কলকাতা

বর্ষার শুরুতেই শহরের একাধিক রাস্তা বেহাল, মেরামতির জন্য পুরসভাকে চিঠি দিল লালবাজার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রতি বছর বর্ষা এলে একই অবস্থা। কঙ্কালসার চেহারা বেরিয়ে পড়ে শহরের রাস্তাঘাটের। এবছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এখনও শহরে সেভাবে বৃষ্টি না হলেও বেহাল হয়ে পড়েছে বহু রাস্তা। 
শহরের প্রাণকেন্দ্র ধর্মতলার কথাই ধরা যাক। সেখানে রাস্তার উপর বিশাল গর্ত। কে সি দাস মোড়ের কাছে রাস্তার পিচের আস্তরণ উঠে গিয়েছে। বাস, পণ্যবাহী গাড়ির পাশাপাশি ছোট গাড়ির নিয়মিত যাতায়াতের ফলে দ্রুত আরও খারাপ হচ্ছে এখানকার রাস্তা। দক্ষিণে ডায়মন্ডহারবার রোডের নানা জায়গায়ও একই অবস্থা। বেহালা বাজার মেট্রো স্টেশন সংলগ্ন রাস্তা সমান নয়, ঢেউ খেলানো। রাস্তা জুড়ে অনেক গর্ত। বাসের মধ্যে যাত্রীদের রীতিমতো নাচতে নাচতে পেরতে হচ্ছে এই রাস্তা। 
লালবাজারের ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে খবর, ২৬টি ট্রাফিক গার্ডের তরফে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা করা হয়। শহরের কোন কোন রাস্তা খারাপ, খতিয়ে দেখে ট্রাফিক বিভাগ। সেই রিপোর্ট জমা পড়েছে লালবাজারে। পুলিস সূত্রে খবর, এটি একটি রুটিন কাজ। প্রতি বছরই করা হয়। সূত্রের দাবি, ৩৫টির বেশি রাস্তা চিহ্নিত করা হয়েছে। সেই রাস্তাগুলি মেরামতির জন্য কলকাতা পুরসভার কাছে তালিকা পাঠানো হয়েছে। লালবাজার জানিয়েছে, হরিশ মুখার্জি রোডের একাংশ, জেমস লং সরণি, উত্তর কলকাতার মানিকতলা, শোভাবাজার, টালা চত্বরের একাধিক রাস্তার নাম রয়েছে সেই তালিকায়। 
উল্লেখ্য, গত মাসে পুরসভাগুলিকে নিয়ে নবান্নে বৈঠকে বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি রাস্তা মেরামতির প্রসঙ্গ তোলেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শহরের বড় বড় রাস্তাগুলি প্রতি বছর বর্ষায় ভেঙে যাচ্ছে। এমনটা হবে কেন? যে সংস্থা রাস্তার তৈরির বরাত পাচ্ছে, তাদেরকেই পাঁচ বছরের মেরামতির দায়িত্ব নিতে হবে।’ রাস্তা মেরামতির টেন্ডার প্রক্রিয়া নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু, কবে শহরের রাস্তা ঠিক হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। আম জনতার বক্তব্য, বর্ষা এলে শহরের রাস্তার এই হাল হয়। খারাপ গুণমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা করার জন্যই এই অবস্থা বলে দাবি সাধারণ মানুষের।
10d ago
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

বিকল্প উপার্জনের নতুন পথের সন্ধান লাভ। কর্মে উন্নতি ও আয় বৃদ্ধি। মনে অস্থিরতা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা