সম্পাদকীয়
 

শুধু কথা নয়, কাজও

শুধু বড় বড় ঘোষণা করে সস্তায় হাততালি কুড়ানোর রাজনীতি নয়। প্রতিহিংসার তত্ত্বকে হাতিয়ার করে বিরোধী রাজনীতিকে ধ্বংস করার মতো ন্যক্কারজনক পদক্ষেপও নয়। ক্ষমতায় বসার কয়েক বছরের মধ্যেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটা জিনিস পরিষ্কার করে দিয়েছেন, উন্নয়নই তাঁর এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র হাতিয়ার। বস্তুত তাঁর একের পর এক উন্নয়নমূলক কর্মসূচির ধাক্কা সামলাতে গিয়েই কুপোকাত বিরোধী শিবির। কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের বিনামূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস বিতরণ থেকে শুরু করে গ্রামাঞ্চলে রাস্তাঘাট, পানীয় জলের বন্দোবস্ত, প্রত্যন্ত এলাকায় বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া ইত্যাদি একের পর কাজ করে রাজ্যের চেহারাতেই আমূল বদল এনে দিয়েছেন তিনি।
আর সেই কারণেই বোধহয় সিপিএম নেতা গৌতম দেব পর্যন্ত বলতে বাধ্য হয়েছেন, তাঁদের বামফ্রন্ট সরকারের আমলে রাস্তাঘাটের আকাঙ্খিত উন্নয়ন হয়নি। কোন গৌতম দেব? যিনি মাত্র কয়েকদিন আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে এমন কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন, যা নিয়ে রাজ্যজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। সেই ঝড় সামাল দিয়ে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামতে হয়েছিল খোদ আলিমুদ্দিনের শীর্ষকর্তাদের। তাঁদের চাপে শেষমেশ প্রকাশ্যে দুঃখপ্রকাশ করতে বাধ্য হয়েছিলেন গৌতমবাবু।
গৌতম দেবের মতো কট্টর মমতা-বিরোধী নেতা যখন এমন স্বীকারোক্তি করতে বাধ্য হন, তখন বোঝাই যায়, বাস্তব অবস্থা কতখানি বিরোধীদের বেকায়দায় ফেলে দিয়েছে। কারণ, গ্রামাঞ্চলে সিপিএম নেতাদেরই সাধারণ ভোটারদের প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে, আপনারা দীর্ঘ ৩৪ বছরে এই সামান্য কাজগুলোও করতে পারলেন না কেন? সামনেই পঞ্চায়েত ভোট। তার আগে তৃণমূল সরকারের উন্নয়নের কর্মযজ্ঞকে অস্বীকার করার অর্থই যে সাধারণ ভোটারদের কাছে নিজেদের আরও হাস্যকর করে তোলা, সেই নির্মম সত্যটা এখন বিরোধী নেতারাও হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন। আর সেই কারণেই বোধহয় বাস্তব পরিস্থিতিটাকে মেনে নেওয়াটাই নিজেদের পিঠ বাঁচানোর সর্বোত্তম পথ বলে তাঁরা মনে করছেন।
মমতার এই উন্নয়নের তালিকায় সর্বশেষ চমক হল, স্বাস্থ্যসাথি প্রকল্প। ৩০ ডিসেম্বর নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে ২০ জন উপভোক্তার হাতে এই প্রকল্পের কার্ড তুলে দিয়ে তিনি এর আনুষ্ঠানিক শুভ সূচনা করেছিলেন। কাজ শুরু হয়ে যায় জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকেই। এই প্রকল্পের মূল বিষয় হল, সুবিধাভোগীর পরিবার দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিমার সুবিধা পাবে। জটিল রোগব্যাধি যেমন ক্যানসার, হার্টের অসুখ, নিউরো, অর্থোপেডিক ইত্যাদি সমস্যায় বিমার পরিমাণ বেড়ে হবে সর্বোচ্চ পাঁচ লক্ষ টাকা। এর আরও একটি উল্লেখযোগ্য দিক হল, একটি পরিবারে কতজন এর সুবিধা পাবেন, তার কোনও সীমা নেই। কোনও পরিবারের সদস্য সংখ্যা যদি ১৩-১৪ জনও হয়, তাহলে সব সদস্যই কার্ড পাবেন। এই প্রকল্পের লক্ষ্য ছিল সব মিলিয়ে ৪৩ লক্ষ পরিবার, বা প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষের হাতে কার্ড পৌঁছে দেওয়া।
স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর, মাত্র তিন মাসেই সরকার সেই লক্ষ্যমাত্রার প্রায় কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। পঞ্চায়েত এবং ব্লকের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মীরা দিনরাত নিরলস পরিশ্রম করেছেন। এমনকী অনেকে ছুটি পর্যন্ত নেননি। আর তার ফলও ফলেছে হাতেনাতে। প্রায় ৯৩ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে মাত্র তিন মাসে। কার্ড পৌঁছে গিয়েছে ৪০ লক্ষ পরিবারের হাতে। সদস্য সংখ্যা ধরলে তা প্রায় দু’কোটি। উল্লেখ্য, রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বিমা যোজনাতেও দেশের মধ্যে এক নম্বর স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু সেখানেও ৬০ শতাংশের বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়নি। সেই হিসাবে এটিকে একটি রেকর্ডও বলা চলে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত ১০ হাজার মানুষ এই স্বাস্থ্যসাথি কার্ড ব্যবহার করা শুরুও করে দিয়েছেন। দৈনন্দিন খাওয়া-পরার বাইরেও বর্তমান দিনে মানুষকে সবচেয়ে বেশি দুশ্চিন্তায় ফেলে দেয় চিকিৎসা। ফলে বোঝাই যায়, এ ধরনের একটি জনহিতকর প্রকল্প সাধারণ মানুষ, বিশেষত গ্রামাঞ্চলের মধ্যবিত্তদের কাছে আশীর্বাদস্বরূপ, যা বাড়তি দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে তাঁদের সহায়ক হয়ে উঠবে।
18th  April, 2017
ভরতি সমস্যা ও বিকল্প ভাবনা

ডিগ্রি কলেজে ভরতি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ বহুদিনের। সমস্যাটি সরকারি, বেসরকারি সমস্ত কলেজেই। সবচেয়ে বেশি অভিযোগ পাওয়া যায় কলকাতার কয়েকটি নামজাদা কলেজ সম্পর্কে। জেলাস্তরেও কিছু নামী কলেজ নিয়ে একই সমস্যা। এর কারণ উচ্চমাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় যত ছেলেমেয়ে পাশ করেন কলেজগুলিতে তত জনকে স্নাতক শ্রেণিতে ভরতি নেওয়ার পরিকাঠামো নেই।
বিশদ

  বিশ্ব দরবারে কন্যাশ্রীর স্বীকৃতি

 বিশ শতকের গোড়ায় মহামতি গোখেলের উপলব্ধি ছিল, বাংলা আজ যা ভাবে, আগামীকাল ভারত ভাবে তা-ই। আজ একুশ শতকে ফের প্রমাণিত হল মহামতির উপলব্ধি ভুল ছিল না। শুধু তাই নয়, কেবল ভারতই নয়, বাংলার ভাবনা সঞ্চারিত হতে পারে ভারতসীমানা পেরিয়ে দেশে দেশেও।
বিশদ

25th  June, 2017
চামলিংয়ের মদত ও গুরুংয়ের আত্মাহুতি বাহিনী 

পর পর দুটো চাঞ্চল্যকর খবরে শুক্রবার টনক নড়ল। পয়লা খবর, গোর্খাল্যান্ডের দাবিকে আরও জোরালো করতে এবং রাজ্য সরকারকে অস্বস্তিতে ফেলতে ও দ্রুত দাবি আদায়ে আত্মাহুতি বাহিনী তৈরি করেছে বিমল গুরুংরা। আর দ্বিতীয় খবরটি হল আচমকাই অশান্ত পাহাড় পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে ঘোলাজলে মাছ ধরতে নেমেছেন পার্শ্ববর্তী সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিং।
বিশদ

24th  June, 2017
জগৎসভায় মমতা

 নেদারল্যান্ডসে হেগের শিল্প সম্মেলন থেকে বাংলার ঘরে বিনিয়োগের লক্ষ্মী টানতে আহ্বান জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেদেশের শিল্পপতিদের কাছে মুখ্যমন্ত্রীর সাদর নিমন্ত্রণ, বাংলায় আসুন। বিনিয়োগ করুন। রাজ্য সরকার সবরকম সাহায্য করবে।
বিশদ

23rd  June, 2017
কর্তব্যেরও আগে মানবিকতা

 অর্ডারটা আসত প্রায়দিনই। পিৎজার। ওই একই ঠিকানা থেকে। কোম্পানি অর্ডার নিত, আর তারপর ধরিয়ে দিত সুজান গাইকে। কে এই সুজান? খুব সাধারণ এক পিৎজা ডেলিভারি মহিলা।
বিশদ

22nd  June, 2017
শুধু কথার কথা না হয়

 দল বড় হলে বিশেষত ক্ষমতাসীন থাকলে অনেক সময় দলের অভ্যন্তরে শৃঙ্খলা রক্ষা করাটাই একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। কারণ, তখন ক্ষমতালোভীদের একাংশ মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার চেষ্টা চালায়। অথচ যে-কোনও দলের অভ্যন্তরে শৃঙ্খলা বজায় থাকলে সাংগঠনিক ভিত শক্তপোক্ত হয়।
বিশদ

21st  June, 2017
কাশ্মীরের হিংসার ছায়া এবার দার্জিলিংয়ে

পাহাড়ে যে অশান্তির বাতাবরণ, সে নতুন কিছু নয়। তা তো দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। তবে গত কয়েকদিন ধরে পাহাড়ে যে পর্যায়ের এবং যে ধরনের অশান্তি শুরু হয়েছে, তার চরিত্র অনেকটাই ভিন্ন। এবারের আন্দোলন অনেক বেশি হিংসাশ্রয়ী। অনেক বেশি উগ্রপন্থাশ্রয়ী। যেভাবে এতদিন ধরে পাহাড়ে একদল যুবক শুধু পাথর ছুঁড়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশকে আক্রমণ করে যাচ্ছে, তাতে করে পুলিশকর্তারা নতুন ইঙ্গিত পেয়েছেন।
বিশদ

20th  June, 2017
জাতিসত্তা: মতলব ও যুক্তি

দার্জিলিং পাহাড়ে নেপালি তথা গোর্খা জাতিসত্তার দাবি বহুদিনের। সেই সূত্রে ১৯৬১ সালে ওই অঞ্চলে নেপালি ভাষার সরকারি স্বীকৃতি প্রদান। গভর্নমেন্ট অফিসিয়াল ল্যাংগুয়েজ অ্যাক্ট অনুসারে সরকারি কাজের ভাষা হিসাবে মান্যতা পায় ওই ভাষাটি। নেপালি ভাষাকে এরপর সংবিধানের অষ্টম তফসিলেরও অন্তর্ভুক্ত করা হয় ১৯৯৪ সালে। তার আগে ১৯৮৮ সালে তৈরি করা হয় দার্জিলিং গোর্খা পার্বত্য পরিষদ (ডিজিএইচসি)।
বিশদ

19th  June, 2017
আধার নিয়ে আঁধার কাটুক

 আধার নিয়ে ফের একগুচ্ছ নির্দেশ জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। নরেন্দ্র মোদি সরকারের রাজস্ব মন্ত্রক সাফ জানিয়ে দিয়েছে, আধার নম্বর যোগ করা না হলে পাকাপাকিভাবে বন্ধ হয়ে যাবে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট। এজন্য সময়সীমা ধার্য করা হয়েছে আগামী ৩১ডিসেম্বর।
বিশদ

18th  June, 2017
  গুরুংকে মদত দিচ্ছে কারা?

 পাহাড় ক্রমেই আরও অশান্ত হচ্ছে। গত ৮ জুন থেকে যে হাঙ্গামা শুরু হয়েছে তা এখনও চলছে। কখনও বেশি আবার কখনও কম। গত বৃহস্পতিবার মোর্চা সুপ্রিমোর বাড়িতে পুলিশ তল্লাশি চালানোর পর থেকেই পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। গোটা দার্জিলিংই প্রায় পর্যটকশূন্য।
বিশদ

17th  June, 2017
হাসপাতাল ঘুরে ক্ষুব্ধ মমতা

 এক সরকার, এক ব্যক্তি। তা না হলেই বাংলা অন্ধকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল সরকার সম্পর্কে একমাত্র এই কথাটাই খাটে। মুখ্যমন্ত্রীর নজর যেখানে পড়ছে সেইখানে ঠিকরে পড়ছে উন্নয়নের আলো। আর যেই তাঁর চোখ এড়িয়ে যাচ্ছে কোনও একদিকে, সঙ্গে সঙ্গে সেখানে নেমে আসছে কাজে ঢিলেমি, কোন্দল, দলতন্ত্র বা দুর্নীতির অন্ধকার।
বিশদ

16th  June, 2017
  আগ্রাসী চীন

 বড়দাদার কাছে মেজদাদার নামে নালিশ ঠুকতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বাণিজ্যের নাম করে মেজদাদা, অর্থাৎ চীন তার বন্ধু দেশগুলির মাটিতে সামরিক ঘাঁটি বানানোর ধান্দা করছে। বিশেষত পাকিস্তান এবং আফ্রিকার দেশগুলিতে। জিবুতি বন্দরের কাছে ইতিমধ্যেই বেজিং এমনই একটা ঘাঁটি বানিয়ে ফেলেছে বলে খবর।
বিশদ

15th  June, 2017



একনজরে
 লন্ডন, ২৫ জুন: গ্রেনফেল টাওয়ারের আতঙ্কের রেশ কাটতে না কাটতেই পূর্ব লন্ডনে শনিবার রাত ১০টা নাগাদ বেথনালগ্রিনের একটি বহুতল ভবনে ফের আগুন লাগে। তবে এখনও কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ভবনের আগুন খানিকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। জানা গিয়েছে, ওই এলাকায় সবচেয়ে ...

সংবাদদাতা, ইসলামপুর: ইসলামপুর মহকুমা জুড়ে চোর ও ছিনতাইবাজদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বাসিন্দাদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়েছে। অভিযোগ, অধিকাংশ চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনাই পুলিশ কিনারা করতে পারছে না। পুলিশি টহলদারি নিয়েও বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মোহন বাগান কোচ হিসাবে মৌখিকভাবে সঞ্জয় সেন রাজি হওয়ার পর টিমের তালিকাও কর্তাদের দিয়েছেন তিনি।রবিবার সঞ্জয় সেন জানান,‘নতুন মরশুমে আমিই ফিজিক্যাল ট্রেনারের বাড়তি দায়িত্ব পালন করব। প্রি- সিজন কন্ডিশনিংও হবে আমার দায়িত্বে। অতীতে তো মোহন বাগান- ইস্ট ...

সংবাদদাতা, কাঁথি: কাঁথির কাঁচলাগেড়িয়া গ্রামের অপহৃতা এক নাবালিকাকে উদ্ধার করেছে কাঁথি মহিলা থানার পুলিশ। উদ্ধার হওয়া নাবালিকাকে রবিবার কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তার গোপন জবানবন্দি রেকর্ড করেন। ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের মানসিক স্থিরতা রাখা দরকার। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। তবে নতুন বন্ধু লাভ হবে। সাবধানে পদক্ষেপ ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

 ১৯০৩- ইংরেজ সাহিত্যিক জর্জ অরওয়েলের জন্ম
১৯৬০- কবি সুধীন্দ্রনাথ দত্তের মৃত্যু
১৯৭৪- অভিনেত্রী করিশ্মা কাপুরের জন্ম
১৯৭৫- প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দেশে জরুরি অবস্থা জারি করলেন
২০০৯- মার্কিন পপ সংগীত শিল্পী মাইকেল জ্যাকসনের মৃত্যু

25th  June, 2017



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৭৫ টাকা ৬৫.৪৩ টাকা
পাউন্ড ৮০.৬৪ টাকা ৮৩.৪২ টাকা
ইউরো ৭০.৭৬ টাকা ৭৩.২৮ টাকা
24th  June, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,২২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৭২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,১৪০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,২০০ টাকা
25th  June, 2017

দিন পঞ্জিকা

১১ আষাঢ়, ২৬ জুন, সোমবার, তৃতীয়া রাত্রি ১০/১২, পুষ্যানক্ষত্র রাত্রি ৯/২৩, সূ উ ৪/৫৭/৫২, অ ৬/২০/৪২, অমৃতযোগ দিবা ৮/৩১-১০/১৮ রাত্রি ৯/১০-১২/০ পুনঃ ১/২৫-২/৫০, বারবেলা ৬/৩৮-৮/১৯ পুনঃ ৩/০-৪/৪০, কালরাত্রি ১০/২০-১১/৪০। ইদুল ফিতর
১১ আষাঢ়, ২৬ জুন, সোমবার, তৃতীয়া রাত্রি ২/০/৩১, পুষ্যানক্ষত্র রাত্রি ১/৩৯/৪, সূ উ ৪/৫৫/২৪, অ ৬/২২/১৭, অমৃতযোগ দিবা ৮/৩০/৩৪-১০/১৮/৯ রাত্রি ৯/১১/৬-১১/৫৯/৫৬, ১/২৪/২১-২/৪৮/৪৬, বারবেলা ৩/১/৩৪-৪/৪১/২৬, কালবেলা ৬/৩৬/১৬-৮/১৭/৭, কালরাত্রি ১০/১৯/৪২-১১/৩৮/৫০। ইদুল ফিতর
১ শওয়াল

ছবি সংবাদ


এই মুহূর্তে
শিলিগুড়িতে গৃহবধূ খুন, স্বামীসহ আটক ৩
শিলিগুড়ির সূর্য সেন কলোনিতে গৃহবধূকে খুনের অভিযোগে স্বামীসহ তিনজনকে আটক করা হল। রবিবার রাতে শৌচাগার থেকে শিখা চক্রবর্তী নামে মহিলার রক্তমাখা দেহ উদ্ধার হয়। মহিলার ভাই মৃদুলকান্তি দাস জানান, এদিন রাতে জামাইবাবু শান্তনু চক্রবর্তী তাঁকে ফোন করে বাড়িতে ডাকেন। তিনি বাড়িতে গিয়ে তাঁর দিদির দেহ উদ্ধার করেন। কীভাবে তাঁর দিদির মৃত্যু হল তাঁর সদুত্তর দিতে পারেনি অভিযুক্ত। তাঁর আরও অভিযোগ, শান্তনু চক্রবর্তীর আগেও একবার বিয়ে হয়েছিল। প্রথম পক্ষের স্ত্রীকেও হত্যা করেছিল সে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। আটক করা হয়েছে মৃতার স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়িকে।

12:20:00 AM

ভারত ৩১০/৫ (৪৩ ওভার)  

25-06-2017 - 11:47:24 PM

ভারত ১৯২/১ (৩০ ওভার) 

25-06-2017 - 10:34:21 PM

ভারত ৯৫/০ (১৫ ওভার) 

25-06-2017 - 09:38:36 PM

ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ফের বৃষ্টির জেরে ওভার সংখ্যা ৪৫ থেকে কমে দাঁড়াল ৪৩

25-06-2017 - 08:27:40 PM

নেদারল্যান্ডস সফর সেরে কলকাতায় ফিরলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

25-06-2017 - 08:21:00 PM