বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
আমরা মেয়েরা
 

একলা মায়ের মন বুঝছে সমাজও 

একক মাতৃত্ব এখন আর নতুন বিষয় নয়। অনেক মহিলাই বিয়ে না করেও একা সন্তান পালনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। তাঁদের মতে, মাতৃত্বের স্বাদ নিতে বিয়ের কী দরকার? একক মাতৃত্ব ও সামাজিক পরিবর্তন বিষয়ে বিস্তারিত জানালেন আইভিএফ স্পেশালিস্ট ডাঃ শিউলি মুখোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে কথায় কমলিনী চক্রবর্তী। 

একক মাতৃত্ব। মাত্র কয়েক বছর আগেও ব্যাপারটা প্রচলিত ছিল না। ২০১৫ সালে চিত্রপরিচালক অনিন্দিতা সর্বাধিকারী যখন একক মাতৃত্ব গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন তখন আমাদের রাজ্যে তা বেশ আলোড়ন ফেলেছিল। একজন মহিলা একাই সন্তানের সব দায়িত্ব নিতে এবং তাকে মানুষ করতে আদৌ সক্ষম কি না, সে বিষয়েও প্রশ্ন উঠেছিল। তারপর অনেকটা সময় পেরিয়ে গিয়েছে। আমাদের সমাজও এখন বেশ কিছুটা উদারমনা হয়েছে। মহিলারা নিজেদের সম্মান নিজেরাই অর্জন করে নিয়েছেন বহু ক্ষেত্রে বারবার। তবু আজও একক মাতৃত্ব আমাদের সমাজে আলোচনার বিষয়। এই প্রসঙ্গেই কথা হল এমএফসি হাসপাতালের ডিরেক্টর ও আইভিএফ স্পেশালিস্ট ডাঃ শিউলি মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে। 

 আমাদের সমাজে একক মাতৃত্বের প্রচলন ঠিক কবে নাগাদ শুরু হয়?
 একক মাতৃত্বের কনসেপ্ট কিন্তু আমাদের সমাজে নতুন নয়। অনিন্দিতা সর্বাধিকারীর ঘটনাটা প্রচারের আলো পেয়েছিল বলে লোকে ওটাকেই প্রথম একক মাতৃত্বের ঘটনা বলে জানে। কিন্তু তারও কয়েক বছর আগে কালিদাসী নামে এক মহিলা প্রথম একক মাতৃত্ব গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তবে তিনি নিজের এই সিদ্ধান্ত সর্বসমক্ষে আনতে চাননি। তাই এই নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। ফলে দেখাই যাচ্ছে যে মেয়েরা বহুকাল ধরেই একক মাতৃত্ব গ্রহণ করতে উৎসুক। মহিলাদের এই মাতৃত্ব গ্রহণের পথে অনেক সময়ই বিবাহ সেকেন্ডারি হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মেয়েরা যত বেশি স্বনির্ভর হয়েছেন ততই তাদের মানসিকতার বদল হয়েছে এবং একক মাতৃত্বের মতো সাহসী সিদ্ধান্ত নিতে তাঁরা সমর্থ হয়েছেন।

বছরে মোটামুটি কতগুলো সিঙ্গল পেরেন্টিংয়ের বিষয় আপনি সামলান?

 এই ধরুন তিন থেকে চারটে। তার মধ্যে বেশিরভাগই মহিলা। তবে এক-আধজন পুরুষও যে পাইনি তা নয়।

তাই নাকি? একক পিতৃত্বও তাহলে আমাদের সমাজে প্রচলিত?

 না, প্রচলিত বলা উচিত নয়। আমি আমার গোটা কেরিয়ারে একজন পুরুষকেই পেয়েছি যিনি একক পিতৃত্ব গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে একলা মা আর একলা বাবার ক্ষেত্রে মানসিকতার একটা তফাত থাকে। 

 কীরকম?

মহিলাদের ক্ষেত্রে একক মাতৃত্ব নিজস্ব সিদ্ধান্ত। পুরুষের ক্ষেত্রে অনেকটাই পারিবারিক। একজন মহিলা যখন ভাবেন তিনি একাই মাতৃত্বের সব ভার গ্রহণ করবেন, তখন তিনি আত্মবিশ্বাসে অটল থাকেন। পুরুষের বেলায় বেশিরভাগ সময়ই সেই বিশ্বাস অনেকটা পরিবারভিত্তিক। অর্থাৎ ছেলেদের ক্ষেত্রে পারিবারিক সমর্থনটা পুরোপুরি থাকলে তবেই তাঁরা একলা পিতৃত্বের দায়িত্ব নেওয়ার সাহস দেখান। আর মহিলাদের ক্ষেত্রে পরিবারের সমর্থন ছাড়াই তাঁরা একক মাতৃত্ব গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেন। 

 সমাজের কোন স্তরের মহিলারা মূলত একক মাতৃত্ব গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন? 

 ওই যে বললাম একক মাতৃত্বের সিদ্ধান্তটা মহিলাদের একার। ফলে সমাজ সেখানে ততটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। তবে অবশ্যই স্বনির্ভর মহিলা ছাড়া কেউ এই সিদ্ধান্ত নেন না। একমাত্র রোজগেরে মহিলারাই একক মাতৃত্ব গ্রহণ করেন। তবে সব একা মা-ই যে ভীষণ শিক্ষিত বা সমাজে উচ্চবিত্ত, তেমন নয়। একক পিতৃত্বের ক্ষেত্রে  কিন্তু শিক্ষিত এবং উচ্চবিত্ত দুটোই বড় ফ্যাক্টর। একক মাতৃত্বের ক্ষেত্রে যেটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ সেটা হল মায়ের মানসিক গঠন। তিনি যদি ঠিক করেন সন্তানের দায়িত্ব নেবেন, তাহলে মোটেই সমাজকে খুব একটা পাত্তা দেন না। বরং স্বনির্ভর ও সমর্থ হলেই তিনি তা করেন। 
 সাধারণত কোন বয়সের মেয়েরা  একক মাতৃত্ব নেওয়ার কথা ভাবেন?

 জীবনে সেটল করার পরেই মেয়েরা একক মাতৃত্ব গ্রহণ করতে চান। বহু বছরের ডাক্তারির অভিজ্ঞতায় দেখেছি যেসব মহিলা বিয়ে করেন না, তাঁরা একটা বয়স পর্যন্ত জীবনটাকে উপভোগ করতে চান। তারপর যখন সেটল করার কথা ওঠে তখন মাতৃত্ব গ্রহণ করেন। কম বয়সে ম্যাচিওরিটির অভাব থাকে বলেও হয়তো সেভাবে কেউ বিষয়টা ভাবেন না। মোটামুটি ৩৫ থেকে ৪০ বছরের মহিলারাই বেশি একক মাতৃত্ব গ্রহণে আগ্রহী হন ।
একক মাতৃত্বের ক্ষেত্রে বাবার পরিচয়...।

(থামিয়ে দিয়ে) এটা একবারেই অজানা থাকে। স্পার্ম ব্যাঙ্ক থেকে স্পার্ম নিয়ে ফার্টিলাইজেশনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। এক্ষেত্রে কোনও গোপনীয়তা রক্ষার ব্যাপারই নেই। কারণ স্পার্ম যিনি দিচ্ছেন তাঁর আইডেন্টিটি সম্পূর্ণ অজ্ঞাত থাকে।

 একক মাতৃত্বের ক্ষেত্রে মহিলাদের মানসিক গঠন কি আলাদা হয়?

 অবশ্যই। দৃঢ়চেতা, শক্ত মনের মহিলারাই একক মাতৃত্বের সিদ্ধান্ত নিতে চান। সমাজ, সংসার কোনও কিছুই তাঁদের কাছে বাধা হয়ে দাঁড়ায় না। তাছাড়া এই ধরনের মহিলারা মানসিকভাবে খুবই সচেতন হন। তাঁরা যে সিদ্ধান্ত নেন তা অত্যন্ত ভেবেচিন্তেই নেন। যত দিন যাচ্ছে ততই মহিলাদের চিন্তাভাবনার স্তরগুলো বদলাচ্ছে, এখন এমন অনেক মহিলাই আছেন যাঁরা জীবনসঙ্গীর অভাব অনুভব করেন না, বরং বিয়ে তাঁদের কাছে বড় বালাই। কিন্তু মাতৃত্বের স্বাদ নিতে কমবেশি সব মেয়েই আকুল থাকেন। ফলে একক মাতৃত্বের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। 

6th     February,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
10th     April,   2021