রথযাত্রার সঙ্গে জড়িয়ে আছে রাজ আমলের নানা কাহিনি
সুখেন্দু পাল, বর্ধমান

রাজা-রানিদের জেলা পূর্ব বর্ধমান। রাজ আমলের নানা কাহিনী ছড়িয়ে রয়েছে। সেই কাহিনীতে মিশে রয়েছে রথযাত্রার ঐতিহ্য।  জেলায়  কোথাও ৩০০ বছর আবার কোথাও তার চেয়ে বেশি সময় ধরে রথযাত্রা হয়ে আসছে। অনেক রথযাত্রা ইতিহাস আবার বহুজনের জানা নেই। এই জেলার সঙ্গে পুরীর রথযাত্রারও এক সময়ের সংযোগ ছিল। পুরীর রথে টান পড়ত এই জেলার তৈরির দড়িতে। রাজা-রানিদের সময় থেকেই জেলায় রথযাত্রার জাঁকজমক শুরু হয়েছে। আগের মতো হয়তো রথতলায় যাত্রা বা নাটকের আসর বসে না। কিন্তু রথের মেলা এখনও প্রাণবন্ত। রথের রশিতে টান পড়লে রাস্তার দু’পাশে ভিড় উপচে পড়ে। আগের মতোই মেলায় গিয়ে জিলিপি বা পাঁপড়ে কামড় দিতে দিতে শারদোৎসবের কাউন্টডাউন শুরু হয়। একসময় রথের দিন খুটিপুজো বড় দুর্গাপুজো কমিটিগুলির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকত। এখন ছোট এবং মাঝারি দুর্গাপুজো কমিটিগুলিও খুঁটিপুজোর আয়োজন করে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এদিন থেকেই বাঙালির বড় উৎসবের প্রস্ততি শুরু হয়ে গেল। 
বর্ধমানের রাজবাড়ির লক্ষ্মীনারায়ণ জিউ মন্দিরের রথ ঘিরে এখনও বাসিন্দাদের আবেগ রয়েছে। এই রথ প্রায় ৩৫০ বছরের পুরনো। রাজাদের আমলে এখানে জাঁকজমক অনেক বেশি ছিল। রামায়ন গান, যাত্রাপালা অনুষ্ঠিত হতো। এখন সেসব অতীত। তবে ঐতিহ্য মেনে এখনও রথযাত্রা হয়। ভিড় জমান ভক্তরা। উদ্যোক্তারা বলেন, কাঠের রথ যত্ন সহকারে রাখা হয়। রথযাত্রার কয়েকদিন আগে পরিষ্কার করা হয়েছে। এখানে একটি পিতলের রথও রয়েছে। এলাকার বাসিন্দাদের কাছে তা রাজা-রানিদের রথ নামে পরিচিত। রাজবাড়ির পাশে আগে কাঠের রথ ছিল। এখন স্টিলের রথ হয়। কাঠের রথ টানতে সমস্যা হতো। কিন্তু এখন সেই সমস্যা হয় না। রথের দিন হোম-যজ্ঞের আয়োজন করা হয়। বিকেল ৪টে নাগাদ বীরহাটা কালী মন্দির থেকে রথের রশিতে টান দেওয়া হয়। সর্বমঙ্গলা মন্দিরের পাশে ধনেশ্বরী মন্দিরের পিতলের রথ শহরবাসীর কাছে আজও আকর্ষণীয়। ১২৩ বছর ধরে এখানে রথযাত্রা হয়। গোপাল জিউকে রথে চড়ানো হয়। আটদিন পর্যন্ত ধুমধাম হয়। কাঞ্চনগরেও রথযাত্রা ঘিরে উৎসবের আমেজ দেখা যায়। রথযাত্রা উপলক্ষ্যে এখানে মেলা বসে। বাসিন্দারা বলেন, এখানকার রথযাত্রাও বহু পুরনো। পিতলের রথ এলাকার বাসিন্দাদের নজর কাড়ে।
জামালপুরের কুলীন গ্রামের সঙ্গে পুরীর রথের সম্পর্ক বহু পুরনো। কবি মালাধর বসুর জন্মস্থান এই গ্রামে। স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, এই গ্রামে একসময় রথের দড়ি তৈরি হতো। সেই দড়ি পুরীতে পাঠানো হতো। রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলেন, এই গ্রামের অনেক ঐতিহ্য রয়েছে। পুরীর দড়ি এই গ্রাম থেকে যেত। এই গ্রামে চৈতন্যদেবও এসেছিলেন। রথের সময় এই গ্রাম জমজমাট হয়ে ওঠে। বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা গ্রামে ভিড় করেন। কালনাতেও রথযাত্রা ঘিরে উন্মাদনা তৈরি হয়। মঙ্গলকোট, কাটোয়া সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ধুমধাম করে রথযাত্রা হয়ে আসছে। বর্ধমানের স্বস্তিপল্লিতে আটদিন ধরে মেলা চলে। শহর ছাড়াও বাইরে থেকেও লোকজন এখানে আসেন।
বর্ধমানে শ্রীকৃষ্ণ চৈতন্য মঠের রথ। ছবি: মণিমোহন গোস্বামী
14d ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

গুরুজনের থেকে অর্থকড়ি লাভ হতে পারে। স্বার্থান্বেষী আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলুন। মনে চাঞ্চল্য।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা