Bartaman Patrika
রাজ্য
 
 

 কোভিড-যোদ্ধাদের সম্মানে অঙ্কন উৎসব পালন। সোমবার রিষড়া থানায় তোলা নিজস্ব চিত্র

স্বাস্থ্যসাথীর রোগী ফেরালে বেসরকারি
হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল: মমতা
তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে চরম হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

দেবাঞ্জন দাস, দুর্গাপুর: স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের কার্ড থাকা সত্ত্বেও তালিকাভুক্ত যে সমস্ত বেসরকারি নার্সিংহোম এবং হাসপাতাল রোগী ফেরাবে, তাদের লাইসেন্স বাতিল করার মতো সিদ্ধান্ত নিতে রাজ্য সরকার পিছপা হবে না। বৃহস্পতিবার দুর্গাপুরে পশ্চিম বর্ধমান জেলার প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকের মঞ্চ থেকে এভাবেই স্পষ্ট বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষের স্বাস্থ্য পরিষেবা সুনিশ্চিত করতেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প চালু করা হয়েছে। রাজ্যের সাড়ে সাত কোটি মানুষকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেওয়া হয়েছে। মঞ্চ থেকে মমতার হুঁশিয়ারি, সেই কার্ডধারী কাউকে যদি কোনও তালিকাভুক্ত বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোম প্রত্যাখ্যান করে, তার লাইসেন্স বাতিল করা হবে। করা হবে না রিনিউ। শুধু তাই নয়, প্রত্যাখ্যাত ব্যক্তিকে মমতার নিদান, ভর্তি করতে না চাইলে, সোজা থানায় চলে যান। সেখানে অভিযোগ জানান। অভিযোগ জানান বিডিও অফিসে। সেখান থেকে তা পৌঁছে যাবে স্বাস্থ্যদপ্তরে। যে সমস্ত বেসরকারি হাসপাতাল এবং নার্সিংহোম রোগী প্রত্যাখ্যান করবে, তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দপ্তরের প্রধান সচিব বিবেক কুমারকে নির্দেশও দেন মুখ্যমন্ত্রী।
স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের কার্ড থাকা সত্ত্বেও ফেরানো হচ্ছে রোগী, প্রশাসনিক বৈঠকে এই বিষয়টি উত্থাপিত হওয়া মাত্রই দৃশ্যত ক্ষুব্ধ মমতা বলেন, গরিব মানুষকে স্বাস্থ্য পরিষেবা থেকে কোনওভাবেই বঞ্চিত করা যাবে না। তাছাড়া ওরা (বেসরকারি হাসপাতাল) কোনও দয়াদাক্ষিণ্য করছে না। বিনা পয়সায় চিকিৎসা দিচ্ছে, এমনটাও নয়। চড়া স্বরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করতে বেসরকারি হাসপাতালগুলির সঙ্গে চুক্তি করে ১২০০ কোটি টাকা স্বাস্থ্যবিমা বাবদ খরচ করেছে রাজ্য সরকার। এত টাকা খরচ করার পর যদি কেউ রোগী ফেরায়, তাহলে কড়া ব্যবস্থা তো নিতেই হবে। ক্ষোভ উগরে মমতা বলেন, কোটা নির্দিষ্ট করে গরিব মানুষকে চিকিৎসা দেওয়ার কথা ছিল বেসরকারি হাসপাতালের। সেটা ওরা করে না। তাঁর স্পষ্ট বার্তা, এবার রোগী ফেরানোর মতো ঔদ্ধত্য যেন কেউ না দেখায়। প্রসঙ্গত, গত ২০১৭ সালের পয়লা ফেব্রুয়ারি মুখ্যমন্ত্রী সাধারণ মানুষের জন্য চালু করেছিলেন স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। রাজ্যের সমস্ত সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে ১৫০০ বেসরকারি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। কিন্তু নানা অজুহাত দেখিয়ে বেসরকারি হাসপাতালগুলি রোগী ফেরাচ্ছে বলে বিস্তর অভিযোগ আসছে। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, চালু হওয়ার দিন থেকে আজ পর্যন্ত স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের ওয়েবসাইটে, কল সেন্টার এবং পোর্টাল মারফত বেসরকারি হাসপাতাল থেকে প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন, এমন চার হাজার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। স্বাস্থ্যদপ্তরের হস্তক্ষেপে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে রোগী ভর্তি করতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়েছে। কয়েকদিন আগে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের একটি নার্সিংহোম স্বাস্থ্যসাথীর কার্ডধারী এক ব্যক্তিকে ভর্তি না করে ফিরিয়ে দেয়। নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের যুক্তি ছিল, বকেয়া সরকারি বিল তারা পায়নি। নবান্নের ওই সূত্রটি জানিয়েছে, এরপর স্বাস্থ্যদপ্তর ওই নার্সিংহোমের বকেয়া বিলের বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখে, ইতিমধ্যেই তা মেটানো হয়েছে। বিষয়টি জানানো হয় নার্সিংহোমকে। তারাও খোঁজ নিয়ে সঠিক বিষয়টি জানতে পেরে স্বাস্থ্যদপ্তরের কাছে ক্ষমা চেয়ে সংশ্লিষ্ট কার্ডধারী ব্যক্তিকে ভর্তি করে নেয়। স্বাস্থ্যদপ্তরের প্রধান সচিব বলেন, রোগী প্রত্যাখ্যান করার কারণে এখনও পর্যন্ত কোনও বেসরকারি হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল হয়নি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর এই কড়া অবস্থানের পর এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।
প্রশাসনিক বৈঠকে এদিন পুলিসের কাজকর্ম নিয়েও সরব হন মুখ্যমন্ত্রী। শান্তিরক্ষকদের তাঁর নির্দেশ, সবার সব অভিযোগ থানায় নিতে হবে। অভিযোগ সত্যি কি না, তা যাচাই করেই ব্যবস্থা নিন। কিন্তু এটা উত্তরপ্রদেশ নয়। ধর্ষণের অভিযোগ করায় নির্যাতিতার পরিবারের কাউকে মরতে হয় না এখানে। সাধারণ মানুষের অভিযোগ নিতেই হবে। মমতার নিদান, কেস ডায়েরিটা (সিডি) ঠিকঠাক করে লিখবেন। বহু সময় দেখা যাচ্ছে, সিডি ঠিকঠাক না হওয়ায়, অপরাধী জামিন পেয়ে যাচ্ছে। এটা যেন না হয়। পুলিসের পাশাপাশি সরকারি আইনজীবীদের মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ, এরটাও নিলাম, ওরটাও নিলাম, এমন করবেন না। একটা পক্ষ হয়ে থাকতে হবে। সরকার আপনাদের পয়সা দেয়। সরকারের মামলাগুলো ভালো করে দেখুন, ঝুলিয়ে রাখবেন না। নিষ্পত্তি করার ব্যবস্থা করুন।

14th  February, 2020
অনলাইন ক্লাসে পড়ুয়া-শিক্ষকরা আগ্রহ দেখালেও অভাব পরিকাঠামোর
রাজ্যজুড়ে সমীক্ষায় উঠে এল তথ্য

 লকডাউন ও করোনা সংক্রমণ গোটা দেশেই ছাত্রছাত্রীদের অনলাইন ক্লাস করতে বাধ্য করছে। কিন্তু সেই ক্লাসে কাজের কাজ হচ্ছে কি? সম্প্রতি এই প্রশ্নকে সামনে রেখে শুধু পশ্চিমবঙ্গের উপর একটি সমীক্ষা করা হয়। সেখানে দেখা যাচ্ছে, অনলাইন ক্লাস করার বিষয়ে আগ্রহ রয়েছে ছাত্রছাত্রী এবং শিক্ষকদের।
বিশদ

ডিএলএডে নিজস্ব ফোন, কম্পিউটার
ব্যবহার করেই উত্তরপত্র জমা পড়ুয়াদের

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের স্মার্টফোন বিলি করছেন কর্তৃপক্ষ। শুধু তাই নয়, অনলাইন ক্লাস যাতে মিস না হয় তার জন্য বহু পড়ুয়ার ফোনে রিচার্জও করে দেওয়া হচ্ছে। আর যাদবপুরের পড়ুয়াদের ঠিক উল্টো ছবি ডিপ্লোমা ইন এলিমেন্টারি এডুকেশন বা ডিএলএডের ক্ষেত্রে। দেখা গিয়েছে, শহর এবং শহরতলির কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে সমস্যার কথা সামনে এসেছে, সেখানে ডিএলএডের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি মিটেছে নির্বিঘ্নে। ৩৫ হাজারেরও বেশি পড়ুয়া প্রযুক্তি ব্যবহার করে উত্তরপত্র জমা দিয়েছেন।
বিশদ

হাইকোর্টের রায়কে স্বাগত জানাল
রাজনৈতিক দল থেকে নাগরিক সমাজ

করোনা সংক্রমণের বাড়াবাড়ি রোখার লক্ষ্যে বারোয়ারি দুর্গাপুজোয় জনতার ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতে সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের দেওয়া রায়কে রাজ্যের নাগরিক সমাজের বড় অংশ স্বাগত জানাল। চিকিৎসক থেকে সমাজকর্মী, রাজনৈতিক দল থেকে সাধারণ মানুষ—সমাজের সব অংশের তরফেই উৎসবের পর করোনার প্রাদুর্ভাব নিয়ে আশঙ্কা ব্যক্ত করে এই রায়কে প্রশাসনের মান্যতা দেওয়ার পক্ষেই সওয়াল করা হয়েছে।
বিশদ

ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী কলকাতা সহ
দক্ষিণবঙ্গে বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা

বঙ্গোপসাগরে যে নিম্নচাপটি তৈরি হতে চলেছে তার পরোক্ষ প্রভাবে পুজোর কয়েকটি দিন কিছুটা বৃষ্টি হবে রাজ্যে। এমনটাই এখনও মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। মধ্য বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া ওই নিম্নচাপটি থেকে একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা বের হয়ে বাংলাদেশ পর্যন্ত বিস্তৃত থাকবে। এটি রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকার উপর দিয়ে যাবে বলে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের অধিকর্তা ডঃ জি সি দাস সোমবার জানিয়েছেন।
বিশদ

পুজো নিয়ে নবান্নে
বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর

পুজোর সময় কোনওভাবেই করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ঢিলেমি দেওয়া যাবে না। সোমবার ফের প্রশাসনিক কর্তাদের এই নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে কোভিড জয়ীদের পুজো মণ্ডপে সেবক হিসেবে নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন। এদিন পুজোকে কেন্দ্র করে নবান্নে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে ঠিক হয়েছে, পুজো মণ্ডপে সেবক হিসেবে নানা কাজে ব্যবহার করা যাবে সরকারি খাতায় নথিভুক্ত করোনা জয়ীদের।
বিশদ

দর্শকশূন্য মণ্ডপ: হাইকোর্ট

মণ্ডপে প্রতিমা রয়েছে, দর্শনার্থী নেই! প্যান্ডেল রয়েছে জনজোয়ার নেই! মণ্ডপের ভিতর-বাইরে, সর্বত্রই সাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ। মহামারীর বছরে দর্শকশূন্য পুজোই করতে হবে গোটা রাজ্যে। সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের এই নির্দেশের পর মাথায় হাত উৎসব-উদ্যোক্তাদের। প্রস্তুতির শেষ লগ্নে এসে এখন কী করবেন, ভেবে কূল পাচ্ছেন না তাঁরা। তবে বিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে রাজ্যের একটা বড় অংশের মানুষ আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন। কোভিডের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ‘সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত’ বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।
বিশদ

করোনা ও ডেঙ্গু সচেতনতায়
গান বেঁধেছে সরকার

হঠাৎ মনে হতে পারে এটা বোধ হয় পুজোয় কোনও ডুয়েট অ্যালবাম। কিন্তু তা নয় মোটেই। চমকপ্রদ সুরে করোনা ও ডেঙ্গু নিয়ে সচেতনতায় গান বেঁধেছে রাজ্য নগর উন্নয়ন সংস্থা (সুডা)। সোমবারই সুডা অধিকর্তা রাজ্যের সমস্ত কর্পোরেশন ও পুরসভাগুলির কাছে ওই রেকর্ড করা গান পাঠিয়ে দিয়েছেন। অধিকর্তা তাঁর নির্দেশিকায় বলেছেন, রাজ্যের পুরমন্ত্রীর নির্দেশে সহজ, সুরেলা আঙ্গিকে মানুষের কাছে সচেতনতার বার্তা দিতে এই গান তৈরি করা হয়েছে। বিশদ

রাজ্যের শ্রমিক স্বার্থে সংশোধনী আইন আনার সুযোগ খতিয়ে দেখবে নবান্ন
কেন্দ্রের শ্রম কোড কীভাবে লাগু, খতিয়ে দেখতে ৪টি টাস্ক ফোর্স গঠিত শ্রমদপ্তরে

 হাজার বিতর্ক বা আপত্তি থাকা সত্ত্বেও সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার দৌলতে চারটি শ্রম কোড আইনে পরিণত করেছে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকার। এব্যাপারে সরকারের গেজেট নোটিফিকেশনও প্রকাশিত হয়েছে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর পর্বের পর। বিশদ

গ্রামীণ এলাকায় স্বাস্থ্য পরিকাঠামো গড়তে সমবায় সংস্থাগুলিকে ঋণ দেবে এনসিডিসি
আয়ুষ্মান সহকার প্রকল্পে ঋণের অঙ্ক ১০ হাজার কোটি

 গ্রামীণ এলাকায় স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদানের জন্য পরিকাঠামো গড়ে তুলতে সমবায় সংস্থাগুলিকে ঋণ দেবে রাষ্ট্রায়ত্ত ন্যাশনাল কো-অপারেটিভ ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন (এনসিডিসি)। বিশদ

করোনা পরিস্থিতির দুশ্চিন্তা কাটাতে
কো-অর্ডিনেটরের উদ্যোগে গ্রামে প্রথম দুর্গাপুজো

করোনা পরিস্থিতিতে অন্য জায়গায় প্রতিমা দর্শন করতে যাওয়ার পাশাপাশি অষ্টমীর পুষ্পাঞ্জলি দেওয়া নিয়েও দুশ্চিন্তায় পড়েছিলেন উলুবেড়িয়া পুরসভার ২৪ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ জগদীশপুর গ্রামের বাসিন্দারা। বিশদ

শিক্ষক বদলির যাবতীয় ক্ষমতা আপাতত নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে স্কুলশিক্ষা দপ্তর

শিক্ষক বদলিতে বড়সড় পরিবর্তন আনল স্কুলশিক্ষা দপ্তর। এবার আর স্কুল সার্ভিস কমিশনে নয়, যে কোনও বদলির জন্য আবেদন করতে হবে স্কুলশিক্ষা কমিশনারের কাছে। বিশদ

পুলিস হেফাজতে অন্য ২ বিজেপি নেতা
অবশেষে জামিন পেলেন বলবিন্দার

অবশেষে জামিন হল বলবিন্দার সিংয়ের। সোমবার হাওড়া আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে আড়াই হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন মঞ্জুর করেন। বিশদ

পলিটেকনিক কলেজের চুক্তিভিত্তিক গ্রুপ ডি কর্মীরা কাজ হারিয়ে বিপাকে

 চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি না হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন পলিটেকনিক কলেজের অন্তত ২৩০ জন অস্থায়ী কর্মচারী। রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে নিযুক্ত ছিলেন তাঁরা। বিশদ

 রাজ্যে আক্রান্ত সংবিধান, ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ডাক সূর্যকান্ত-মান্নানের

 গোটা দেশের সঙ্গে আজ এরাজ্যেও নানাভাবে সংবিধান আক্রান্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। খর্ব হচ্ছে মানুষের অধিকার। সংবিধানের প্রস্তাবনার পাঁচটি মূল বিষয়কে এই আক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করা এখন রাজ্যের সকল সচেতন নাগরিকের কর্তব্য। বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
মরুভূমির উষ্ণতাকে ছাপিয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলে যেন ফাগুন হাওয়া বয়ে এনেছেন লকি ফার্গুসন। গত ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে তাঁর দুরন্ত বোলিংয়ের সুবাদে সুপার ওভারে ...

 মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ার পর থেকেই মধ্য এবং দক্ষিণ কলকাতার সঙ্গে বেহালার দিকে যাতায়াত করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। ...

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শক্তির বিচারে আমেরিকার ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে চীন। করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থতাই এই অঞ্চলে আমেরিকার ক্ষমতার রাশ আলগা করেছে। ...

সংবাদদাতা, দুর্গাপুর: সংক্রমণ এড়াতে এবার ঘরের তৈরি নারকেল, খই ও সিঁড়ির নাড়ু দিয়েই মাকে পুজো দেবেন দুর্গাপুরের মহিলা পুজো কমিটিগুলি। কাটা ফল সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় সাফল্য ও হতাশা দুই-ই বর্তমান, নতুন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠবে। কর্মপ্রার্থীদের শুভ যোগ আছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬৯: স্বাধীনতা সংগ্রামী মাতঙ্গিনী হাজরার জন্ম
১৯৫০: কোরিয়ার যুদ্ধে যোগ দিল গণপ্রজাতন্ত্রী চীন। রাষ্ট্রসংঘের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ অভিযানে অংশ নিতে ইয়ালু নদী পার হল চীনের এক হাজার সেনা।
১৯৫৬: বলিউড তারকা সানি দেওল জন্মগ্রহণ করেন।
২০০৫: মানবতা বিরোধী অপরাধে সাদ্দাম হুসেনের বিচার প্রক্রিয়া শুরু হল বাগদাদে।

19th  October, 2020


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭১.৭৪ টাকা ৭৪.৯৭ টাকা
পাউন্ড ৯২.৬৪ টাকা ৯৭.১০ টাকা
ইউরো ৮৩.৮৮ টাকা ৮৭.৯২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫১,৭৪০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,০৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৯,৮৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬২,৭৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬২,৮৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩ কার্তিক, ১৪২৭, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, চতুর্থী ১৪/১১ দিবা ১১/১৯। জ্যোষ্ঠা নক্ষত্র ৫১/২২, রাত্রি ২/১২। সূর্যোদয় ৫/৩৮/৫৪, সূর্যাস্ত ৫/৪/৪। অমৃতযোগ দিবা ৬/২৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১০ গতে ১০/৫৮ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৫ গতে ৮/২৫ মধ্যে পুনঃ ৯/১৬ গতে ১১/৪৭ মধ্যে পুনঃ ১/২৮ গতে ৩/৯ মধ্যে পুনঃ ৪/৫০ গতে উদয়াবধি। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/৩৫ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪ গতে ৮/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৭ গতে ২/১৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৩৯ গতে ৮/১৩ মধ্যে।
৩ কার্তিক, ১৪২৭, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, চতুর্থী অপরাহ্ন ৪/৩৭। অনুরাধানক্ষত্র দিবা ৯/৩৪। সূর্যোদয় ৫/৪০, সূর্যাস্ত ৫/৫। অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে ও ৭/১৭ গতে ১০/৫৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৭ গতে ৮/১৯ মধ্যে ও ৯/১৯ গতে ১১/৪৬ মধ্যে ও ১/৩০ গতে ৩/১৩ মধ্যে ও ৪/৫৭ গতে ৫/৪০ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/২৭ মধ্যে। বারবেলা ৭/৫ গতে ৮/৩১ মধ্যে ও ১২/৪৮ গতে ২/১৪ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৩৯ গতে ৮/১৪ মধ্যে।
  ২ রবিয়ল আউয়ল।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আরও এক জঙ্গি খতম জম্মু-কাশ্মীরে 
গতকালের পর আজ, মঙ্গলবার আরও এক জঙ্গিকে খতম করল ভারতীয় ...বিশদ

10:43:16 AM

 করোনা: আপনার জেলার হাল কী, জানুন...
রাজ্যে নতুন করে আরও ৩,৯৯২ জনের শরীরে মিলেছে করোনা ভাইরাস। ...বিশদ

10:35:55 AM

পেট কেটে ভূগর্ভস্থ সন্তানকে চুরির অপরাধে ৬৭ বছর পর কোনও মহিলার মৃত্যুদণ্ড আমেরিকায় 
দীর্ঘ ৬৭ বছর পর কোনও মহিলাকে মৃত্যুদণ্ড দিল আমেরিকা। আগামী ...বিশদ

10:18:55 AM

 ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ৪৬,৭৯০
ভারতে কমছে দৈনিক করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় ...বিশদ

10:06:32 AM

 দিনের শুরুতে সেনসেক্স পড়ল ৭৫ পয়েন্ট

09:57:10 AM

দর্শকশূন্য দুর্গাপুজো: রায় পুনর্বিবেচনায় আদালতে আর্জি জানাবে ফোরাম
রাজ্যজুড়ে এবার বেনজির দুর্গাপুজো। মণ্ডপ থাকবে দর্শকশূন্য। গতকালই এই রায় ...বিশদ

09:47:35 AM