রাজ্য
 

নারদে অভিযুক্তদের সম্পত্তির
তালিকা তৈরি করছে সিবিআই

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নারদ স্টিংকাণ্ডে এফআইআরে নাম থাকা অভিযুক্তদের ‘প্রপার্টি ম্যাপিং’-এর কাজ শুরু করল সিবিআই। অভিযুক্ত হিসাবে যে ১৩ জনের নাম রয়েছে, তাঁদের সম্পত্তির বহর বেড়ে থাকলে কতটা বেড়েছে, তা জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। এক্ষেত্রে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির সবটাই দেখা হচ্ছে। যদি কোনও নেতা-মন্ত্রী বা এমপি’র অস্বাভাবিক কিছু নজরে আসে, তখন খুঁজে দেখা হবে, এই বাড়বাড়ন্ত কী করে হল। তালিকা তৈরির ক্ষেত্রে গুরুত্ব পাচ্ছে তাঁদের সম্পত্তির হিসাব। সেই সম্পত্তি কোথা থেকে ও কীভাবে এল, নতুন সম্পত্তি তাঁরা কিনেছেন কি না, ইত্যাদি বিষয় প্রাধান্য পাবে। যে সম্পত্তির মালিক হিসাবে খাতায়-কলমে অভিযুক্তদের নাম রয়েছে, তা তাঁদের আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ কি না, তাও দেখা হবে।
এদিকে কোন পথে তদন্ত এগচ্ছে এবং কী কী তথ্যপ্রমাণ পাওয়া গিয়েছে, সেই নথি ও এফআইআরের কপি কলকাতার বিচারভবনে সিবিআইয়ের ১নং কোর্টের বিচারক চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়ের এজলাসে বুধবার জমা পড়েছে। আগামী ১৭ মে মামলাটি ফের আদালতে উঠবে। ওইদিনই তদন্তকারী অফিসারের কাছে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৭৩ ধারা মোতাবেক ওই রিপোর্ট তলব করেছে আদালত। এদিকে, আদালত সূত্রের খবর, এক অভিযুক্তের আইনজীবী ইতিমধ্যেই এফআইআরের সার্টিফায়েড কপি তুলে নিয়েছেন। তবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার জমা দেওয়া নথি থেকেই স্পষ্ট, তথ্য সংগ্রহের কাজ অনেকটাই সেরে ফেলেছে তারা।
প্রকাশিত ভিডিওতে মন্ত্রী-এমপি বা নেতাদের ঘুষ নিতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু তার সঙ্গে তাঁদের সম্পত্তির সম্পর্ক কী? সিবিআইয়ের এক তদন্তকারী অফিসারের কথায়, প্রতিটি ঘুষ মামলাতেই তাঁরা সম্পত্তির পরিসংখ্যান নেন। তার তালিকা তৈরি করেন। যাতে জানা যায়, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি উৎকোচ নিয়ে থাকলে সেই টাকায় তিনি কী কী করেছেন। এটা ধরে নেওয়া হয় যে, যাঁর বিরুদ্ধে ঘুষের অভিযোগ, তিনি এর আগেও এমন কাজ করেছেন। অতীত অভিজ্ঞতা সেকথাই বলে। শুধু তাই নয়, সম্পত্তির হিসাব থেকেই বেরিয়ে আসে, অভিযুক্তের আয়ের সঙ্গে সম্পত্তির সঙ্গতি রয়েছে কি না। তাই নারদ স্টিংকাণ্ডে অভিযুক্তদের এই ধরনের তালিকা তৈরির পিছনে কোনও অস্বাভাবিকতা দেখতে পাচ্ছেন না সিবিআই আধিকারিকরা।
এক্ষেত্রে কী দেখা হচ্ছে? অভিযুক্তদের জমা দেওয়া হলফনামাকে ভিত্তি করেই এগচ্ছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। তাঁরা জেনেছেন, পুলিশকর্তা এস এন এইচ মির্জাকে বাদ দিলে বাকি ১২ জন অভিযুক্ত বিভিন্ন নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। ফলে নির্বাচন কমিশনের কাছে সম্পত্তির তালিকা পেশ করেছিলেন তাঁরা। তাঁদের পেশা কী, তাও বলা হয়েছে ওই হলফনামায়। এর কপি ইতিমধ্যেই আধিকারিকরা সংগ্রহ করেছেন বলে খবর। যে পরিমাণ সম্পত্তির কথা হলফনামায় উল্লেখ করেছিলেন অভিযুক্তরা, তার বাস্তবতাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই সম্পত্তির মালিক তাঁরা কীভাবে হলেন, তার জন্য জমির কাগজপত্রও যাচাই করা শুরু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যেই কিছু কপি তাঁরা হাতে পেয়েছেন। যদি অভিযুক্তরা উত্তরাধিকার সূত্রে সম্পত্তি পেয়ে থাকেন, তাহলে পরবর্তীকালে সেই বাড়িতে তাঁরা কোনও নতুন তল করেছেন কি না, তা’ও দেখা হচ্ছে। এমনকী পরে বাড়ির ইন্টিরিয়র ডিজাইন থেকে শুরু করে অন্য কাজ করিয়ে থাকলে, তার জন্য কত টাকা খরচ করেছেন, কোন সংস্থা সেই কাজ করেছে, সেই সংক্রান্ত বিষয়েও খোঁজখবর নিচ্ছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। আর যদি সম্পত্তি কিনে থাকেন, তাহলে তার জন্য কত টাকা খরচ হল, সেই টাকার উৎস কী, তা বের করা হবে। বিশেষত যে পরিমাণ টাকার কথা বলা হচ্ছে, তা অভিযুক্তদের আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ কি না, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে। সিবিআইয়ের গোয়েন্দারা মনে করছেন, বাড়তি কিছু সম্পত্তি থেকে যাওয়াটা আশ্চর্যের কিছু নয়। যা তাঁরা গোপন করে থাকতে পারেন। সম্পত্তির তালিকা তৈরি করতে গিয়ে সেই গোপন তথ্য বেরিয়ে আসার সম্ভাবনা রয়েছে বলে সিবিআইয়ের বক্তব্য।
21st  April, 2017
নেদারল্যান্ড সফরেও চোখ রাখছেন পাহাড় পরিস্থিতির দিকে
বিরোধীরা প্রার্থী দেবেই, জানিয়ে দিলেন মমতা

রূপাঞ্জনা দত্ত, হেগ, ২১ জুন: বিরোধীরা প্রার্থী দেবেই। এমনকী নীতীশ কুমার রামনাথ কোবিন্দকে সমর্থন জানালেও প্রার্থী দেওয়া থেকে বিরোধীদের আটকানো যাবে না। বুধবার সাফ জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নেদারল্যান্ডস সফরে এসেও মুখ্যমন্ত্রীর নজর রয়েছে একইসঙ্গে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ও পাহাড় পরিস্থিতির দিকে।
বিশদ

সিকিম সীমান্তে গোপন
আস্তানায় লুকিয়ে গুরুং
পাহারায় ১৫০-২০০ সশস্ত্র জিএলপি ক্যাডার

দেবাঞ্জন দাস, কলকাতা: জাত্যাভিমান আর আলাদা রাজ্যের স্বপ্নকে উসকে দিয়ে গ্রেপ্তারি এড়াতে গোপন ডেরায় ঘাঁটি গেড়েছেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং। বিভিন্ন সূত্র মারফত মেলা নানা তথ্য খতিয়ে দেখে পুলিশ ও গোয়েন্দারা নিশ্চিত হয়েছেন, এই মুহূর্তে সিকিম সীমান্তের শহর জোড়থাংয়ের খুব কাছে রঙ্গিত নদীর ধারে একটি চা-বাগানে গা-ঢাকা দিয়ে রয়েছেন মোর্চা প্রধান।
বিশদ

প্রভাব খাটানো বন্ধে পাসওয়ার্ড ৩ জনের হাতে
পিজিতে এমআরআই, বাইপাসের ‘ডেট-ভোগান্তি’ কমাতে বসছে নয়া সফটওয়্যার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ঠিক এক সপ্তাহ আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যা঩য় আচমকা পিজি হাসপাতাল পরিদর্শনের সময় রোগীর বাড়ির লোকজন সিটি স্ক্যান, এমআরআই-এর ‘ডেট’ নিয়ে তাঁর কাছে ক্ষোভপ্রকাশ করেছিলেন। বিশদ

শংকর সিংসহ কংগ্রেসের
দুই বিধায়ক তৃণমূলে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্য বিধানসভায় প্রধান বিরোধী দলের আসন থেকে কংগ্রেসকে সরানোর লক্ষ্যে আরেক ধাপ এগল তৃণমূল। বুধবার নদীয়ার দুই কংগ্রেস বিধায়ক শংকর সিং ও অরিন্দম ভট্টাচার্য যোগ দিলেন তৃণমূলে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে দলীয় পতাকা হাতে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিলেও বিধায়ক পদ ছাড়ার প্রসঙ্গ এড়ালেন তাঁরা। গত বিধানসভা নির্বাচনে জোটপ্রার্থী হিসাবে জিতে এই নিয়ে কংগ্রেসের আটজন বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দিলেন।
বিশদ

সামনে পঞ্চায়েত ভোট ধরে ধান কেনার জোর প্রচার চাইছে রাজ্য

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বছর শেষ হলেই রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। ভোটপর্ব চলার সময় রাজ্যের গ্রামীণ এলাকায় পুরোদমে চলবে সরকারি উদ্যোগে কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার প্রক্রিয়া।
বিশদ

সিনেমা দেখানোর বিশেষ প্যাকেজ
জন্মদিন-বিবাহবার্ষিকীতে বিশেষ ছাড় মৎস্য নিগমের হোটেল-রেস্তরাঁয়, উপহার মিলবে কেক-ফুলের স্তবক

রাহুল দত্ত, কলকাতা: জন্মদিন এবং বিবাহবার্ষিকীতে রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগমের (এসএফডিসি) অধীনস্থ গেস্টহাউস, হোটেল এবং রেস্তরাঁতে বুকিংয়ের উপর এবার থেকে মিলবে ১৫ শতাংশ ছাড়। পর্যটনকে আকর্ষণীয় করতেই এই নয়া ব্যবস্থা। 
বিশদ

আজ সর্বদলীয় বৈঠকে যাচ্ছে না কং, বিজেপি, বামেরা
এমপি পদে আলুওয়ালিয়ার ইস্তফা চাইল তৃণমূল

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পার্বত্য দার্জিলিংয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আজ, বৃহস্পতিবার শিলিগুড়িতে বসতে চলেছে সর্বদলীয় বৈঠক। তার আগেই দার্জিলিংয়ের সংসদ সদস্য তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়ার বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগে এমপি পদ থেকে ইস্তফার দাবি করল তৃণমূল। বিশদ

নবান্ন অভিযান: সিপিএমের বাড়তি খবরদারি মূল উদ্দেশ্যই ব্যর্থ করেছে, তোপ কৃষক সংগঠনগুলির

 জীবানন্দ বসু, কলকাতা: লাগাতার প্রচার চালিয়ে প্রায় মরিয়া হয়ে কর্মসূচিতে বহু লোক জড়ো করতে সক্ষম হয়েছিল তারা। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ও দলকে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করতে গিয়ে নবান্ন অভিযান কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্যই অনেকটা চাপা পড়ে গিয়েছে বলে বাম কৃষক সংগঠনগুলি প্রায় সমস্বরে অভিযোগ করছে। বিশদ

  নোবেল চুরির তদন্ত চালিয়ে যাবে সিবিআই, জানানো হল রাজ্যকে

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নোবেল চুরির তদন্তভার ছাড়ল না সিবিআই। এই ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে তাদের হাতে সম্প্রতি উল্লেখযোগ্য ক্লু এসেছে। তার ভিত্তিতে খোঁজখবর চলছে। সেই কারণেই নোবেল মামলার তদন্ত তারা চালিয়ে যেতে চায়।
বিশদ

Pages: 12345




একনজরে
 নয়াদিল্লি, ২১ জুন (পিটিআই): সাড়ম্বরে তৃতীয় আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালন করল ভারত। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানেও যোগ দিবস পালিত হয়েছে। রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় এদিন গণ যোগানুষ্ঠানের ...

সংবাদদাতা, হলদিয়া: দু’দিন নিখোঁজ থাকার পর বুধবার ভোরে হলদিয়ার ভবানীপুর থানা এলাকার বাড়ঘাসিপুর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র সংলগ্ন একটি পুকুর থেকে স্থানীয় এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। ...

 বিএনএ, চুঁচুড়া: নিজস্ব জেনারেটর থাকা সত্ত্বেও ঠিকাদার সংস্থার গাফিলতিতে প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে বিদ্যুৎহীন হয়ে রইল চন্দননগর মহকুমা হাসপাতাল। ফলে ইমারজেন্সি থেকে শুরু করে বিভিন্ন ...

 নিজস্ব প্রতিবেদন: সব কিছু ঠিক থাকলে শ্রীলঙ্কা সফরের আগেই নতুন কোচ পেয়ে যাবে ভারতীয় ক্রিকেট দল। গতকাল রাতে আচমকা কোচের পদ থেকে অনিল কুম্বলে সরে ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

খরচের চাপ এত বেশি থাকবে যে সঞ্চয় তেমন একটা হবে না। কর্মক্ষেত্রে নানান সমস্যা দেখা ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৯- কবি কালীদাস রায়ের জন্ম
১৯০০- বিপ্লবী গণেশ ঘোষের জন্ম
১৯৩২- অভিনেতা অমরীশ পুরীর জন্ম
১৯৬৪- মার্কিন লেখক ড্যান ব্রাউনের জন্ম




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৮০ টাকা ৬৫.৪৮ টাকা
পাউন্ড ৮০.২৩ টাকা ৮৩.০০ টাকা
ইউরো ৭০.৬৬ টাকা ৭৩.১৭ টাকা
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,০৪৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৫৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৭,৯৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৭০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা

দিন পঞ্জিকা

 ৭ আষাঢ়, ২২ জুন, বৃহস্পতিবার, ত্রয়োদশী দিবা ৩/৩৮, কৃত্তিকানক্ষত্র দিবা ১০/৪৫, সূ উ ৪/৫৬/৫৩, অ ৬/১৯/৫৯, অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৯-অস্তাবধি রাত্রি ৭/৩-৯/১০, বারবেলা ২/৫৯-অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/৩৮-১২/৫৮।

১/১৩/৩৯ থেকে অম্বুবাচী প্রবৃত্তিঃ
১/১৩/৩৯ থেকে অম্বুবাচী প্রবৃত্তিঃহস্পতিবার, ত্রয়োদশী ১/৩৯/১, কৃত্তিকানক্ষত্র ৯/৮/১৭, সূ উ ৪/৫৪/৩, অ ৬/২১/৪৮, অমৃতযোগ দিবা ৩/৪০/১৫-৬/২১/৪৮ রাত্রি ৭/৩/৫৭-৯/১০/২৪, ১১/৫৯/০-২/৫/২৭, বারবেলা ৪/৪০/৫০-৬/২১/৪৮, কালবেলা ২/৫৯/৫২-৪/৪০/৫০, কালরাত্রি ১১/৩৭/৫৬-১২/৫৬/৫৮।

১/১৩/৩৯ থেকে অম্বুবাচী প্রবৃত্তিঃ


২৬ রমজান

ছবি সংবাদ


এই মুহূর্তে
 ২৪ তারিখ নয়, কালকেই জিটিএ থেকে ইস্তফা দেবেন মোর্চার প্রতিনিধিরা। জানালেন বিমল গুরুং।

09:30:26 PM

 পাহাড়ে সর্বদলীয় কমিটি ভেঙে দিলেন গুরুং
 পাহাড়ে সর্বদলীয় কমিটি ভেঙে দিলেন গুরুং। জানিয়ে দিলেন এখন থেকে গোর্খাল্যান্ডের পক্ষে জিজেএমএমের ব্যানারেই আন্দোলন হবে।

09:12:45 PM

  কল্যাণীতে যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি ইনস্টিটিউট

কল্যাণীতে হতে চলেছে যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি ইনস্টিটিউট। যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি নিয়ে উন্নতমানের গবেষণার সুযোগ করে দিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বুধবার রাজ্য সরকার এবং যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি পর্ষদ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একথা বলেন রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ডিজি আয়ূশ দেবাশিস বসু। এছাড়া রাজ্যে একটি যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি মেডিকেল কলেজ হবে বলেও জানান তিনি। এদিন বিশ্ব যোগ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষের চিকিৎসা করেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত যোগ চিকিৎসকরা। অনুষ্ঠানে রাজ্য যোগ ও ন্যাচারোপ্যাথি পর্ষদের সভাপতি তুষার শীল বলেন, এখন যোগে ব্যক্তিগত স্তরে চিকিৎসা খুব গুরুত্ব পাচ্ছে। বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত মানুষকে সারিয়ে তুলছেন যোগ বিশারদরা। দিনভর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সরকারি, বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থা এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও দিনটি পালন করে।

09:08:00 PM

  জিএসটি-র জেরে বাতানুকূল ও প্রথম শ্রেণির রেলভাড়া কিছুটা বাড়তে চলেছে
এবার বাতানুকূল ও প্রথম শ্রেণির রেলযাত্রীদের আরও কিছুটা খসাতে হবে গ্যাঁটের কড়ি। কারণ ১ জুলাই থেকে জিএসটি চালু হওয়ার পর এই দুই ক্ষেত্রে আরও কিছুটা মহার্ঘ হবে রেলযাত্রা। জিএসটি কার্যকর হওয়ার পর টিকিটের চার্জের উপর পরিষেবা কর ৪.৫ শতাংশ থেকে বেড়ে হবে ৫ শতাংশ। উল্লেখ্য, বাতানুকূল ও প্রথম শ্রেণির রেলযাত্রার ক্ষেত্রেই একমাত্র এই পরিষেবা কর লাগু হয়। রেল মন্ত্রকের এক প্রবীণ কর্তা বলেন, বর্তমানে কোনও টিকিটের দাম যদি ২ হাজার টাকা হয়, তাহলে আগামী মাস থেকে তার জন্য ২ হাজার ১০ টাকা পড়বে। ওই কর্তা জানান, ১ জুলাই থেকে জিএসটি চালু হওয়ার কথা মাথায় রেখে প্রতিটি রাজ্যে একজন করে নোডাল অফিসার নিয়োগ করেছে রেল। যাতে অভিন্ন কর ব্যবস্থা চালুর সন্ধিক্ষণ মসৃণ হয়। ভারতীয় রেলে জিএসটি-র প্রভাব খতিয়ে দেখার জন্য একজন কনসালট্যান্টও নিয়োগ করা হয়েছে।

08:56:00 PM

আগামীকাল পুরী-হাওড়া-পুরী-শতাব্দী এক্সপ্রেস বাতিল

ডাউন ট্রেন দেরিতে আসার কারণে ১২২৭৮ / ১২২৭৭ পুরী-হাওড়া-পুরী-শতাব্দী এক্সপ্রেস আগামীকাল ২৩ জুন ২০১৭ শুক্রবার বাতিল করা হয়েছে। পরদিন ২৪ জুন ২০১৭ থেকে এই ট্রেনটি ফের স্বাভাবিক নিয়মে যাতায়াত করবে।

08:39:21 PM

 ফের গুরুত্বর অসুস্থ্য হাইকোটের অবসরপ্রাপ্ত প্রাক্তন বিচারপতি সি এস কারনান। তাকে আজ দুপুরেই SSKM হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।।

07:10:00 PM