বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
আমরা মেয়েরা
 

দেখা হল দু’জনে

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত গায়িকা ইমন চক্রবর্তীর জীবনে বিয়ের সানাইয়ের সুর।  আগামী ২ ফেব্রুয়ারি বিশিষ্ট সুরকার নীলাঞ্জন ঘোষের  সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন তিনি। বাগদান পর্ব এবং আইনি বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে গত ১৯ অক্টোবর। করোনাকালে নিজেদের ফ্ল্যাটে ঘরোয়াভাবেই এই পর্ব সম্পন্ন করেছেন তাঁরা। তবে বিয়েটা জমাটিভাবেই করতে চলেছেন  ইমন-নীলাঞ্জন। খবরে কাকলি পাল বিশ্বাস।

আলাপ থেকে প্রণয়
কাজের সূত্রে নীলাঞ্জন ঘোেষর সঙ্গে আলাপ ইমন চক্রবর্তীর। আলাপের পরে গড়ে ওঠে বন্ধুত্ব এবং বন্ধুত্ব থেকেই তাঁদের প্রণয় পর্বের সূত্রপাত। আলাপ থেকে প্রণয় যখন বেশ জমে উঠল, তখন সম্পর্কটাকে পরিণয়ের দিকে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দু’জনে। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাগদান এবং আইনি বিয়ে আগেই সেরে নেন তাঁরা। বাগদানের দিন ইমন সেজেছিলেন গোলাপি রঙের সিল্কের শাড়িতে, মাথায় জুঁই  ফুলের মালা। আর নীলাঞ্জন পরেছিলেন সাদা পাজামা-পাঞ্জাবি।

ভালোবাসায় স্নেহের ছোঁয়া 
বেশিরভাগ মেয়েই বোধহয় জীবনের প্রথম রোলমডেল, বাবার আদলেই স্বামীকে পেতে চায়।  এক্ষেত্রে ইমনও ব্যতিক্রম নন। তিনি চেয়েছিলেন, তাঁর জীবনে যে পুরুষই  আসুন, তিনি যেন তাঁকে  ভালোবেসে আগলে রাখেন। নীলাঞ্জনের মধ্যে সেটা খুঁজে পেয়েছিলেন ইমন। তাঁর মতে, নীলাঞ্জনের ভালোবাসার মধ্যে শাসন, স্নেহ এবং দায়িত্ববোধ আছে। আইনি বিয়ে সেরে ফেলেছেন ঠিকই, তবে একসঙ্গে থাকছেন না তাঁরা। সামাজিক বিবাহ অনুষ্ঠানের পরেই একসঙ্গে থাকবেন বলে ঠিক করেছেন দু’জনে। বাগদানের  পর প্রাকবিবাহ  মধুচন্দ্রিমা অবশ্য ইতিমধ্যেই কমপ্লিট! তার খবর ও ছবি  সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন ইমন। পাহাড়ের কোলে ক’দিন প্রকৃতির সঙ্গে ভালোই কাটিয়েছেন তাঁরা।

জীবনের মাইলস্টোন
ছোটবেলায় ইমনের গান শেখা শুরু তাঁর মায়ের কাছে। যখন মাত্র সাড়ে তিন বছর বয়স, তখনই তিনি  মায়ের সঙ্গে প্রথম স্টেজে উঠেছিলেন। সেখানে তিনি গীতা দত্তর ‘কাজল কাজল কুমকুম’ গানটি গেয়েছিলেন। এরপরে গান গাওয়া চলতে থাকে। পরবর্তীকালে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে  গান নিয়ে পড়াশোনাও করেন। ইমনের জনপ্রিয়তা অবশ্য শিখর ছোঁয় ‘প্রাক্তন’ ছবির ‘তুমি যাকে ভালোবাসো’ গানটির মাধ্যমে। এই গানটির জন্যই জাতীয় পুরস্কারও পান। ফলে এই গানটিকে তিনি নিজের জীবনের মাইলস্টোন বলে মনে করেন। বর্তমানে তিনি জি বাংলার ‘সা রে গা মা পা’ অনুষ্ঠানে সংগীত গুরুর আসন সামলাচ্ছেন এবং রীতিমতো উপভোগ করছেন।

আকাশে বাতাসে বিয়ের রং
এই জনপ্রিয় গায়িকার আইবুড়ো ভাত খাওয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। কোথাও কোথাও আবার আইবুড়ো ভাতে ইমনের সঙ্গী হচ্ছেন নীলাঞ্জন! বাঙালি খাবার পছন্দ করেন ইমন। তাই তাঁর আইবুড়ো ভাতের মেনুতেও নানারকম বাঙালি পদ থাকছে। পাঁচ রকম ভাজা থেকে শুরু করে সর্ষে ইলিশ থাকছে মেনুতে। ইমন ও নীলাঞ্জনের বিয়ে এবং বউভাতের অনুষ্ঠান একদিনেই  সম্পন্ন হবে। আর পাঁচজন বাঙালি বর-বধূর মতোই তাঁরাও সাবেকি সাজই সাজতে চান। গায়ে হলুদের সময় সোনালি পাড় দেওয়া সাদা রঙের কেরল কটন শাড়ি এবং বেনারসি ব্লাউজ পড়বেন ইমন। তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নীলাঞ্জন পরবেন সাদা ও হলুদ মেশানো লিনেনের কুর্তা  আর কেরল ধুতি। মালা বদলের সময় ইমন লাল রঙের বেনারসি এবং তার সঙ্গে মানানসই সোনার গয়না পরবেন। কপালে থাকবে চন্দনের ছোঁয়া। নীলাঞ্জন পরবেন  লাল-সাদা ধুতি ও পাঞ্জাবি। বিয়ের দিন অভিষেক রায়ের ডিজাইন করা পোশাক পরবেন তাঁরা।
বিয়েতে বাঙালি পদ থাকলেও খাবারের মেনুতে ঠিক কী কী থাকবে, সেটা আপাতত সারপ্রাইজ রাখতে চান এই সেলিব্রিটি জুটি। আগামী ২রা ফেব্রুয়ারি বালি জেটিয়া  হাউসে এই জুটির বিয়ের আসর সেজে উঠবে। অধীর আগ্রহ এখন তা নিয়েই।

30th     January,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
10th     April,   2021