Bartaman Patrika
রাজ্য
 

 লকডাউনে মানুষের কাছে খাদ্য, প্রয়োজনীয় পণ্য
পৌঁছে দিতে উদ্যোগী ডাক বিভাগ, ক্ষুব্ধ কর্মীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা আতঙ্কে লকডাউন ঘোষিত হয়েছে। তাই একপ্রকার থমকে রয়েছে গোটা দেশ। এই অবস্থায় সাধারণ মানুষের কাছে খাদ্যদ্রব্য ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিতে উদ্যোগী হল ডাক বিভাগ। প্রত্যেকটি রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে এই ব্যাপারে চিঠি পাঠিয়েছেন ডাক বিভাগের সচিব প্রদীপ্তকুমার বিষয়ী। তিনি চিঠিতে লিখেছেন, ১ লক্ষ ৫৬ হাজার ডাকঘর এবং তার সঙ্গে জড়িত বিপুল সংখ্যক কর্মী এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিতে পারে। রাজ্য সরকার তাদের কাজে গতি আনতে এই পরিকাঠামোকে ব্যবহার করতে পারে। পাশাপাশি ডাক বিভাগের সচিব এই বিষয়ে উদ্যোগী হওয়ার জন্য চিঠি লিখেছেন প্রত্যেকটি রাজ্যের সার্কেল হেডকেও। পশ্চিমবঙ্গ সার্কেলের পোস্টমাস্টার জেনারেল গৌতম ভট্টাচার্যকে জানানো হয়েছে, ডাকবিভাগের তরফে যেমন ডাকঘর খোলা রাখতে হবে, তেমনই সাধারণ মানুষকে পরিষেবাও দিয়ে যেতে হবে। পোস্টমাস্টার জেনারেলের অফিস থেকে এই সংক্রান্ত নির্দেশ পৌঁছে গিয়েছে ডাকঘরগুলিতে।
তবে কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট কর্মীরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যেখানে করোনা ভাইরাস প্রসঙ্গে সবাইকে যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন, সে ক্ষেত্রে কিছুটা অপ্রয়োজনেই ডাকঘরগুলি চালু রাখার যৌক্তিকতা কী, প্রশ্ন তুলছেন কর্মীরা। তাঁরা বলছেন, কখনোই নিজেদের দায়িত্ব থেকে তাঁরা সরে যেতে চান না। কিন্তু এখনকার যা পরিস্থিতি, তাতে এই নির্দেশ কতটা বাস্তবসম্মত, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। এদিকে চিফ পোস্টমাস্টার জেনারেলের অফিস থেকে প্রত্যেকটি রিজিয়ন কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, অনুমতি ছাড়া কোথাও পোস্ট অফিস বন্ধ করার বা পরিষেবা কমিয়ে আনার বা বন্ধ করার কোনো নির্দেশ দেওয়া যাবে না।
কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ডাক কর্মীরা। এই ব্যাপারে যোগাযোগ মন্ত্রক এবং ডাক বিভাগের সচিবকে প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছেন তাঁরা। ন্যাশনাল ফেডারেশন অব পোস্টাল এম্প্লয়িজ, ফেডারেশন অফ ন্যাশনাল পোস্টাল অর্গানাইজেশনস, ভারতীয় পোস্টাল এম্প্লয়িজ ফেডারেশন এবং অল ইন্ডিয়া গ্রামীণ ডাক সেবক ইউনিয়ন একযোগে এই প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছে। তাদের বক্তব্য, রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে চিঠি পাঠিয়ে ডাক বিভাগ ব্যবসা বাড়ানোর যে সুযোগ খুঁজছে, তা আসলে কর্মীদের প্রাণের বিনিময়ে পেতে চাইছে তারা। যেখানে এখনও করোনা ভাইরাসের কোন প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি, সেখানে সাধারণ মানুষের বাড়ি গিয়ে পণ্য বা টাকা পৌঁছে দেবার কাজে শামিল হতে বলা হচ্ছে ডাককর্মীদের। যেখানে কর্মীরা ট্রেন-বাসের অভাবে কাজের জায়গায় পৌঁছতে পারছেন না, সেখানে কীভাবে ডাক পরিষেবা সম্পূর্ণ চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তা বুঝতে পারছেন না তাঁরা। তাঁদের বক্তব্য, আইপিপিবি পরিষেবায় বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে টাকা লেনদেন করতে হয়। গ্রামীণ ডাক সেবক এই ঝুঁকিপূর্ণ কাজ কেন করবেন, তার কোন ব্যাখ্যা মেলেনি।
ডাক বিভাগের যা পরিকাঠামো, তাতে নিয়ম মেনে দূরত্ব বজায় রেখে কর্মীদের বসার স্থান সংকুলান হয় না। পাশাপাশি কোথাও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হ্যান্ডওয়াশের মত ন্যূনতম পরিকাঠামো নেই, যা দিয়ে করোনা আটকানোর চেষ্টা চালানো যায়। কর্মীদের বক্তব্য, তাঁরা কোনও কাজ করতে পিছপা নন। কিন্তু বাস্তব দিকটি খতিয়ে না দেখে যেভাবে কেন্দ্রীয় সরকার তাঁদের উপর দায়িত্ব চাপিয়ে দিতে চাইছে, তা অমানবিক।

27th  March, 2020
করোনা মোকাবিলায় তিনটি
টাস্ক ফোর্স গড়লেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: চলতি করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় আরও তিনটি টাস্ক ফোর্স গঠন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নবান্নে তিনি বলেন, আগামী দিনের কথা মাথায় রেখে লকডাউনের আওতায় কোন কোন পরিষেবাকে যুক্ত অথবা নিয়ন্ত্রণ করা হবে এবং ছাড় দেওয়া হবে— সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহার নেতৃত্বে একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করা হয়েছে। অর্থবিষয়ক ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে অর্থসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদির নেতৃত্বে ‘টাস্ক ফোর্স অন ফিনান্স’ তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া জরুরি পরিষেবা এবং অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহ অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং কালোবাজারি রুখতে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃতীয় একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করা হয়েছে। এই তিনটি টাস্ক ফোর্স পরিস্থিতি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেবে।
বিশদ

পরিবেশকে জীবাণুমুক্ত করছে
দমকল বাহিনী, জানালেন মন্ত্রী

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: শুধু অগ্নিনির্বাপণ নয়, করোনা প্রতিরোধে পরিবেশকে জীবাণুমুক্ত করার কাজ করছে দমকল বাহিনী। ইতিমধ্যে কলকাতার হাসপাতাল, অফিস সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সেই কাজ হয়েছে। আগামী দিনেও রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ওই ধরনের কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

মেল ও হোয়াটসঅ্যাপে পাঠ
বহু কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের ফলে স্কুল থেকে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান—সকলেরই চিন্তা ছিল, সিলেবাস শেষ হবে কী করে! তাই অনলাইন ক্লাস নেওয়ার প্রস্তুতি নেয় অনেক কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়। শুরু হয় সেই পদ্ধতিতে পাঠদানও। বিশদ

লকডাউন মেনে চলুন
সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয়
পূর্ব রেলের ‘জানা দাদু’র ভিডিও 

 প্রসেনজিৎ কোলে, কলকাতা: যাত্রীবাহী ট্রেন লক্ষ্য করে পাথর ছোড়া বন্ধ করাই হোক আর লেভেল ক্রসিং বন্ধ থাকলে মানুষজনকে অপেক্ষা করতে বলাই হোক, সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরিতে জানা দাদুর জুড়ি মেলা ভার।
বিশদ

স্যানিটাইজার, মাস্ক তৈরির সঙ্গে অবসাদ
কাটাতে হবে ছাত্রছাত্রীদের কাউন্সেলিংও
কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে জারি হল নোটিস

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা মোকাবিলায় একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে এল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। স্যানিটাইজার ও মাস্ক তৈরি থেকে লকডাউনে পড়ুয়ারা যাতে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত না হয়ে পড়েন, তার জন্য কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থাও করছে তারা।
বিশদ

 কোটালে ভাঙল মাতলা
এবং বিদ্যাধরী নদীর বাঁধ

  নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও বিএনএ, বারাসত: পূর্ণিমার ভরা কোটালে মাতলা নদীর জলোচ্ছ্বাসে বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হল বাসন্তীর কুলতলির একাধিক বাড়ি ও চাষের জমি। ফলে অনেকেই গৃহহীন হয়ে যান। অন্যদিকে, মিনাখাঁর নেরুলি এলাকার বিদ্যাধরী নদীর বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় নিচু এলাকা জলমগ্ন হয়ে যায়।
বিশদ

নববর্ষের হালখাতা, গৃহস্থের পুজো নিয়ে
অনিশ্চয়তায় ঘুম উড়েছে পুরোহিতদের  

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কথায় আছে, ‘বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ’। বৈশাখ মাসের প্রথম দিন থেকে এই পুজো-পার্বণের শুরু। ব্যবসায়ীদের হালখাতা, গৃহস্থের নববর্ষের পুজো, এমনকী ময়দান চত্বরের বারপুজো, সবক্ষেত্রেই নতুন বছরের শুভকামনা করা হয় পুজো করে।   বিশদ

ই-ফাইলিং চালু হলেও হাইকোর্টে
ইন্টারনেটে শুনানি সেই নামমাত্রই
‘দুঃস্থ’ আইনজীবীদের সঙ্কটে পড়ার প্রবল আশঙ্কা

 পল্লব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিকা মেনে কলকাতা হাইকোর্টে ইন্টারনেট ব্যবহার করে মামলা দায়ের করার প্রচেষ্টা বছর আটেক আগে অঙ্কুরেই ধামাচাপা পড়েছিল সংখ্যাগুরু আইনজীবীদের বিরোধিতায়।
বিশদ

 ছত্রধরের সঙ্গে জড়িত দু’টি মামলার তদন্তে এনআইএ
নেপথ্যে রাজনীতি, বলছে ওয়াকিবহাল মহল

 সুজিত ভৌমিক, কলকাতা: ছত্রধর মাহাতর যোগ রয়েছে, জঙ্গলমহলের এমন দু’টি হাই প্রোফাইল মামলার তদন্ত করবে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা বা এনআইএ। কেন্দ্রীয় সরকার গত ৩০ মার্চ কার্যত নজিরবিহীন এই নির্দেশ দিয়েছে। তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় হল, কেন্দ্র ২০০৮ সালের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা আইনের ছ’নম্বর ধারার পাঁচ উপধারা এবং আট নম্বর ধারায় এই নির্দেশ দিয়েছে।
বিশদ

 হিন্দি, উর্দু, নেপালি এবং সাঁওতালিতেও ‘বাড়ির কাজ’
সিদ্ধান্ত নিল শিক্ষা দপ্তর

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনে বাড়িতে বসেই ছাত্রছাত্রীরা নানা কাজ করতে পারবে। বাংলার শিক্ষা পোর্টালে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয়ের উপর দেওয়া হচ্ছে সেই কাজ, তবে তা পুরোটাই বাংলায়। ফলে হিন্দি, উর্দু, নেপালি কিংবা অলচিকির পড়ুয়াদের অবশ্য এতে লাভ হচ্ছে না। বিশদ

 হাওড়ার কয়েকটি স্কুল অনলাইনে ক্লাস
নেওয়া শুরু করল, সাড়া মিলছে ভালো

 বীরেশ্বর বেরা, হাওড়া, ১৪ এপ্রিল পরও লকডাউনের সময়সীমা বাড়বে কি না, তা এখন লাখ টাকার প্রশ্ন। তবে কতদিন এই অচলাবস্থা চলবে, তা নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে হাওড়ার একাধিক স্কুল হোয়াটস অ্যাপ, ইউটিউবের মাধ্যমে পঠনপাঠন প্রক্রিয়া শুরু করে দিল।
বিশদ

করোনা বিরোধী সরকারি অভিযান নিয়ে অভিযোগ, রিপোর্ট চাইল হাইকোর্ট

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আইসিএমআর-এর গাইডলাইন মেনে পশ্চিমবঙ্গে র‌্যাপিড টেস্ট হচ্ছে না। ফলে করোনা আক্রান্ত চিহ্নিতকরণে ফাঁক থেকে যাচ্ছে। বুধবার এমনই অভিযোগ করা হল কলকাতা হাইকোর্টে। বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত ও বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারকে এই প্রসঙ্গে ১৬ এপ্রিলের মধ্যে রিপোর্ট দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছে। বিশদ

পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যওয়াড়ি
ত্রাণ শিবিরে নামই নেই বাংলার
মমতার দৃষ্টি আকর্ষণ সূর্যর

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশের নানা প্রান্তে আটকে পড়া কয়েক লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের থাকা-খাওয়ার জন্য সরকারের তরফে এখনও পর্যন্ত মোট ২২ হাজার ৫৬৭টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। কিন্তু সেই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের একটি শিবিরেরও উল্লেখ নেই। বিশদ

বিদেশে পাঠরত পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত
রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির
পরীক্ষা নিয়ে আশঙ্কার মেঘ

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা ও লকডাউনের জেরে স্কুলশিক্ষার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে উচ্চশিক্ষা। সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে এমনটাই মনে করছে শিক্ষামহল। সবচেয়ে বেশি আশঙ্কা অনুদান এবং ফেলোশিপে কাটছাঁটের। বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
 রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ৮ এপ্রিল: প্রতিদ্বন্দ্বী রেবেক্কা লং-বেইলি এবং বাঙালি বংশোদ্ভূত লিসা নন্দীকে হারিয়ে লেবার পার্টির নেতা নির্বাচিত হয়েছেন স্যার কিয়ের স্টারমার। দলের অভ্যন্তরীণ নির্বাচনে ৫৬.২ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। ...

  বিএনএ, বারাকপুর: লকডাউনে বাড়ির বাইরে গিয়ে মোবাইল গেম খেলার সময় কংক্রিটের শেড ভেঙে এক তরুণের মৃত্যু হল। মঙ্গলবার রাতে চাকদহ থানার মদনপুরের মারফোডাঙায় ঘটনাটি ঘটে। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের নাম শীতল পাসোয়ান (১৮)। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের জেরে অন্যান্য শিল্পের পাশাপাশি নাভিশ্বাস উঠেছে আবাসন শিল্পেও। প্রবল আর্থিক চাপের মধ্যে পড়েছে তারা। এই অবস্থায় সুরাহা পেতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আর্থিক ত্রাণের আর্জি জানাল আবাসন নির্মাতাদের সংগঠন ক্রেডাই।   ...

সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: সোনামুখীর পাঁচালের ঐতিহ্যবাহী গাজন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কমিটি সূত্রে জানা গিয়েছে, লকডাউনের কারণে যে কোনওরকম জমায়েত বন্ধের নির্দেশ রয়েছে। তা মেনে এবারের গাজন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের পঠন পাঠনে আগ্রহ বাড়বে। কর্মপ্রার্থীদের কর্মপ্রাপ্তিদের যোগ। বিশেষত সরকারি বা আধা সরকারি ক্ষেত্রে যোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৫৬: বাংলার নবাব হলেন সিরাজউদ্দৌলা
১৮৯৩: লেখক রাহুল সাংকৃত্যায়নের জন্ম
১৮৯৮: গায়ক পল রবসনের জন্ম
১৯৪৮: অভিনেত্রী ও রাজনীতিক জয়া বচ্চনের জন্ম
২০০৯: পরিচালক শক্তি সামন্তের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৫.২৯ টাকা ৭৭.০১ টাকা
পাউন্ড ৯২.০৮ টাকা ৯৫.৩৪ টাকা
ইউরো ৮১.১২ টাকা ৮৪.১৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৫ চৈত্র ১৪২৬, ৯ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, (চৈত্র কৃষ্ণপক্ষ) দ্বিতীয়া ৪৮/৪ রাত্রি ১২/৩৯। স্বাতী ৪৭/৩ রাত্রি ১২/১৫। সূ উ ৫/২৫/৩৫, অ ৫/৫০/৫৯, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৬ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ২/৪৬ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৩৮ গতে ১/৫ মধ্যে।
২৬ চৈত্র ১৪২৬, ৯ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, প্রতিপদ ১/৫৮/২৮ প্রাতঃ ৬/১৪/১৮ পরে দ্বিতীয়া ৫৬/২১/৪০ রাত্রি ৩/৫৯/৩৫। স্বাতী ৫৫/৯/৩৯ রাত্রি ৩/৩০/৪৭। সূ উ ৫/২৬/৫৫, অ ৫/৫১/৪৩। অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৬ গতে ৩/৫ মধ্যে। বারবেলা ৪/১৮/৩৭ গতে ৫/৫১/৪৩ মধ্যে, কালবেলা ১১/৩৯/১৯ গতে ১/৬/১৩ মধ্যে।
১৫ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
করোনা: কলকাতা হাইকোর্ট ও সার্কিট বেঞ্চের কাজ ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত 
করোনার জেরে কলকাতা হাইকোর্টের স্বাভাবিক কাজর্ম এবং তার সার্কিট ...বিশদ

02:04:00 PM

১২৩৬ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

01:27:03 PM

জম্মু ও কাশ্মীরে অস্ত্রশস্ত্র সহ গ্রেপ্তার এক জঙ্গি 
জম্মু ও কাশ্মীরের বারামুলায় এক জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করল সেনা জওয়ানরা। ...বিশদ

01:26:03 PM

করোনা: মেক্সিকোয় আক্রান্ত আরও ৩৯৬
মেক্সিকোয় আরও ৩৯৬ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস। মৃত্যু হয়েছে ...বিশদ

01:22:03 PM

করোনা: থাইল্যান্ডে আক্রান্ত আরও ৫৪ জন 

01:20:16 PM

করোনা: ইউক্রেনে আক্রান্ত আরও ২২৪ জন 

01:18:42 PM