রাজ্য

অন্তর্ঘাত নাকি শর্ট সার্কিট, হলং বাংলোর অগ্নিকাণ্ডে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা, সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার ও ফালাকাটা: ঐতিহ্যবাহী হলং বন বাংলো আগুনে ভস্মীভূত হওয়ার নেপথ্যে কি অন্তর্ঘাত? নাকি শর্ট সার্কিট? নাকি অন্য কোনও কারণ? একাধিক প্রশ্ন ঘুরে বেড়াচ্ছে রাজ্যজুড়ে। প্রশাসনিক মহল থেকে ভ্রমণপিপাসু সঙ্গে এলাকাবাসী— সবাই জানতে চাইছেন, কী করে ঘটল এমন ঘটনা। উত্তরের খোঁজে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গড়ে দিয়েছে বনদপ্তর। বুধবার বন দপ্তরের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব বিবেক কুমারের থেকে ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ জেনেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনান্য বন বাংলো বা পর্যটন কেন্দ্রে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।  অগ্নিকাণ্ডের আসল কারণ খুঁজে বের করার পাশাপাশি, কীভাবে হলং বন বাংলো নতুন করে গড়ে তোলা যায়, তা নিয়েও পরিকল্পনা গ্রহণের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী দিয়েছেন বলেই সূত্রের খবর। ইতিমধ্যে দপ্তরের এক সিনিয়র অফিসারকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছেন বনমন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা। এরপরে যাচ্ছেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। পরবর্তী সময়ে বনমন্ত্রী নিজে সরেজমিনে দেখতে যাবেন। যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে আগুন লাগার মূল কারণে পৌঁছতে চাইছে বন দপ্তর।
প্রাথমিক তদন্তের পর বনদপ্তরের আধিকারিকরা মনে করছেন, শর্ট সার্কিট থেকেই হলং বাংলো পুড়ে গিয়েছে। কিন্তু গত ১৬ জুন থেকে তিন মাসের জন্য সেখানে পর্যটকদের প্রবেশ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বাংলোয় কোনও পর্যটকও ছিলেন না। এখানেই প্রশ্ন, বাংলোয় এসি মেশিনে বিস্ফোরণ হল কী করে? এসি মেশিন কী চলছিল? তাহলে সেটা চালাল কে? তবে বুধবার বনমন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা বলেছেন, এসি মেশিন চলছিল, সেখান থেকেই আগুন লেগেছে, এই তথ্য কোথা থেকে এল? তদন্ত কমিটির রিপোর্ট সামনে আসুক, তারপরেই সবটা স্পষ্ট হয়ে যাবে। তবে এলাকার বাসিন্দা বিজেপি সাংসদ মনোজ টিগ্গা অভিযোগ করেছেন, এখন জঙ্গল বন্ধ। পর্যটক নেই। শোনা যাচ্ছে এসি থেকে শর্ট সার্কিটের কারণে আগুন লেগেছে। কাঠের বাংলো পুড়িয়ে দিয়ে অন্তর্ঘাত করা হতে পারে। তাঁর প্রশ্ন, নতুন করে তৈরি করে কোনও বেসরকারি সংস্থার হাতে বাংলোটি তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা কি রয়েছে?
কিন্তু বনদপ্তরের আধিকারিকরা অন্তর্ঘাতের তত্ত্ব উড়িয়ে দিয়েছেন। রাজ্যের বন্যপ্রাণ শাখার উত্তরবঙ্গের মুখ্য বনপাল ভাস্কর জেবি বলেন, আমাদের প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে, লাগাতার বৃষ্টি মধ্যে শর্ট সার্কিটের জেরেই হলং বাংলো পুড়ে গিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করছি। রক্ষণাবেক্ষণে কর্মীদের কোনওরকম গাফিলতি ছিল কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতির হিসেব চলছে।
মঙ্গলবার রাত ৯টা নাগাদ আগুন লাগে হলং বাংলোয়। আগুনে বাংলোর কনফারেন্স রুম সহ আটটি ঘর পুড়ে যায়। প্রথমে বাংলোর দ্বিতলে তিন নম্বর রুমে আগুন লাগে। ওই ঘরটি তালাববন্ধ ছিল। বনকর্মীরা আগুন নেভানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেন। তারপরেই বাংলোর এসির আউটডোর মেশিনে বিস্ফোরণ ঘটে। সঙ্গে সঙ্গে গোটা বাংলোকে আগুনের লেলিহান শিখা গ্রাস করে। পুড়ে ছাই হয়ে যায় ব্রিটিশ আমলের স্থাপত্য।  
1Month ago
কলকাতা
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

পারিবারিক সম্পত্তি সংক্রান্ত আইনি কর্মে ব্যস্ততা। ব্যবসা সম্প্রসারণে অতিরিক্ত অর্থ বিনিয়োগের পরিকল্পনা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
21st     July,   2024
দিন পঞ্জিকা