বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
অমৃতকথা
 

দেশ

এইবার “দেশের ও দশের” এবং তাঁহাদিগের প্রতিনিধিগণের নিকট এই অকিঞ্চনেরও একটা অতিশয় গুরুতর নিবেদন আছে। বিবিধ কারণে— দেশের এইরূপ মহাসন্ধিক্ষণে আমার এই নিবেদনের গুরুত্ব সম্বন্ধে সকলে একমত না হইতে পারিলেও আশাকরি ইহা যে অসঙ্গত বিবেচনায় কাহারও নিকট উপেক্ষিত হইবে না। দেশের এই মহাবিপদের সময় সাধারণের “শ্রীরামকৃষ্ণ মিশন” ও কতিপয় “সেবাসমিতি”র কথাই কেবল মনে হয়। দেশে যে কয়টী “সেবা-সমিতি” আছে সহৃদয় ভদ্র গৃহস্থগণের দানেই তাহা পরিচালিত হয়। সাধারণে “সমিতির”র সদস্যগণকে অর্থ দিয়া সাহায্য না করিলে, তাঁহারা দেশের কোন উপকারই করিতে পারেন না। কী গভীর পরিতাপ ও আক্ষেপের বিষয় যে, পুনঃ পুনঃ নানারূপ বিপদ্‌জালে নিপাতিত হইয়াও মোহান্ধ ও আত্মবিস্মৃত ছোট বড় ও ইতর, ভদ্র জনসাধারণ এখনও বুঝিতে পারে নাই যে, তাহাদের আশা ভরসা ও মুক্তিস্থল—দেশের কোথায় লুক্কায়িত রহিয়াছে। (স্বদেশোন্নতির একটী প্রধান “সোপান” যে সাধারণের অজ্ঞাতসারে কোথায় আছে এবং তাহার সন্ধানে এখনও দেশের কাহারও প্রবৃত্তি হয় নাই।) এত বিপদে পড়িয়াও হতভাগ্য দেশের লোক জানে না যে তাহাদের “রক্ষাকবচ” নিজ দেশের মধ্যেই কোথায় হারাইয়া রহিয়াছে। সেই “রক্ষা কবচ” না হারাইলে আজ দেশে বিবিধ আকস্মিক বিপদের সময়,—আমাদিগকে এইরূপ নিদারুণ কষ্ট ভোগ করিতে হইত না। দেশের নেতাগণ জনসাধারণের সহিত মিলিত হইয়া দেশের এই “রক্ষা কবচ” সন্ধান করিয়া যদি তাহার উদ্ধার সাধন করিতে পারেন তাহা হইলে অচিরেই দেখিবেন যে, তাহাদিগকে আর দেশের বিপদ্‌কালে এইরূপ বিব্রত হইতে হইবে না। রাজা-প্রজা উভয়েই ব্যয় সামঞ্জস্য করিয়া অপেক্ষাকৃত নিরুদ্বেগে, দেশের এইরূপ আকস্মিক জীবন সমস্যার সমাধান করিতে সমর্থ হইবেন। আমাদের দেশের সন্ন্যাসী, বৈষ্ণব ও বিভিন্ন সম্প্রদায়-ভুক্ত মোহান্তগণের যতগুলি মঠ, মন্দির ও দেবোত্তর সম্পত্তি আছে দেশের ইতর ভদ্র জনসাধারণের কি এই মহাজীবন সমস্যার দিনেও একবারও মনে পড়ে না যে, এইরূপ বিপদ্‌কালে তাহাদের মান সম্ভ্রম ও জীবন রক্ষা করিবার একমাত্র আশ্রয় ও ভরসা স্থল দেশের “রক্ষা কবচ” স্বরূপ ঐ সকল মঠ মন্দিরেই আছে। এখনও সেই “রক্ষা-কবচের” দিকে দেশের কাহারও দৃষ্টি আকৃষ্ট হয় নাই দেখিয়া মহা বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ হইতেছি। আসন্ন মহা বিপদ জাল হইতে মুক্ত হইবার জন্য দেশের সমৃদ্ধ মঠ, মন্দির ও প্রতিষ্ঠান হইতে কেন কিছু সাহায্য পাইতেছি না? আজ বাঙ্গলার শ্রীতারকেশ্বর মঠের মোহান্ত মহারাজ তাঁহার অগাধ ঐশ্বর্য্যের যৎকিঞ্চিৎ সদ্ব্যয়ে এখনও দেশের এই [যে] মহা অন্ন-বস্ত্র সংকটে সেখানে অগ্রসর হইতেছেন না কেন? মোহান্ত মহারাজের তত্ত্বাবধানে আজও তাঁহার “শ্রীতারকেশ্বর সেবাসমিতি” অন্ন-বস্ত্র লইয়া বিপন্ন দেশে গিয়া উপস্থিত হয় নাই কেন? আর কবে তাঁহাদের এই নিষ্ক্রিয় ভাবের অবসান হইবে?
স্বামী অখণ্ডানন্দের ‘রচনা সংকলন’ থেকে

15th     November,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ