বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিনোদন
 

শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

আমেদাবাদের গান্ধী আশ্রমে বলিউড সুপারস্টার সলমন খান। —পিটিআই

বাঙালির ডিএনএতেই গান আছে

এমনটাই উপলব্ধি গায়ক-সুরকার শঙ্কর মহাদেবনের। তাঁর সঙ্গে কথা বললেন অভিনন্দন দত্ত।

 ‘কেয়া সোয়াদ হ্যায় জিন্দেগি মে...’— নয়ের দশকের চকোলেটের জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনী জিঙ্গলটা এখনও মানুষ মনে রেখেছেন। সম্প্রতি চরিত্রের অদলবদল করে নতুনভাবে নারীকেন্দ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিজ্ঞাপনটির ভিডিও তৈরি করা হয়েছে। উদ্দেশ্য দেশের মহিলা খেলোয়াড়দের জয়কে উদ্‌যাপন করা। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসায় ভেসেছেন নির্মাতারা এবং এই জিঙ্গলটির গায়ক শঙ্কর মহাদেবন। তাঁর বলিউডে কেরিয়ারের একদম শুরুর দিকের গান এটা। সেই কথা মনে করিয়ে দিতেই মুম্বই থেকে ফোনে উচ্ছ্বসিত গলায় শঙ্কর বললেন, ‘সময়ের সঙ্গে পরিবর্তনকে মেনে নিতেই হবে। ২৭ বছর আগে গানটা যখন গেয়েছিলাম, তখন বিন্দুমাত্র ধারণা ছিল না যে, এতটা জনপ্রিয় হবে। আজ তো সমাজের সর্বক্ষেত্রে মহিলারা পুরুষদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলছেন।’ শ্রোতাদের প্রতিক্রিয়া দেখে এই জিঙ্গলটি এবারে তাঁরা একটি পূর্ণাঙ্গ গানে পরিণত করতে চলেছেন বলে জানালেন শঙ্কর। ‘গানে কিছু কথা যোগ করা হবে। হয়তো ভিডিও শ্যুটও হবে। পরিকল্পনা চলছে’, বললেন তিনি।  
বেশ কয়েক বছর পর আবার জি টিভির ‘সারেগামাপা’র বিচারকের আসনে বসছেন তিনি। এই শো নিয়ে নস্টালজিক শঙ্কর। ‘আমার প্রথম গান হিট হওয়ার আগে থেকে এই শোয়ের সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। তখনকার পরিচালক গজেন্দ্র সিং আমাকে শোয়ের অনেক ইভেন্টে ডাকতেন। তাজমহল, বারাণসী কত জায়গায় পারফর্ম করেছি। গিরিজা দেবী, রশিদ খান, ইউ শ্রীনিবাস, হরিহরণ, শিবমণি— এহেন মায়েস্ত্রোরা তখন এই শোয়ের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তারপর দুটো সিজনে আমি নিজে বিচারভার সামলেছি,’ স্মৃতি রোমন্থন করলেন তিনি। শোয়ের মেগা অডিশন শেষ হয়েছে। চূড়ান্ত ৩০ জন প্রতিযোগী মূল পর্বের জন্য প্রস্তুত। ‘শয়ে শয়ে প্রতিযোগী অডিশনে এসেছিলেন। দেখছিলাম, দু-তিন জন পর পর পশ্চিমবঙ্গের কেউ না কেউ হাজির। আমি তো আবাক হয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে, আর কত বাংলার প্রতিযোগী আছেন!’
কলকাতার সঙ্গে শঙ্করের দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক। বললেন, ‘বাংলার মাটিতেই সঙ্গীত রয়েছে। আপনাদের শহরে পারফর্ম করে শ্রোতাদের থেকে যে রকম প্রতিক্রিয়া পেয়েছি, তা ভোলার নয়। আমার তো মনে হয় বাঙালিদের ডিএনএ-এর মধ্যেই সঙ্গীতের বীজ নিহিত রয়েছে।’ করোনা পরিস্থিতিতে পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর সঙ্গে জুটি বেঁধে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শঙ্কর। তাঁর কথায়, ‘আমি অজয়দার অন্ধ ভক্ত। কৌশিকীও অত্যন্ত স্নেহের। আমি আর জাকিরভাই (উস্তাদ জাকির হোসেন) যখনই কলকাতায় গিয়েছি কৌশিকী আর ওর মা আমাদের অনেক বাঙালি পদ রান্না করে খাইয়েছেন।’ ‘বন্দিশ ব্যান্ডিটস’ ওয়েব সিরিজে নিজের সঙ্গীতায়োজনে অজয় চক্রবর্তীকে দিয়ে গান গাওয়ানোর আইডিয়াটাও তাঁর মস্তিষ্কপ্রসূত বলে জানালেন শঙ্কর। বিগত দেড় বছরে করোনা ও লকডাউন সঙ্গীত জগতকে একটা বড় ধাক্কা দিয়েছে। ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও শঙ্করের অনুরোধ, ‘সমাজে যখনই কোনও বড় দুর্যোগ হয়েছে, সঙ্গীত শিল্পীরা সবসময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সঙ্গীতই মানুষকে শান্তি দেয়। আর আজ সেই শিল্পীরাই অন্ধকারে! এখন তো মানুষের প্রতিদান দেওয়ার পালা। আমার সংস্থা যতটা সম্ভব কাজ করছে।’ রিয়েলিটি শোয়ের পাশাপাশি খুব শীঘ্রই অনুরাগীদের কথা মাথায় রেখে ‘শক্তি’ গ্রুপের জনপ্রিয় ‘গিরিরাজ সুধা’ গানটিকে রেকর্ড করার পরিকল্পনা করেছেন এই সঙ্গীতকার। ‘কাজ শুরু হয়েছে। ইউ শ্রীনিবাসকে অবশ্যই মিস করব। জন ম্যাকলাফলিন, সেলভাগণেশ সহ প্রত্যেক শিল্পীই বাড়ি থেকে রেকর্ড করছেন,’ বলছিলেন তিনি।

12th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021