁসি। ওখান থেকে সকালবেলা একটা গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন ঐতিহাসিক শহর শিবপুরীর উদ্দেশে। ২৫ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে গাড়ি ছুটবে বেশ জোরে।  বিশদ

01st  December, 2019
প্যাংগং লেক 

নবগঠিত কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল লাদাখের অন্যতম নিদর্শন নীল জলের প্যাংগং লেক। এটি এশিয়ার বৃহত্তম ইষৎ লোনা হ্রদ। উচ্চতা প্রায় ১৪ হাজার ফুট। দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩৪ কিমি এবং প্রায় ২-৩ কিলোমিটার চওড়া। লাদাখ ভ্রমণের অন্যান্য দ্রষ্টব্য স্থানগুলোর মধ্যে এটি খুবই জনপ্রিয় ও বিস্ময়কর।  
বিশদ

17th  November, 2019
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে অপরূপ মালয়েশিয়া 
উত্তরা গঙ্গোপাধ্যায়

থাইল্যান্ড বা সিঙ্গাপুরের থেকে কোনও অংশে কম নয় মালয়েশিয়া। কিন্তু তবুও যেন এখনও পর্যটক মহলে তেমনভাবে জায়গা করে নিতে পারেনি। তাই সিঙ্গাপুর বা থাইল্যান্ডের সঙ্গে জুড়ে নিতে পারেন এ দেশের রাজধানী শহর কুয়ালালামপুর। বছরের যে কোনও সময় যাওয়া যায়। 
বিশদ

17th  November, 2019
অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ভারতীয় পর্যটকদের বিশেষ প্যাকেজ

ভারতীয় পর্যটকদের কাছে গত কয়েক বছর ধরেই বিদেশ সফরের গন্তব্য তালিকায় অস্ট্রেলিয়া উপরের দিকে এসেছে। আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় টি টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ। তাই ভারতীয় পর্যটকদের জন্য অস্ট্রেলিয়া সরকার বিশেষ সুযোগ সুবিধা নিয়ে এসেছে। ট্যুরিজম অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে নিশান্ত কাশিকরের সঙ্গে কথা বললেন শুভজিৎ ঘোষ।
বিশদ

03rd  November, 2019
পশ্চিমবঙ্গের নতুন পর্যটন কেন্দ্র আসাননগরের লালন মেলা 

বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী: পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিকতম পর্যটনকেন্দ্র নদীয়া জেলার আসাননগরে সাড়ম্বরে পালিত হতে চলেছে লালন মেলা। এই মেলা এই বছর ৩০ বছরে পদার্পণ করল। বাউলশ্রেষ্ঠ লালন শা ফকিরের ১২৯তম তিরোধান দিবস (মৃত্যু ১৮৯০) উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হতে চলা এই মেলাটি বিশ্ব শান্তি, মানব মৈত্রী ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উদ্দেশে নিবেদিত হতে চলেছে। 
বিশদ

03rd  November, 2019
বারাণসীর দেব দীপাবলি উৎসব 

অয়ন গঙ্গোপাধ্যায়: গঙ্গাতীরের বারাণসী। হাজার বছরের পুরনো এই জনপদ ভারতীয় সনাতন ঐতিহ্য আর সংস্কৃতির আধারভূমি। বারাণসীর গঙ্গাছোঁয়া শতাধিক ঘাটে, পুরনো মহল্লায়, আলোছায়া মাখা গলিপথে আজও ইতিহাসের ছোঁয়া মেলে। 
বিশদ

03rd  November, 2019
মহীশূর হাম্পিতে দোতলা বাস 

কর্ণাটক পর্যটন দপ্তর মহীশূর ও হাম্পিতে সাইট সিয়িং করানোর পরিকল্পনা নিয়েছে দোতলা বাসে।  বিশদ

20th  October, 2019
দেবীর ৫১ পীঠ এবার ত্রিপুরায় 

ত্রিপুরা সরকার গোমতী জেলার উদয়পুরে ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরের কাছে গড়ে তুলছে ৫১ শক্তি পীঠ। ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও তিব্বতে ছড়িয়ে থাকা শক্তি স্থলগুলিকে অনুকরণ করে একত্রে নিয়ে আসছে পর্যটন দপ্তর।  বিশদ

20th  October, 2019
ঐতিহ্যশালী পাহাড়ি দুর্গ 

 রাজস্থানের উদয়পুরের নিকট রাজসমন্দ জেলায়, আরাবল্লীর কোলে অবস্থিত কুম্ভলগড় ফোর্ট। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে যার উচ্চতা ৩ হাজার ৬০০ ফুট। উদয়পুর থেকে গাড়িতে প্রায় ৮৬ কিমি পথ।  বিশদ

20th  October, 2019
স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখে হ লি উ ড 

মৃণালকান্তি দাস: মুখ চাই মুখ?
আমাদের দেখেই সাগ্রহে জানতে চাইলেন অ্যান্তলোনি। বছর বাইশের শিল্পীর হাতে পেন্সিল। সামনে ক্যানভাস। পাশে ফাঁকা টুল। ওই টুলে বসিয়ে মাত্র ৫ ডলারের বিনিময়ে অ্যান্তলোনি আগ্রহীদের মুখের ছবি আঁকেন।  বিশদ

20th  October, 2019
টিকটক 

বিশ্বের অন্যতম আশ্চর্যজনক স্টেশন
দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজি রেলওয়ে টার্মিনাস। বিশ্ব ঐতিহ্যের তকমা প্রাপ্ত এই ভিক্টোরিয়ান আমলের রেল স্টেশনটি সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম আশ্চর্যজনক স্টেশনের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান ছিনিয়ে নিয়েছে। 
বিশদ

15th  September, 2019
পাহাড়ের কোলে ছোট্ট গ্রাম 

লাভা ও লোলেগাঁওয়ের কথা আমরা অনেকেই শুনেছি। তারই পাশে ছোট্ট গ্রাম রিশপ। লাভা থেকে জঙ্গলের পথে ট্রেকিং করেও যাওয়া যায় ৫ কিমি পথ। পথের দৃশ্য খুবই সুন্দর। রিশপের উচ্চতা প্রায় ২ হাজার ৫৯১ মিটার। 
বিশদ

15th  September, 2019
মহীশূরের দশেরা উৎসব
অয়ন গঙ্গোপাধ্যায়

প্রাসাদের শহর মহীশূর কর্ণাটকের এক ইতিহাস প্রসিদ্ধ পর্যটনকেন্দ্র। ওয়াদিয়ার রাজাদের হাতে গড়ে ওঠা এই শৈল্পিক শহরে ছড়িয়ে আছে একাধিক দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্য। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য মহীশূর প্রাসাদ। শহরের বিউটিস্পট এই প্রাসাদ যেন এক স্বপ্নপুরী।  
বিশদ

15th  September, 2019
একনজরে
অর্পণ সেনগুপ্ত, কলকাতা: স্কুলের কাছে ‘প্রায়র পারমিশন’ (পিপি) এসে পৌঁছনোর আগেই শিক্ষক পদপ্রার্থীদের হাতে তা চলে আসছে। আর তার প্রতিলিপি নিয়েই স্কুলে যোগ দিতে চলে আসছেন শিক্ষকরা। রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে এই ঘটনা ঘটছে। বদলির আবেদন করা শিক্ষকদের হাতে এই পিপি ...

তিরুবনন্তপুরম, ৯ ডিসেম্বর: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বিরাট কোহলি নিজের ব্যাটিং পজিশন ছেড়ে দিয়েছিলেন শিবম দুবেকে। তিন নম্বরে ব্যাট করার সুযোগটা দারুণভাবে কাজে ...

জম্মু, ৯ ডিসেম্বর (পিটিআই): কয়েকদিন বন্ধ থাকার পর ফের সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গুলি চালাল পাক সেনা। সোমবার ভোর পৌনে চারটে নাগাদ জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ সেক্টরে ভারতীয় সেনার চৌকি লক্ষ্য করে তারা গুলি চালায়। ...

সংবাদদাতা, পুরাতন মালদহ: ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে চাঁচলে। এই সপ্তাহেই চাঁচলের খরবা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। কলকাতার একটি নার্সিংহোমে চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্যু হয় তাঁর।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে শুভ। সরকারি ক্ষেত্রে কর্মলাভের সম্ভাবনা। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। প্রেম-ভালোবাসায় মানসিক অস্থিরতা থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব মানবাধিকার দিবস,
১৮৭০- ঐতিহাসিক যদুনাথ সরকারের জন্ম,
১৮৮৮- শহিদ প্রফুল্ল চাকীর জন্ম,
২০০১- অভিনেতা অশোককুমারের মৃত্যু  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৪ টাকা ৭২.১৪ টাকা
পাউন্ড ৯২.০৭ টাকা ৯৫.৩৭ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৪ টাকা ৮০.২৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৩২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ত্রয়োদশী ১১/২৬ দিবা ১০/৪৪। কৃত্তিকা ৫৯/২৯ শেষ রাত্রি ৫/৫৭। সূ উ ৬/৯/৩১, অ ৪/৪৮/৪৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫২ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৫ গতে ১১/৮ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৯ গতে ৮/২২ মধ্যে পুনঃ ৯/১৬ গতে ১১/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১/৪৩ গতে ৩/৩০ মধ্যে পুনঃ ৫/১৭ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৭/২৮ গতে ৮/৪৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৮ গতে ২/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৮ গতে ৮/৮ মধ্যে। 
২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ত্রয়োদশী ১০/২/৪৮ দিবা ১০/১২/৫। কৃত্তিকা ৬০/০/০ অহোরাত্র, সূ উ ৬/১০/৫৮, অ ৪/৪৯/১৩, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩ মধ্যে ও ৭/৪৫ গতে ১১/৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৫ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ৯/২৩ গতে ১২/৪ মধ্যে ও ১/৫২ গতে ৩/৩৯ মধ্যে ও ৫/২৭ গতে ৬/১২ মধ্যে, কালবেলা ১২/৪৯/৫৩ গতে ২/৯/৩৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৯/২৬ গতে ৮/৯/৩৯ মধ্যে।
 
মোসলেম: ১২ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আজ থেকে ৬ দিন বন্ধ মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি পরিষেবা 
আজ, মঙ্গলবার থেকে আগামী রবিবার পর্যন্ত দেশজুড়ে বন্ধ থাকবে মোবাইল ...বিশদ

03:22:06 PM

বয়স ভাঁড়িয়ে বিপাকে ইস্ট বেঙ্গল  
বেশি বয়সের ফুটবলার খেলানোর অভিযোগে অনূর্ধ্ব ১৫ আই লিগ থেকে ...বিশদ

03:05:11 PM

মন্তেশ্বরে স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী স্বামী 

03:04:00 PM

আচার্য তথা রাজ্যপালের ক্ষমতা খর্ব, বিধানসভায় বিধি পেশ 
বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে আচার্য তথা রাজ্যপালের ক্ষমতা খর্ব করার জন্য আজ ...বিশদ

01:59:00 PM

বিধানসভায় উঠল তৃণমূল বিধায়কদের বিক্ষোভ 

01:05:00 PM

মঙ্গলকোটে তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি 
মঙ্গলকোটে তৃণমূল নেতা ডালিম শেখকে খুনের অভিযোগে কুখ্যাত শ্যুটার আনার ...বিশদ

01:04:00 PM