বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিকিকিনি
 

শীতের আঁচে
বারবিকিউ

বনফায়ার, বারবিকিউ এসব ছাড়া আবার শীতকাল জমে নাকি? এবার বাড়িতেই তৈরি করুন বারবিকিউ-এর মেজাজ। মন, শখ আর ইচ্ছে ছাড়াও লাগবে কিছু জিনিসপত্র। সেসবের দাম কেমন, কোথায় পাবেন জানাচ্ছেন মনীষা মুখোপাধ্যায়।

বারবিকিউ। ছোট্ট একটা শব্দ। কিন্তু এই শব্দের অন্দরেই লুকিয়ে শীতবিকেলের ওম। অতিথি আসুন বা একলার সাধ, বারবিকিউ-এর ধোঁয়াটে গন্ধে ভরা ডাইনিং হল যে কোনও খাদ্যরসিকেরই মন টানে। শীতে বারবিকিউ পার্টির তো জুড়ি মেলা ভার। ভরদুপুর হোক, বা রাত ঠিকমতো আয়োজন করতে পারলে এই পার্টি কিন্তু জমে যেতে বাধ্য। বারবিকিউ প্রথম শুরু করে ক্যারিবিয়ান ও ফ্লোরিডার তাইনো উপজাতিরা। তাইনো ভাষায় বারবিকিউ শব্দের অর্থ ‘পবিত্র অগ্নিদেবতার উৎসমুখ’। সেখানে এই শব্দের উচ্চারণ ‘বারবিকোয়া’। যার মূল উপাদান একটা চারপেয়ে চুল্লি আর মাংস রান্নার জন্য অনেক কাঠের টুকরো।
বারবিকিউপ্রেমীরা কিন্তু এই উপাদেয় খাদ্যটির জন্য শুধুমাত্র রেস্তরাঁতেই ভরসা করেন এমন নয়। বরং, বাড়িতেও ইচ্ছে করলে বারবিকিউ বানিয়ে নিতে পারেন। মাছ-মাংস-পনিরের বাইরেও তার জন্য প্রয়োজন কিছু উপাদান। জেনে রাখা দরকার কিছু টিপস। আগে দেখে নেওয়া যাক, বারবিকিউ বানাতে কী কী উপাদান কিনে ফেলতে হবে। আজকাল বড় যে কোনও মার্কেট ও অনলাইনে ঢুঁ দিলেই এসব উপকরণ হাতের কাছে মেলে। 

বারবিকিউ চারকোল গ্রিল: বারবিকিউ বানাতে গেলে প্রথমেই খোঁজ করুন বারবিকিউ গ্রিল-এর। বাড়িতে রাখার পাশাপাশি বাইরেও নিয়ে যেতে পারবেন, এমন মাপের গ্রিল বাছুন। সাধারণত ২-৩ কেজি ওজনের গ্রিল কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ। ১০০০-১৫০০ টাকা দামের মধ্যেই এমন গ্রিল পাবেন। অনলাইনে দাম পড়বে ১০০০ টাকার মধ্যে। মজবুত কাস্ট আয়রনের তৈরি এমন গ্রিল বাড়িতে বসানো ও কোথাও নিয়ে যাওয়ার পক্ষে সুবিধেজনক। তবে বাজারে গোলাকৃতি টাব ধরনের গ্রিলারও পাওয়া যায়। সেগুলো কিনলে বাজেট ১০০০ টাকা ধরে এগন। কেউ কেউ আবার আভেন, স্কিউয়ার্স-সহ গ্রিলার কেনেন। ফ্যাবরিলা, এইচ-হাই টেক ইত্যাদি সংস্থার এমন সেট কিনলে দাম পড়বে ২৫০০-৩৫০০ টাকা।

স্কিউয়ার্স: স্কিউয়ার্সের মাপ এক এক রকম হয়। মাপ অনুযায়ী এর দামেও হেরফের হয়। ১৩ ইঞ্চি, ১৪ ইঞ্চি, ২০ ইঞ্চি ইত্যাদি নানা মাপে এই স্কিউয়ার্স পাওয়া যায়। সাধারণত ৬টি বা ১০টির সেট হিসেবে বিক্রি হয় এগুলো। কাঠের হাতলওয়ালা স্টেনলেস স্টিল দিয়ে বানানো এই স্কিউয়ার্সগুলো সংস্থাভেদে বিভিন্ন দামে মেলে। কম বাজেট হলে ভরসা করতে পারেন ডোমাম, জেভিন ফ্যাব, ইন্ডিট্র্যাডিশন ইত্যাদি সংস্থার উপর। সেক্ষেত্রে ৬-১০টি শিকের দাম পড়বে ১৮০-২৫০ টাকার মধ্যে। একটু দামি ও ভালো মানের স্কিউয়ার্স চাইলে বিটিআর, ভিজেআর, ফ্যাবরিলা ইত্যাদি সংস্থা ভালো হবে। দাম পড়বে ৪৫০-৯০০ টাকার মধ্যে। অনেকে স্টিলের বদলে বাঁশের পিকার বা স্কিউয়ার্স ব্যবহার করতে পছন্দ করেন। সেক্ষেত্রে অনেকটাই সস্তা হয়। ৫০টির প্যাকেট মিলবে ১৩০ টাকার আশপাশে। তবে বাঁশ দিয়ে তৈরি স্কিউয়ার্স এক-দু’বারের বেশি ব্যবহার করা যায় না।

টেম্পারেচার টেস্ট প্যান: বারবিকিউ বানানোর জন্য এমন টেস্ট প্যান খুব গুরুত্বপূর্ণ। খাবারটি কত ডিগ্রি টেম্পারেচারে গ্রিল হবে, যত ডিগ্রিতে উষ্ণ করতে চাইছেন, সেটা হয়েছে কিনা এসব বোঝা খুব জরুরি। তাই বারবিকিউ পার্টিতে সঙ্গে থাকুক টেম্পারেচার টেস্ট প্যান। অনলাইন বা দোকান যে কোনও জায়গা থেকেই কিনতে পারবেন। দাম পড়বে ৮০০ টাকার কাছাকাছি। 

টুল কিট: বারবিকিউ বানানোর জন্য স্প্যাচুলা, টং, ফর্ক, গ্রিল, ব্রাশ ইত্যাদি নানা জিনিসপত্র লাগে। এগুলো আলাদা আলাদা করে কিনলে দাম বেশি পড়ে ও সবকিছু মনের মতো মেলেও না। তাই এগুলোর সেট একসঙ্গে কিনে নিন। এমন টুল কিটের দাম পড়বে ১০০০ টাকার কাছাকাছি। 
কাঠকয়লা: আজকাল অনলাইনে কাঠকয়লাও অর্ডার দিয়ে এনে নেওয়া যায়। কতজন অতিথি ও মেনুর ভ্যারাইটি কত রকমের, তার উপর নির্ভর করে কতটা কাঠকয়লা লাগবে। সাধারণত তিন থেকে পাঁচজনের জন্য তিন রকম মেনু থাকলে এক-দেড় কেজি কয়লা লাগে। অতিথি ও মেনু বাড়লে কয়লার পরিমাণ বেশি লাগবে। সাধারণত ১ কেজি কয়লার দাম পড়বে ২৫০ টাকা। ৩ কেজির দাম ৩৮০ টাকা ও ৫ কেজি ওজনের কাঠকয়লার দাম পড়বে ৪৯০ টাকা।

বারবিকিউ পার্টির হরেক টিপস
• বারবিকিউয়ের ক্ষেত্রে ম্যারিনেশন অত্যন্ত জরুরি। এর উপরেই নির্ভর করে স্বাদ কেমন হবে। সাধারণত মাংস হলে অন্তত আট ঘণ্টা ও মাছ হলে দু’ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন। দই, লেবুর রস ইত্যাদি দিয়েই সাধারণত ম্যারিনেট করা হয়। কিন্তু বাজারে এখন নানা বারবিকিউ স্যস পাওয়া যায়। সেসব দিয়েও ম্যারিনেট করতে পারেন।
• অনেকে আগুন জ্বলতে শুরু করলেই তাতে খাবারের উপাদান দিয়ে দেন ঝলসে নেওয়ার জন্য। এতে কিন্তু স্বাদ ও রং ধরে না। বরং উপরের অংশ পুড়ে ভিতরে কাঁচা থেকে যায়। কয়লার আগুন দাউ দাউ করে জ্বলে যাওয়ার পরে যে লালচে আগুন তৈরি হয়, তাতেই মাছ-মাংস পোড়াতে হবে।
• লাল আগুনে মাংস ঝলসে নেওয়ার কিছুটা পরে তেল বা ঘি মাখিয়ে কম আগুনে বারবিকিউ করুন। এতে মাছ বা মাংস সঠিক ভাবে তৈরি হবে। ভিতর ও বাইরে সর্বত্র সমান তাপ গিয়ে খাদ্যকে সুসিদ্ধ করবে।
• বারবিকিউ বানানোর সময় আগুন জ্বলবে। তাই লাইভ বারবিকিউ করার সময় সিন্থেটিক পোশাক পরা 
চলবে না।
 

11th     December,   2021
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ