কলকাতা

বিপত্তারিণী পুজো ঘিরে হাট বসেছে কলকাতায়, ফের বসবে শনিবার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এ যেন হাট বসেছে শহর কলকাতায়। মঙ্গলবার দুপুরে কালীঘাট মন্দির সংলগ্ন বড় রাস্তায় বিরাট বাজার দেখা গিয়েছে। এক পাশ ব্যারিকেড করে ঘিরে দেওয়া হয়েছে। তার ভিতর ফল-ফুল সহ নানা ধরনের পুজোর সরঞ্জাম বিক্রি হচ্ছে। বিক্রেতারা হাঁক দিয়ে ক্রেতা ডাকছেন। তার সঙ্গে বাংলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা মানুষের ভিড়ও জমেছে। ঘটনা কী? জানা গেল, এটা আসলে বিপত্তারিণী পুজোর বাজার। এ সময় প্রতি বছরই বসে এখানে, মঙ্গল ও শনিবার, এই দু’দিন। কত বছর ধরে এখানে এই বাজার বসছে, সে হিসেব কেউ মনে করে দিতে পারলেন না। প্রবীণ এক মহিলা বললেন, ‘আমি তো এখানে আসার পর থেকেই দেখছি, এরকম বাজার বসে। প্রায় ৩৫-৪০ বছরের পুরনো তো হবেই।’ এই বাজারে মূলত বিক্রি হচ্ছে ঝুড়িতে রাখা ফল। সেখানে রয়েছে আম, লেবু, আখ, শসা, নারকেল, পেয়ারা প্রভৃতি। নারকেল দিয়ে ঝুড়ির দাম ৭০ টাকা। আর নারকেল ছাড়া ৬০ টাকা। কিন্তু এই দামে তো অনেকেই কিনতে রাজি নন। তাই দেদার দরদাম শুরু হয়েছে। যদিও ক্রেতাদের বক্তব্য, ‘বাজার থেকে এই ফল কিনতে গেলে, দাম অনেক বেশি লেগে যেত। সেই তুলনায় এখানে দাম খানিকটা হলেও কম। কিন্তু মান ততটা ভালো নয়।’ এক বিক্রেতা বলছিলেন, ‘সারা বছর অন্য ব্যবসা করি। এই পুজোর সময় এখানে দোকান দিই। রাস্তার দোকানগুলোতে দাম একটু বেশি। আমাদের দোকান ভিতরে, ফুটপাতের উপর। আমাদের কাছে পাঁচ থেকে দশ টাকা দাম কম। না হলে এখানে কেউ আসবে না।’ কালীঘাট মন্দিরের এই ফুটপাতের উপর দেখা গেল, কয়েকটি জায়গায় মন্ত্রপাঠ করে পুজো হচ্ছে। শুধু তো আর ফল নয়, তার সঙ্গে ফুল, দূর্বা দেওয়া লাল ডোর, নারকেল ছাপা মিষ্টি সবই বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া গোটা এলাকাকে হাটের চেহারা দিয়েছে আইসক্রিম, খেলনার দোকান। প্রতি বছরই এখানে এই হাট বসে, কলকাতাবাসী অনেকেই তা ভুলে যান। তাই পথচলতি মানুষ শহরের বুকে এমন একটা আস্ত হাট থেকে অবাক।  নিজস্ব চিত্র
14d ago
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

চল্লিশের ঊর্ধ্ব বয়সিরা সতর্ক হন, রোগ বৃদ্ধি হতে পারে। অর্থ ও কর্ম যোগ শুভ। পরিশ্রম...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.১৭ টাকা৮৪.২৬ টাকা
পাউন্ড১০৬.৯৩ টাকা১০৯.৬০ টাকা
ইউরো৯০.০০ টাকা৯২.৪৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা