বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

তৃতীয় ঢেউয়ের কারণ হতে
পারে কোন ভ্যারিয়েন্ট?

পরামর্শে আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও রাজ্যের করোনা টাস্ক ফোর্সের সদস্য ডাঃ জ্যোতির্ময় পাল।

যত কাণ্ড মিউটেশনে
যে কোনও ভাইরাসের মিউটেশন হয়। এটাই স্বাভাবিক। আসলে ভাইরাস শরীরে প্রবেশ করার পর কোনও একটি কোষে সে আটকে যায়। তারপর সেই ভাইরাস নিজের অসংখ্য প্রতিলিপি বানাতে শুরু করে এবং অন্যান্য কোষকে আক্রান্ত করতে শুরু করে দেয়। এই প্রতিলিপি তৈরি করার সময় কিছুক্ষেত্রে ভাইরাসের জিনস্তরে গঠনগত কিছু ত্রুটি (এরর) ঘটে। এই ত্রুটির কারণেই ভাইরাসের জিনস্তরে কিছু গঠনগত পরিবর্তন হয়ে যায়। এই প্রক্রিয়াতেই ঘটে মিউটেশন। আর জিনস্তরে পরিবর্তনের পর যেই ভাইরাসের রূপ আমাদের সামনে আসে তাকে বলে মিউটেন্ট ভাইরাস, ভ্যারিয়েন্ট বা স্ট্রেন। মিউটেশনের পর ভাইরাসের সংক্রমণ ও মারণ ক্ষমতা বাড়তেও পারে, কমতে পারে বা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। 
একটা কথা প্রথমেই বলে নিই, প্রতিনিয়ত ভাইরাসের অসংখ্য মিউটেশন ঘটে চলেছে। বেশিরভাগ মিউটেশনেরই কোনও তাৎপর্য নেই। একেবারে হাতে গোনা কয়েকটি মিউটেশনের পর ভাইরাস নিজের চরিত্রবদল করে নেয়। চিকিৎসাবিজ্ঞান সেই সমস্ত অদলবদল নিয়েই চিন্তিত। 

করোনা ভাইরাস ও মিউটেশন
২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে সামনে আসার পর করোনা ভাইরাসের অসংখ্য মিউটেশন হয়েছে। নিরন্তন গবেষণায় দেখা মিলছে, এই অসংখ্য মিউটেশনের মাঝে কয়েকটি ভ্যারিয়েন্ট তৈরি হয়েছে যারা নিজেদের জিনস্তরে তাৎপর্যপূর্ণ বদল ঘটিয়েছে। তারাই মানবসমাজের কাছে চিন্তার। গোটা বিশ্বের চিন্তাউদ্রেকারী করোনার এই ভ্যারিয়েন্টগুলি হল— বি.১.১.৭ (আলফা), বি.১.৩৫১ (বিটা), পি.১ (গামা), বি.১.৪২৭ এবং বি.১.৪২৯ (এপসিলন), বি.১৬১৭.২ (ডেল্টা), এওয়াই.১ (ডেল্টা প্লাস)।

তৃতীয় ঢেউ
দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রায় অস্তমিত। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার পথে এগচ্ছে জনজীবন। এমন স্বস্তির পরিবেশের মাঝেই চোখ রাঙাচ্ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার খবর। তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সাবধানবাণী শোনাচ্ছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ, আইএমএ (ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন)। 

ডেল্টা, ডেল্টা প্লাস না অন্য কেউ 
সবথেকে বড় প্রশ্ন হল, করোনার ঠিক কোন ভ্যারিয়েন্টের জন্য তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে? অতীতের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা থেকে অনুমান করা হচ্ছে, সাধারণত প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউতে যেই ভ্যারিয়েন্টের জন্য সংক্রমণ বৃদ্ধি হয়েছিল, তৃতীয় ঢেউয়ের ক্ষেত্রে তাদের প্রভাব অনেকটাই কম থাকবে। কারণ এই ভ্যারিয়েন্টগুলির দ্বারা ইতিমধ্যেই বহু মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। জনগণের মধ্যে কিছুটা হলেও ইমিউনিটি তৈরি হয়ে গিয়েছে। তাই পুরনো ভ্যারিয়েন্টগুলি সেভাবে আর নতুন সংক্রমণ তৈরি করতে পারবে না। সেক্ষেত্রে চরিত্রগত দিক থেকে বদলে যাওয়া ভাইরাসই নতুন করে সংক্রমণের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে বলে ভাবা হচ্ছে। 
গোটা দেশে দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণ ছিল মূলত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। ভারতেই প্রথম এই ভ্যারিয়েন্টটি পাওয়া যায়। এই ভাইরাসের সংক্রমণের ক্ষমতা প্রথম করোনা ভাইরাসের তুলনায় প্রায় ৫০ গুণ বেশি। 
তাই প্রথম ঢেউয়ে সংক্রমণের গ্রাফ কিছুটা নীচে নামার পর হঠাৎ করে লাগামছাড়া গতিতে বাড়তে শুরু সংক্রমণ। বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টকে নিয়ে অত্যন্ত চিন্তিত। হু জানিয়েছে, ৮৫টি দেশে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এর সংক্রমণের ক্ষমতাও সব ধরনের ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় বেশি। 
তবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় সংক্রমণে ঝড় তোলার পর এবার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট নতুন করে কতটা সংক্রমণ তৈরি করতে পারবে তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। বরং সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউয়ের নেপথ্যে ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট থাকতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। ডেল্টা ভেরিয়েন্টের স্পাইক প্রোটিনে কে৪১৭এন মিউটেশন ঘটিয়ে তৈরি হয়েছে ডেল্টা প্লাস ভেরিয়েন্ট। ডেল্টা প্লাস ইতিমধ্যেই দেশের ১২টি রাজ্যে থাবা বসিয়েছে। কয়েকজন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণও হারিয়েছেন। ভারত সরকার এই ভ্যারিয়েন্টকে ‘চিন্তার কারণ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। গবেষণা চলছে পুরোদমে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক ও দপ্তর পুরো পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে। তবে এই ভাইরাসের সংক্রামক ক্ষমতা, মারণ ক্ষমতা কতটা, এই সব প্রশ্নের উত্তর এখনও মেলেনি। আগামীদিনে আরও গবেষণা প্রয়োজন। তারপরই এই সকল বিষয় সম্পর্কে জানা যাবে। তবে শুধু ডেল্টা প্লাস নয়, এখনও করোনার বহু মিউটেশন হচ্ছে। সেই সকল মিউটেন্ট ভাইরাসও তৃতীয় ঢেউয়ের পিছনে থাকতে পারে। আবার বিদেশের বহু মিউটেশনও এই দেশে এসে তাণ্ডব চালাতে পারে। 
লিখেছেন  সায়ন নস্কর 

1st     July,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021