রাজ্য

নাগরিকত্ব নিয়ে হাঁকডাকই সার, মোদির মন্ত্রী শান্তনুর প্রচারপত্রে ‘উধাও’ সিএএ

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাসত: নাগরিকত্বের জন্য তাঁর দেওয়া কার্ড নাকি বিশেষ সুবিধা দেবে! বনগাঁর বিদায়ী সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের এই দাবির পরই বিজেপি প্রভাবিত অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে সেই কার্ড সংগ্রহের প্রবণতা বেড়েছিল। তারপরও কিন্তু সিএএ’র অধীনে নাগরিকত্বের আবেদন করা নিয়ে মতুয়াদের সংশয় কাটেনি। ধন্দ আরও বাড়িয়েছিল জাতীয় স্তরে বিজেপি প্রকাশিত ইস্তাহারে নাগরিকত্বের সুলুক-সন্ধান না থাকা। আর এবার সেই বিভ্রান্তিকেই বদ্ধমূল করল স্থানীয় স্তরে বনগাঁ লোকসভার বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের প্রচারপত্র। সেখানেও ‘উধাও’ নাগরিকত্ব প্রসঙ্গ। ফলে, সিএএ যে আসলে বিজেপির নির্বাচনী ‘খুড়োর কল’, তা বিশ্বাস করতে শুরু করেছেন মতুয়াদের একটা বড় অংশ। ইস্তাহারে বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের একজোড়া বন্দে ভারত ট্রেনের প্রতিশ্রুতির সঙ্গে জোড়া মেট্রোয় এ শহরকে জুড়ে দেওয়ার  প্রতিশ্রুতি বিলি করেছেন মোদি মন্ত্রিসভার সদস্য। ভোটপর্বে বিজেপির এই ‘ললিপপ’ নিয়েও শুরু হয়েছে হাসাহাসি, মশকরা।
হাইভোল্টেজ লোকসভা আসন বনগাঁয় মোট ভোটারের প্রায় ৬৪ শতাংশ মতুয়া, নমঃশূদ্র এবং অন্যান্য তফসিলি জাতিভুক্ত। সিংহভাগই উদ্বাস্তু। ভোট এলেই উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার টোপ দেয় বিজেপি। ২০১৪ ও ১৯’এর লোকসভা, ২১’এর বিধানসভার মতো এবারও তার অন্যথা হয়নি। সিএএ কার্যকর করার ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে তাতে কেউ আবেদন করেছেন কি না, সংশয় রয়েছে মতুয়াদের মধ্যে। সরকারি হিসেব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত একজনও আবেদন করেনি সিএএ’তে। ফলে কিছুটা হলেও বিড়ম্বনায় পড়েছে গেরুয়া শিবির। এমপি হিসেবে তিনি কী কী করেছেন, শনিবার সকালে তার ফিরিস্তি সমাজমাধ্যমে তুলে ধরেন শান্তনু। কিন্তু তালিকায় নেই নাগরিকত্বের সেই গ্যারান্টি। একজোড়া বন্দে ভারত ট্রেনের যে প্রতিশ্রুতি তিনি দিয়েছেন, তার একটি বনগাঁ থেকে দীঘা হয়ে পুরী যাবে। অপরটি বনগাঁ থেকে নিউ জলপাইগুড়ি। প্রতিশ্রুতির ফানুস এখানেই থামেনি। মেট্রোয় বনগাঁর সঙ্গে তিনি জুড়তে চেয়েছেন দমদম ও কল্যাণীকে। তাঁর দাবি, বিমানবন্দরও হবে কল্যাণীতে। যদিও বনগাঁর সাধারণ মানুষ বলছেন, বিজেপি প্রার্থীর এই ধরনের প্রস্তাব আসলে অশ্বডিম্ব। সদিচ্ছা থাকলে মন্ত্রী থাকাকালীনই এলাকার জন্য বড় কিছু করতে পারতেন। যে সরকার বাংলার মানুষের ১০০ দিনের মজুরি, আবাস প্রকল্পের টাকা আটকেছে, তার প্রতিনিধি শান্তনু ঠাকুর। কই, বাংলার বকেয়া নিয়ে তাঁর গ্যারান্টিতে তো এসব কিছুই নেই? 
মতুয়া মহাসঙ্ঘের নতুন সদস্য কার্ডের জন্য নেওয়া হচ্ছে ৮৫ টাকা। আর ওই কার্ড নবীকরণে এক বছরের জন্য দিতে হচ্ছে ৫০ টাকা। এই কার্ড থাকলেই নাগরিকত্বের দাবিদার হওয়া যাবে, এমন প্রচার চালাচ্ছিল বিজেপি। দলীয় প্রচারে গিয়ে শান্তনুর সদম্ভ ঘোষণা ছিল, তৃণমূলের লোককে নাগরিকত্ব দেওয়া হবে না। তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর বলেন, ‘শান্তনু ঠাকুরের প্রচার ছিল, ভোটের আগেই নাগরিকত্ব প্রদান হবে। তা তো হয়নি। তাই নাগরিকত্ব প্রসঙ্গ এড়িয়ে গিয়েছেন।’ যদিও শান্তনুর দাবি, ‘ওখানে নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা লেখা ছিল। হয়তো পোস্ট করার সময় ছবি থেকে কেটে গিয়েছে।’
2Months ago
কলকাতা
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

গৃহ পরিবেশে হঠাৎ আসা চাপ থেকে মানসিক অস্থিরতা। ব্যবসা ভালো চলবে। অনুকূল আয় ভাগ্য।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার ৮২.৭৬ টাকা৮৪.৫০ টাকা
পাউন্ড১০৭.০০ টাকা ১১০.৫২ টাকা
ইউরো৮৯.৮৮ টাকা৯৩.০৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা