বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
অমৃতকথা
 

গুরু

‘গুরু’ কথাটি শোনা মাত্রই অনেকেরই মানসপটে একটি কৌতুকব্যঞ্জক চিত্র ভেসে ওঠে—দীর্ঘ শ্মশ্রু, গুম্ফ মণ্ডিত, আলখাল্লা পরিহিত অদ্ভুতদর্শন এক বৃদ্ধ ব্যক্তি, যিনি এক সুদূরপরাহত রহস্যপূর্ণ সত্যের ধ্যান করছেন। কেউ কেউ আবার মনে করেন যে, তিনি হচ্ছেন মানুষকে বোকা বানিয়ে তাদের ধনসম্পদ হস্তগত করার ব্যাপারে অত্যন্ত সুদক্ষ একজন মানুষ, যিনি পারমার্থিক তত্ত্ব সম্বন্ধে জিজ্ঞাসু ছেলে-মেয়েদের সরলতার সুযোগ নিয়ে তাঁর নিজের পুঁজি বাড়াচ্ছেন। কিন্তু আসলে গুরু কি? তিনি এমন কি জানেন? যা আমরা জানি না? তিনি কিভাবে আমাদের জ্ঞানের আলোক প্রদান করেন? ১৯৭৩ সালে ইংল্যান্ডে একটি আলোচনায় শ্রীল প্রভুপাদ এই প্রশ্নগুলির উত্তর প্রদান করেছেন।
ওঁ অজ্ঞানতিমিরান্ধস্য জ্ঞানাঞ্জনশলাকয়া।
চক্ষুরুন্মীলিতং যেন তস্মৈ শ্রীগুরুবে নমঃ।।
“অজ্ঞানের গভীরতম অন্ধকারে আমার জন্ম হয়েছিল, এবং আমার গুরুদেব জ্ঞানের বর্তিকা দ্বারা আমার চক্ষু উন্মীলিত করেছেন। সেই গুরুদেবকে আমি আমার সশ্রদ্ধ প্রণতি নিবেদন করি।” অজ্ঞানকে ‘অন্ধকার’-এর সঙ্গে তুলনা করা হয়। এই ঘরের সমস্ত আলোগুলি যদি এখন নিভে যায়, তা হলে আমরা বলতে পারব না আমরা কোথায় বসে আছি, আর অন্যরাই বা কোথায় বসে আছে। তখন সব কিছু বিভ্রান্তিকর হয়ে উঠবে। তেমনই, আমরা সকলে এই জড় জগতের অন্ধকারে পতিত হয়েছি, যা হচ্ছে তমসাচ্ছন্ন। তমস বা তিমির মানে হচ্ছে ‘অন্ধকার’। এই জড় জগৎ অন্ধকারাচ্ছন্ন এবং তাই এই জগৎকে আলোকিত করার জন্য সূর্য অথবা চন্দ্রের কিরণের প্রয়োজন হয়। কিন্তু আর একটি জগৎ রয়েছে, চিৎ-জগৎ, তা এই অন্ধকারের ঊর্ধ্বে। সেই জগতের বর্ণনা করে শ্রীকৃষ্ণ ভগবদ্‌গীতায় বলেছেন—
ন তদ্‌ ভাসয়তে সূর্যো ন শশাঙ্কো ন পাবকঃ।
যদ্‌ গত্বা ন নিবর্তন্তে তদ্ধাম পরমং মম।।
“আমার সেই ধাম সূর্য, চন্দ্র অথবা বিদ্যুতের দ্বারা আলোকিত নয়। একবার কেউ সেখানে গেলে, তাকে আর এই জড় জগতে ফিরে আসতে হয় না।” গুরুদেবের কর্তব্য হচ্ছে তাঁর শিষ্যদের অন্ধকার থেকে আলোকে নিয়ে আসা। বর্তমানে সকলেই অজ্ঞানের প্রভাবে দুঃখকষ্ট ভোগ করছে, ঠিক যেমন অজ্ঞানের প্রভাবে মানুষের রোগগ্রস্ত হয়। কেউ যদি স্বাস্থ্যরক্ষার নীতিগুলি না জানে, তা হলে সে বুঝতে পারে না কিভাবে সে কলুষিত হয়। এইভাবে অজ্ঞানের প্রভাবে রোগের ছোঁয়াচ লাগে এবং সেই রোগের জন্য আমরা কষ্টভোগ করি। একজন আসামী বলতে পারে, “আমি আইন জানতাম না,” কিন্তু তা বলে সে তার অপরাধ থেকে রেহাই পাবে না।
স্বামী প্রভুপাদের ‘আত্মজ্ঞান লাভের পন্থা’ থেকে

23rd     June,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ