বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
চারুপমা
 

ফ্যাশনে  সিল্ক রুট

সিল্ক নিয়ে আড্ডা হচ্ছিল পার্ক স্ট্রিটের অক্সফোর্ড বুকস্টোরে। অতিথি ফরাসি টেক্সটাইল শিল্পী ইসাবেল মৌলিন। বাংলার মুর্শিদাবাদ সিল্ককে বিশ্বের মানচিত্রে তুলে ধরতে চান তিনি। তাঁর সাক্ষাৎকারে কমলিনী চক্রবর্তী। 

ইসাবেল মৌলিন। ফরাসি এই ফ্যাশন ডিজাইনার নিজেকে টেক্সটাইল আর্টিস্ট বলতেই পছন্দ করেন। সিল্ক নিয়ে তাঁর গবেষণা, পড়াশোনা ও কাজ। ভারতের সঙ্গে ফ্রান্সের একটা ‘সিল্কি রুট’ স্থাপন করতে চান তিনি। ভারতীয় ফ্যাশন ও সেই ফ্যাশনে সিল্ক ফ্যাব্রিকের অবস্থান বিষয়ে বিশেষ আগ্রহ রয়েছে তাঁর। বেঙ্গালুরু সিল্ক ও মুর্শিদাবাদ সিল্ককে বিশ্বের মানচিত্রে তুলে ধরাই তাঁর উদ্দেশ্য। সম্প্রতি তাঁর বই, ‘ইমপ্রেশনস ইন্ডিয়েনেস’-এর প্রকাশ অনুষ্ঠানে কলকাতার অক্সফোর্ড বুকস্টোরে এসেছিলেন ইসাবেল। সেখানেই তাঁকে পাওয়া গেল আড্ডার মেজাজে।  

ভারতের সঙ্গে সিল্কি রুট-এর যাত্রা কীভাবে এবং কবে শুরু করেছিলেন?
২০১৯ সালে দিল্লি থেকে শুরু হয় এই যাত্রা। সেবার শুধুই দিল্লি, বেনারস আর লখনউ ঘুরে সিল্ক বোনা এবং সেই ফ্যাব্রিকের তারতম্য বোঝার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু মহামারী এসে জীবন স্তব্ধ করে দিল। তখন যেটুকু দেখেছিলাম তাতেই মুগ্ধ হয়েছি। এখন পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক। ফলে আবার সিল্কি জার্নি শুরু। এবার বেঙ্গালুরু দিয়ে শুরু করেছি। নেক্সট টার্গেট মুর্শিদাবাদ।

যতটা দেখেছেন তাতে মুর্শিদাবাদি সিল্ক সম্বন্ধে আপনার মতামত কী?
এবিষয়ে এখনও আমায় প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে। তবে যতটা দেখেছি তাতে মনে হয় মুর্শিদাবাদের সিল্কের ফিল এবং টাচ দুটোই অন্যান্য সিল্কের তুলনায় আলাদা। এখানকার সিল্কের এই বিশেষ ফিল গরমেও একটা সতেজ আমেজ ধরে রাখতে পারে, সেটা অন্য কোনও জায়গার সিল্কে  পাওয়া যায় না। মুর্শিদাবাদের সিল্ক নিয়ে আরও অনেক বেশি কাজ হওয়া দরকার। আমার মনে হয় এই সিল্কের ওপর বিভিন্ন ধরনের প্রিন্ট করা সম্ভব। যেমন আমি লিয়ঁ-র সিল্কের ওপর জ্যাকার্ড পাঞ্চকার্ড প্রিন্ট করেছি। আধুনিক লুক এনেছি ডিজাইনে। তেমনই মুর্শিদাবাদের সিল্ক নিয়েও অনেক এক্সপেরিমেন্ট করা যায়। পরবর্তীতে আমার সেরকম কাজ করার ইচ্ছে আছে।

 সিল্ক নিয়ে পড়াশোনা করার ইচ্ছে হল কেন?
আমি ফ্রান্সের ছোট্ট শহর লিয়ঁ-তে জন্মেছি। ফ্রান্স যে ইউরোপের ‘ফ্যাশন কান্ট্রি’ তা তো বলাই বাহুল্য। তার মধ্যে লিয়ঁ আবার সিল্কের রাজধানী। সেই পরিবেশে বড় হয়ে আমার যে সিল্কের প্রতি বিশেষ আকর্ষণ থাকবে তা আর আশ্চর্য কী?

সিল্কি রুট তৈরি করার কথা ভাবলেন কেন? 
আইডিয়াটা কিন্তু আমার মস্তিষ্কপ্রসূত নয়। বহু আগে আমি যখন টেক্সটাইল নিয়ে পড়াশোনা করতে শুরু করি তখনই দেখেছিলাম ফ্রান্সের সঙ্গে জাপানের সিল্ক নিয়ে একটা বন্ধুত্ব রয়েছে। জাপানের সিল্কের ধরন ও সেই দিয়ে তৈরি পোশাকের ডিজাইন নিয়ে গবেষণা হতে দেখেছি আমি। সেই গবেষণা দেখেই সিল্ক টেক্সটাইল বিষয়ে আগ্রহ বাড়ে। তারপর পড়াশোনা করতে গিয়ে দেখলাম যে ভারত সিল্ক ফ্যাব্রিকের আকর। সেই নিরিখে ভারতকে সিল্কের মহাদেশ বললেও ভুল হবে না।  সিল্কের কত ধরন বোনা হয় এই দেশে! অথচ সে বিষয়ে চর্চা কম। বিশ্বের মানচিত্রে সিল্ক ফ্যাব্রিক বোনার ইতিহাসে ভারতের উল্লেখযোগ্য জায়গা থাকা উচিত। সেটাই তৈরি করতে চাই। 

ভারত এবং ফ্রান্সের সিল্ক ফ্যাব্রিকের তফাত কোথায়?
আমাদের সিল্ক অনেক বেশি প্রসেসড। ফলে তাতে একটা মসৃণ ভাব আসে। আর ভারতে সিল্কের সবরকম পাওয়া যায়। কোনওটা মোটা, কোনওটা পাতলা, কোনওটা মসৃণ, কোনওটা বা খড়খড়ে। ধরন অনুযায়ী সিল্কের নামও ভারতে বিভিন্ন— তসর, ঘিচা, মটকা ইত্যাদি। কিন্তু যে নামেই ডাকুন না কেন সিল্কের মহিমা সর্বত্র বিরাজমান। 

ডিজাইনগত দিকে সিল্ক ফ্যাব্রিক কতটা এগিয়ে?
সিল্ক অভিজাত, সিল্ক দামি। তাই সিল্ক নিয়ে পরীক্ষাও বেশি হয়েছে। তাতে ডিজাইনের সংখ্যাও বেড়েছে। তবে আমার মনে হয় সিল্ক ফ্যাব্রিক বোনা ও তাতে নকশার ব্যাপারে আরও বেশি সৃষ্টিশীল হওয়া প্রয়োজন। তার মাধ্যমেই বিভিন্ন সংস্কৃতি ও শিল্পকে একত্রিত করা সম্ভব। যেমন সিল্কে ভারতীয় ফ্লোরাল বুননের সঙ্গে বিদেশি অ্যাবস্ট্র্যাক্টকে মিশিয়ে যদি একটা নতুন নকশা বোনা যায় তাহলে সেটা হবে অভিনব কাজ। প্রাচ্য এবং পাশ্চাত্যের পোশাকের ফিট, লুক ইত্যাদি নিয়েও কাজ দরকার। মাদার ডিজাইনের যত বেশি ভাঙচুর হবে ততই ফ্যাশন ও টেক্সটাইল উন্নত হবে। 

সিল্ক ফ্যাব্রিকের ডিজাইনে ভারত এবং ফ্রান্সের তফাৎ কোথায়?
ডিজাইনের দৃষ্টিভঙ্গি দু’টি দেশে পুরোপুরি আলাদা। ফ্রান্সের ডিজাইন উন্মুক্ত করতে চায়। আর ভারতের ডিজাইন ঢাকতে চায়। দুটো ডিজাইনের রকম আলাদা। কোনও দেশকেই এগিয়ে বা পিছিয়ে রাখব না। বরং আমি তো বলব দৃষ্টিভঙ্গির নিরিখে ভারতীয় স্টাইল অনেক বেশি অভিজাত। একদিন সেই আভিজাত্য বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে। শুধু ভারতে নয়, শাড়ির কদর করবে গোটার পৃথিবীর মেয়েরা। সেই দিনটির অপেক্ষায় রইলাম।

16th     April,   2022
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ