বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
শিল্প -বাণিজ্য
 

চটকলে ১ লক্ষ শূন্যপদ, কারণ
খুঁজতে ওয়ার্কশপ শ্রমমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সরকারি এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কেই নথিভুক্ত বেকারের সংখ্যা ৩৬ লক্ষ। এর বাইরেও আরও বহু লক্ষ কর্মহীন যুবক-যুবতী রয়েছে বাংলায়। কিন্তু তা সত্ত্বেও রাজ্যের চটকলগুলিতে প্রায় এক লক্ষ খালি পদে উপযুক্ত লোক খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এই বৈপরীত্যের ছবি দূর করতে এবার শ্রমদপ্তর আদাজল খেয়ে ময়দানে নামল। সোমবার স্বয়ং মন্ত্রী বেচারাম মান্না তাঁর দপ্তরের প্রধান সচিব বরুণ রায়, শ্রম কমিশনার জাভেদ আখতার, অতিরিক্ত কমিশনার তীর্থঙ্কর সেনগুপ্ত এবং এমপ্লয়মেন্ট ডিরেক্টর অমরনাথ মল্লিককে মঞ্চে বসিয়ে চটকল মালিকদের মুখোমুখি বসে রীতিমতো ওয়ার্কশপ করলেন এই সমস্যার কারণ খুঁজতে।
সব পক্ষের মতামত শুনে মন্ত্রীর সাফ নিদান, সময় নষ্ট না করে চলতি সপ্তাহেই ফের মালিক সংগঠন আইজেএমএ’র প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করে চূড়ান্ত পথ বের করতেই হবে। কারণ, এই উদ্যোগের পিছনে দু’টি মূল কারণ রয়েছে। প্রথমত, রাজ্যের চটশিল্পকে যে করে হোক বাঁচাতেই হবে। সিন্থেটিক লবির থাবা থেকে বাংলার এই ঐতিহ্যবাহী শিল্পকে রক্ষা করতে হলে চটকলগুলির উৎপাদন ক্ষমতা ১০০ শতাংশে নিয়ে যেতে হবে। আর তা করতে হলে কাঁচাপাটের পাশাপাশি এই শূন্যপদে লোক নিয়োগ করতেই হবে। দ্বিতীয়ত, রাজ্যের বেকারদের কর্মসংস্থানের বড় সুযোগ রয়েছে এই শিল্পে। দুই বা তিন ধাপে এই এক লক্ষ শূন্যপদে লোক নিয়োগের জন্য উপযুক্ত বেকারদের সন্ধান করে আনাই আমাদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।   
এদিন মালিক সংগঠন তথা আইজেএমএ চেয়ারম্যান রাঘবেন্দ্র গুপ্ত, প্রাক্তন চেয়ারম্যান সঞ্জয় কাজারিয়া প্রমুখ বলেন, ২০১৮ সালে শ্রমদপ্তরের তরফে চটকলগুলির কয়েকটি বিশেষ বিভাগে লোকাভাবের সমস্যা দূর করতে প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু এ পর্যন্ত মোট ৯ হাজার ৩১২ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে বিভিন্ন চটকলে পাঠানো হলেও তার এক-তৃতীয়াংশও শেষপর্যন্ত টিকে থাকেনি। এর মধ্যে অবসর ও অন্যান্য কারণে চটকলগুলিতে শূন্যপদের সংখ্যা বেড়েছে। তাই এই রোগের দাওয়াই পেতে সর্বাগ্রে দরকার উপযুক্ত লোকের সন্ধান। শিক্ষিত, দুর্বল চেহারার লোক এই কাজের জন্য আদৌ দরকারি নয়। একইসঙ্গে তিনমাসের প্রশিক্ষণ পর্বে থিয়োরির পরিবর্তে পুরোটাই প্র্যাক্টিক্যাল বা হাতে-কলমে কাজ শেখানোর জন্য বরাদ্দ করলে কাজের কাজ হবে। কারণ, মাত্র দু’মাসের প্রশিক্ষণে আধুনিক মেশিন চালানো রপ্ত করা সম্ভব হয় না কিছুতেই। পাশাপাশি প্রশিক্ষণের ভাতা বৃদ্ধি, নতুন কর্মীদের থাকার ব্যবস্থা ইত্যাদি বিষয়গুলি নিয়েও সরকারি স্তরে কিছু নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রয়োজন রয়েছে।

20th     July,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021