বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
অমৃতকথা
 

বিভূতিযোগ

শ্রীভগবান্‌ বলিলেন—হে মহাবাহো, তুমি আমার বাক্যশ্রবণে আনন্দিত হও। সেইজন্য আমি তোমার শ্রেয়ঃকামনায় উৎকৃষ্ট তত্ত্বকথা, পুনরায় বলিতেছি, তাহা মনোযোগ সহকারে শ্রবণ কর। ব্রহ্মাদি দেবতা বা ভৃগু প্রভৃতি মহর্ষি কেহই আমার উৎপত্তি অবগত নহেন। কেন না, আমি দেবতাবৃন্দ ও মহর্ষিগণের সর্বপ্রকারে আদি কারণ। যিনি আমাকে আদিহীন, জন্মরহিত ও সর্বলোকের মহেশ্বর বলিয়া জানেন, মনুষ্যমধ্যে তিনিই মোহশূন্য হইয়া জ্ঞানাজ্ঞানকৃত সর্বপাপ হইতে প্রমুক্ত হন। অন্তঃকরণের সূক্ষ্মবিষয়ের বোধসামর্থ্য, আত্মাদি পদার্থের জ্ঞান, প্রত্যুৎপন্নমতিত্ব, ক্ষমা, সত্য, বাহ্যেন্দ্রিয় ও অন্তরিন্দ্রিয়ের সংযম, সুখ, দুঃখ, জন্ম, মৃত্যু, ভয়, অভয়, অহিংসা, সমচিত্ততা, সন্তোষ, তপস্যা, দান, ধর্মনিমিত্ত কীর্তি ও অধর্মনিমিত্ত অকীর্তি—এই সকল ভিন্ন ভিন্ন ভাব প্রাণিগণের স্ব স্ব কর্মানুসারে আমা হইতেই উৎপন্ন হয়। ভৃগু প্রভৃতি সপ্ত মহর্ষি, পুরাকালে সনকাদি চারিজন মহর্ষি এবং স্বায়ম্ভূবাদি চতুর্দশ মনু আমার সঙ্কল্পজাত (মানসপুত্র) এবং মদ্‌গতচিত্ত বলিয়া আমার শক্তিসম্পন্ন মনুগণ ও ভৃগু প্রভৃতি মহর্ষি এই জগতের স্থাবরজঙ্গমাদি সকল প্রজা সৃষ্টি করিয়াছেন। যিনি আমার এই বিভূতি ও যোগ যথার্থরূপে জানেন তিনি অবিচলিত সম্যগ্‌দর্শন (তত্ত্বজ্ঞানস্থৈর্য) লাভ করেন, ইহাতে কোনও সন্দেহ নাই। আমি (বাসুদেবাখ্য ব্রহ্মমূর্তি) সমস্ত জগতের উৎপত্তিস্থান, আমা হইতে সমস্তই প্রবর্তিত হয়—ইহা জানিয়া তত্ত্বজ্ঞানিগণ পরমার্থতত্ত্বে অভিনিবেশপূর্বক আমার ভজনা করেন। যাঁহারা মন আমাকে অর্পণ করিয়াছেন ও যাঁহাদের চক্ষুরাদি ইন্দ্রিয় আমাতে উপসংহৃত হইয়াছে, তাঁহারা পরস্পরের মধ্যে জ্ঞান, বল ও বীর্যাদিবিশিষ্ট আমার কথাপ্রসঙ্গ করিয়া ও মদ্‌বিষয় পরস্পরকে বুঝাইয়া পরম সন্তোষ ও বিপুল আনন্দ লাভ করেন। যাঁহারা নিত্যযুক্ত হইয়া অর্থিত্বাদি পরিত্যাগ করিয়া কেবল প্রীতিপূর্বক আমার ভজনা করেন, আমি তাঁহাদিগকে আমার তত্ত্ববিষয়ক সম্যক্‌ জ্ঞান প্রদান করি। এই সম্যক্‌ জ্ঞানের দ্বারা তাঁহারা আমাকে আত্মরূপে উপলব্ধি করেন। সেই ভক্তগণের প্রতি অনুগ্রহবশেই আমি তাঁহাদের বুদ্ধিতে আরূঢ় হইয়া তাঁহাদের সম্যগ্‌দর্শন (তত্ত্বজ্ঞান) জনিত উজ্জ্বল বিবেকরূপ প্রদীপ দ্বারা তাঁহাদের অবিবেক জনিত মিথ্যাজ্ঞানরূপ মোহান্ধকার নাশ করি। 
অর্জুন বলিলেন—হে ভগবান্‌, আপনি পরমব্রহ্ম, পরম ধাম ও পরম পাবন। আপনি সর্বব্যাপী, সনাতন, জন্মরহিত, দিব্যপুরুষ ও আদিদেব। বশিষ্ঠাদি ঋষিগণ ও দেবর্ষি নারদ এবং অসিত, দেবল ও ব্যাসদেব আপনাকে এইরূপে বর্ণনা করিয়াছেন এবং আপনি নিজেও আমাকে এইরূপ বলিতেছেন। হে কেশব, আপনি আমাকে যাহা বলিতেছেন, তাহা আমি সত্য বলিয়া মনে করি।
‘শ্রীমদ্ভগবদ্‌ গীতা’ থেকে

13th     September,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ