কলকাতা

শহরজুড়ে বেআইনি পোস্টার,
ব্যানার থেকে দৃশ্যদূষণ চলছে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: উল্টোডাঙা, হাডকো কিংবা কাঁকুড়গাছি মোড়– এখানে-ওখানে ঝুলে রয়েছে ‘ভোট দিন’ সংক্রান্ত হোর্ডিং। অথচ এখন শহরে কোনও ভোট নেই! পূর্ব কলকাতার বেলেঘাটা মেইন রোড বা দক্ষিণের প্রিন্স আনোয়ার শাহ কিংবা রাসবিহারী মোড়– শহরজুড়ে বিভিন্ন জায়গায় চোখে পড়বে বেআইনি ব্যানার-পোস্টার। কোথাও ট্রাফিক সিগন্যালের পোস্ট, কোথাও আবার বাতিস্তম্ভ কিংবা ফুটপাতের রেলিংয়ে ঝুলছে ছোট ছোট হোর্ডিং। এই ধরনের বেআইনি বিজ্ঞাপন সরিয়ে ফেলা হয় বলে কলকাতা পুরসভা দাবি করে। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায় না। 
পুরসভার বিজ্ঞাপন নীতি ঘোষণা অনেকদিন ধরেই ঝুলে রয়েছে। তবে কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, এ ধরনের অস্থায়ী হোর্ডিং বা বিজ্ঞাপনে চালু হয়েছে ‘কশন মানি’। পুরসভার দাবি, নির্দিষ্ট সময়সীমার পর সেগুলি খুলে না নিলে তা পুরসভাই খুলে নেবে এবং সেই টাকা ফেরত দেওয়া হবে না। কিন্তু শহর ঘুরে দেখা গেল, রক্তদান শিবির কিংবা অন্য নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যানার সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও ঝুলছে। ফের পুজো আসতে চলল, কিন্তু এখনও গতবারের পুজোর হোর্ডিং খোলা হয়নি। কোথাও আবার তা ভেঙে ঝুলছে। পুরোটাই বেআইনি, এখান থেকে পুরসভার এক পয়সাও আয় হয় না। 
মেয়র ফিরহাদ হাকিম চাইছেন শহর পরিষ্কার এবং দৃষ্টিনন্দন রাখতে যত্রতত্র বিজ্ঞাপনে ইতি টানা হোক। বারবার প্রকাশ্যে তিনি এ ধরনের অস্থায়ী বেআইনি হোর্ডিং খুলে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু তারপরেও বাস্তবের মাটিতে তার তেমন প্রতিফলন চোখে পড়ে না। বিজ্ঞাপন বিভাগের এক শীর্ষ আধিকারিক বললেন, শহরের যত্রতত্র অস্থায়ী বিজ্ঞাপন হোর্ডিং-ব্যানার টাঙানো হয়। কিন্তু সেই কাজ মিটে গেলেও তা খোলা হয় না। অনেক জায়গাতে আমরা সেগুলি খুলে ফেলি। আবার অনেক ক্ষেত্রে আমাদের সীমাবদ্ধতা থাকে। রাজনৈতিক কিংবা সমগোত্রীয় পোস্টার-ব্যানারের ক্ষেত্রে সমস্যা সব থেকে বেশি। এসবের জন্য শহর অপরিচ্ছন্ন লাগে, দৃষ্টিকটু লাগে রাস্তাঘাট।
13Months ago
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

পড়ে গিয়ে দেহে আঘাত লাগতে পারে। নিকট আত্মীয়ের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি। আয় যোগ শুভ।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৭২ টাকা৮৪.৪৬ টাকা
পাউন্ড১০৬.৬৭ টাকা১১০.১৯ টাকা
ইউরো৮৯.৪৯ টাকা৯২.৬৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা