বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিনোদন
 

স্বপ্নকে এখনও 
ধাওয়া করে চলেছি

সম্প্রতি নতুন ছবি ‘অনেক’-এর প্রচারে শহরে এসেছিলেন তিনি। এখনও নিজের টার্গেট অডিয়েন্স নিয়ে সচেতন। বিশ্বাস করেন জীবনে সাফল্য-ব্যর্থতা স্থায়ী নয়। বলিউড থেকে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি ইস্যু—রাজারহাটের এক মাল্টিপ্লেক্সে সাক্ষাৎকার দিতে বসে সব নিয়েই কথা বললেন আয়ুষ্মান খুরানা। তাঁকে প্রশ্ন করেছিলেন অভিনন্দন দত্ত।

প্রায় দু’বছর পর আপনি আবার কলকাতায়। 
হ্যাঁ, আপনাদের শহরে আসার জন্য সবসময় অজুহাত খুঁজি। করোনার জন্য মাঝে আসতে পারিনি। এখন তো পরপর ছবি মুক্তি পাচ্ছে। দর্শকও হলে যাচ্ছেন। সুযোগ পেলে আবার চলে আসব। 

‘বয় নেক্সট ডোর’ ইমেজ থেকে এবার আপনি অ্যাকশন মোডে। এই ভোলবদল কি খুব সহজ ছিল?
থিয়েটারের দিনগুলোয় আমি কিন্তু বেশ পুরুষালি চরিত্রে অভিনয় করতাম। মনে পড়ছে, কলেজে ‘অন্ধ যুগ’ নাটকে আমি অশ্বত্থামার চরিত্র করেছিলাম। শুনলে অবাক হবেন, ওই চরিত্রটার জন্য একই বছরে দশবার সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছি। 

জসুয়া চরিত্রটার জন্য কীভাবে নিজেকে তৈরি করেছিলেন?
‘চণ্ডীগড় করে আশিকি’ ছবির জন্য সুঠাম শরীর তৈরি করতে হয়েছিল। সেটাই কাজে লেগে গেল এই ছবিতে। এক মাস বন্দুক চালানোর প্রশিক্ষণ নিতে হয়েছে। ট্রেলারের প্রশংসা দেখে মনে হচ্ছে, আমি পেরেছি। 

ছবিটা উত্তর-পূর্ব ভারতের সমস্যার কথা বলে। শুনেছি, কলেজ জীবনে ওখানকার মানুষদের প্রতি বাকিদের আচরণ আপনার মনে গভীর প্রভাব ফেলেছিল। একটু বিশদ বলবেন। 
তখন আমার ব্যান্ডের একজন সদস্য ছিল উত্তর-পূর্ব ভারতের। ওর থেকে অনেক ঘটনা শুনেছি। এখনও অনেক ঘটনা কানে আসে। বলতে পারেন উত্তর-পূর্ব ভারতকে নতুন করে চিনতে আমাকে অনেকটাই সাহায্য করেছে এই ছবি। আমরা সকলেই ভারতীয় সেই বার্তাও এই ছবির মাধ্যমে দিতে চেয়েছি। 

এই অসহিষ্ণু সময় দাঁড়িয়ে দেশবাসী কি সত্যি ‘বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য’কে উদ্‌যাপন করে?
(একটু ভেবে) আমার মতে, এতদিন আমরা কেউই সেটা করিনি! সকলেই নিজের গোষ্ঠীর প্রতি শ্রদ্ধা, ভালোবাসা দেখিয়ে এসেছি। নিজের ধর্ম, ভাষা বা এলাকার জয়গান করেছি। কিন্তু ‘ভারত’ নামক এই ধারণা তো ব্যক্তিকেন্দ্রিক ধারণার ঊর্ধ্বে। ইতিহাসেও প্রমাণ আছে, যখনই সমাজ অসহিষ্ণু হয়েছে, তখন শিল্পই কিন্তু মানুষের মধ্যে ঐক্যের বোধ জাগিয়ে তুলেছে।         

হিন্দি বনাম দক্ষিণী ভাষা বিতর্কেও তো বলিউড এখন সরগরম। 
দেশের প্রতিটা ভাষাকেই সম্মান করা উচিত। হিন্দিভাষী মানুষের সংখ্যা বেশি বলে বাকিদের অসম্মান করব কেন!    

উত্তর-পূর্ব ভারতের অভিনেতাদের বলিউড একটা নির্দিষ্ট ছকে বেঁধে দিয়েছে। কী বলবেন?
অবশ্যই। শুধু তাই নয়, যেমন পাঞ্জাবি মানেই নাকি মজাদার মানুষ! বাণিজ্যিক ভারতীয় ছবির এটাই একটা বড় সমস্যা। ‘অনেক’-এ উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রকৃত ছবি তুলে ধরা হয়েছে। সিংহভাগ অভিনেতা ওখানকার। সেখানে আমি একটা চরিত্র মাত্র। 

সাম্প্রতিক অতীতে ‘৮৩’ বা ‘জার্সি’র মতো বিগ বাজেট ছবি বক্সঅফিসে অসফল। আপনার মতে এর কারণ কী?
আবার দেখুন, ‘সূর্যবংশী’  ও ‘গাঙ্গুবাঈ...’ বেশ চলেছে। মনে হয় ‘ভুলভুলাইয়া ২’ ও খুব ভালো ব্যবসা করবে। আসলে দর্শক বদলে গিয়েছেন। আগে ছিল শুধু দূরদর্শন। আজ তো সামনে অগণিত মাধ্যম। বড়-ছোটরা আলাদা আলাদা মাধ্যমে কনটেন্ট দেখছেন। আমার ধারণা, বাড়ির সকলের মনোরঞ্জন করতে পারবে এরকম ছবির প্রয়োজন বেড়েছে। 

দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি নাকি এখন বলিউডকে ছাপিয়ে গিয়েছে। আপনি সহমত?
এই উত্তর দেওয়া আমার উচিত হবে না। আমার ছবির টার্গেট অডিয়েন্স আলাদা। সেখানে নির্দিষ্ট কিছু বার্তা দেওয়ার চেষ্টা থাকে। তবে অস্বীকার করব না, ওঁরা সিঙ্গল স্ক্রিনের দর্শকদের চাহিদাটা বোঝেন। আর সাধারণ মানুষ কী চাইছে সেটা বুঝতে পারলে তো কাজটা আরও সহজ হয়ে যায়।  
     
কিন্তু আপনি প্রতিটা ছবিতে দর্শকদের মনোভাব কী করে বুঝে ফেলেন? 
(হেসে) আমার অধিকাংশ ছবি ছোট বা বড় বাজেটের মাঝে দাঁড়িয়ে। সেগুলো দুশো বা তিনশো কোটির ছবি নয়। ‘সূর্যবংশী’ বা ‘আরআরআর’-এর সঙ্গে আমার ছবির তুলনা তাই করা যাবে না।

ইচ্ছা করে না এরকম লার্জার দ্যান লাইফ ছবিতে অভিনয় করতে?
আমি তো করতেই চাই। দেখা যাক কবে সুযোগ আসে।  

গতবার সাক্ষাৎকার দিতে বসে বলেছিলেন নতুন বাংলা ছবি দেখবেন। কিছু দেখলেন?
(হেসে) এখনও সময় পাইনি। দক্ষিণী ছবিই বেশি দেখছি। তবে কৌশিকী চক্রবর্তী ও নীলাদ্রিকুমারের গান প্রচুর শুনি।   

ঠিক ১০ বছর আগে মুক্তি পেয়েছিল ‘ভিকি ডোনার’। বলিউড সফরে এই এক দশকে কী কী শিখলেন?
শেখার কোনও শেষ নেই। এই জার্নি আজও একটা অলৌকিক ঘটনা বলে মনে হয়। যা যা চেয়েছিলাম সেটা পেয়েছি। সাফল্য ও ব্যর্থতা কোনওটাই তো স্থায়ী নয়। আমার স্বপ্নকে তাই এখনও ধাওয়া করে চলেছি।

26th     May,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ