বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
চারুপমা
 

শীত ঠেকাতে 
বাহারি মোজা

দেখতে ছোট হলেও সাজের অঙ্ক বদলে দিতে পারে ছোট্ট একজোড়া মোজা। বাহারি মোজায় ভর দিয়ে হয়ে উঠুন ফ্যাশনিস্তা। লিখছেন মনীষা মুখোপাধ্যায়।

সে     দাঁড়িয়ে ফ্যাশন-ঘরের একেবারে কোনার দিকে। কেউ দেখে, কেউ খেয়ালই করে না। খেয়াল করে বড়দিন এলে। 
এদিন সান্তাক্লজ তার শরীরের ভিতরেই রেখে দিয়ে যায় কচিকাঁচাদের উপহার। সে মোজা। হালে ফ্যাশনে উপেক্ষিত হলেও ইতিহাস বলছে, মানুষের আদিমতম ফ্যাশন এই মোজা। প্রাচীন প্রস্তর যুগে গুহামানবের সময় থেকেই তার অস্তিত্ব রয়েছে। গুহার গায়ের ছবিই তার প্রমাণ। তখন অবশ্য পশুর চামড়া বা গাছের পাতাকে কায়দা করে জড়িয়ে রাখা হতো পায়ে। একে বলা হতো পিলোই। পঞ্চম শতাব্দীতে এসে ইউরোপের লোকরা আভিজাত্যের প্রতীক হিসেবে মোজা পরতেন। তখন তার নাম ছিল ‘পুট্টিস’। এক হাজার শতাব্দীতেও মোজা ছিল আভিজাত্যের প্রতীক। 
পুরনো সেই আভিজাত্য ফের ধীরে ধীরে ফিরছে হালফ্যাশনের ঘরে। শীতের হাওয়ায় নাচন লাগিয়ে মোজা হয়ে উঠছে ফ্যাশনিস্তাদের সাজের অন্যতম অঙ্গ। রকমফের আর প্রয়োজন অনুযায়ী বেছে নিলেই হল।
স্টকিংস: পার্টির মরশুমে শর্ট  ড্রেস হোক বা আউটিংয়ের মিড লেন্থ ড্রেস, দুইয়ের সঙ্গেই দিব্য মানিয়ে যায় স্টকিংস। আজকাল ফ্যাশনে ফিরে আসা মোজা কিন্তু রং আর প্যাটার্ন দিয়ে বাজিমাত করছে। পোশাকের সঙ্গে কনট্রাস্ট করে মোজা পরার চল শুরু হয়েছে। এই স্টাইল বেশি জনপ্রিয় স্টকিংসের ক্ষেত্রেই। সুতি বা নেটের বদলে আজকাল নানা জ্যামিতিক নকশার স্টকিংস উঠেছে। সেগুলোয় একইসঙ্গে অনেক রং। 
যে কোনও একরঙা হালকা রঙের ড্রেসের সঙ্গে পায়ে গলিয়ে নিন একটা এমন স্টকিংস। ব্যস, সেই সন্ধ্যার শো-স্টপার কিন্তু আপনিই।  সারারাতের পার্টি বা আর একটু নজরকাড়া সাজতে চাইলেও চিন্তা নেই! স্টকিংস কিনুন রামধনু রঙের। ওয়ার্ডরোবে কালো স্টকিংস থাকলে, তা পরতে পারেন কোনও সাইড স্লিট স্কার্ট,ঢিলেঢালা ব্লেজার বা মিডি-র সঙ্গে।
টো সক্স: মোজাদের মধ্যে আজকাল সবচেয়ে বেশি ব্যবহার এদের। টো সক্সকে ফিংগার সক্স বা সাদা বাংলায় আঙুলওয়ালা মোজাও বলে। তবে আঙুলওয়ালা মিড লেন্থ মোজার থেকে এদের দৈর্ঘ্য কম হয়। নি লেন্থ সাইজের কয়েকটা টো সক্স কিনে রাখলে নিত্য ব্যবহারে কাজে আসে। এগুলো নাইলন, সুতি ও সিন্থেটিক তিন ধরনের ফেব্রিকেই পাওয়া যায়। নাইলন সক্স তুলনামূলকভাবে আরামদায়ক। এর দামও একটু বেশি। তবে পায়ের যত্ন ও আরামের কথা ভাবলে সুতির মোজাই সেরা। আজকাল উলের টো সক্সও পাওয়া যায়। কুরুশে বোনা উলের টো সক্স পরতে পারেন যে কোনও ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে। শাড়ি পরলে বেছে নিন নাইলন বা সুতিকে। ত্বক বিশেষজ্ঞদের কথা মানলে কিন্তু সিন্থেটিক মোজা দীর্ঘক্ষণ পরে থাকার জন্য ভালো নয়। 
স্লিপার সক্স: একমাত্র শীতেই এমন সক্সের ব্যবহার দেখা যায়। বাড়িতে থাকলে এই ধরনের স্লিপার সক্স খুব ভালো। ঘরে পরার জুতোর মতো দেখতে এই মোজা পায়ে দিয়ে থাকতে পারেন সারাদিন। পা ফাটা কমবে, আর্দ্রতাও বজায় থাকবে। আজকাল উলের স্লিপার সক্স খুব উঠেছে। শ্যু কাট ফ্লোরাল প্রিন্ট, রংচঙে জিওমেট্রিক্যাল লুকের স্লিপার সক্স এবার ফ্যাশনে ইন। 
পশ্চিমী দোসর: চিনোজ, থ্রি কোয়ার্টার্স, কেপ্রি বা লেগিংসের সঙ্গে পরতে পারেন ব্যালেরিনা সক্স। এই মোজা লং ড্রেসের সঙ্গেও খুব মানায়। প্রিন্টেড স্কার্টের সঙ্গে একটু হিল পরতে চাইলেও ব্যালেরিনা হতে পারে আপনার সঙ্গী। 
তবে ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে সলিড কালারের পা ঢাকা পাম্পস পরলে সঙ্গে নো শো সক্স পরতে পারেন। স্ট্র্যাপি হিলসও এই ধরনের মোজায় মানাবে। তবে এমন মোজায় পার্টিতে যেতে চাইলে সেক্ষেত্রে সলিড রং এড়িয়ে চলুন। বরং গ্লসি প্রিন্টেড বা স্ট্রাইপড মোজা বাছুন। 
 

25th     December,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ