বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
খেলা
 

অক্ষরের ঘূর্ণিতেই
ম্যাচে ফিরল ভারত
 

সৌরাংশু দেবনাথ, কানপুর: শহরের মধ্যিখানে কানপুরের বিখ্যাত ঘণ্টাঘর। বেশ উঁচু। চোখে পড়ার মতোই কারুকাজ। কিন্তু, কোনও কাজের নয়। ঘড়িই যে অচল! অর্থাৎ, সব ঝকমকে জিনিসই সোনা নয়। ট্রেলার দেখে যেমন সিনেমার সঠিক গুণমান বোঝা সম্ভব হয় না। যেমন স্পিনের বিরুদ্ধে লাথাম-ইয়ং জুটিকে টেমপ্লেটে ফেলে কিউয়ি ব্যাটিংয়ের দক্ষতা মাপা উচিত হয়নি। শুক্রবার দুই ওপেনারের দাপট দেখে অন্যরকম চিত্রনাট্য মনে আঁকিবুকি কাটছিল। শনিবার ম্যাচ গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ঘূর্ণি পিচে নিউজিল্যান্ড ব্যাটিংয়ের কঙ্কাল ফুটে উঠল। অচল ঘড়ি যেমন সময় জানায় না, তেমনই যথার্থ টেকনিকে ছাড়া এই পিচে রানও আসে না! তাই বিনা উইকেটে ১২৯ রানের ভিতের উপর দাঁড়িয়েও ইমারত গড়তে পারল না ব্ল্যাক ক্যাপস ব্রিগেড। অক্ষর-অশ্বিনের স্পিনের ছোবলে তৃতীয় দিনের শেষ সেশনে তারা অলআউট হল ২৯৬ রানে। ভারত পেল ৪৯ রানের লিড। ভাঙতে থাকা বাইশ গজের নিরিখে যা অমূল্য। দিনের শেষে ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে এক উইকেটে তুলেছে ১৪ রান। শুভমান গিল ফিরে গিয়েছেন ১ রান করেই। ক্রিজে এখন মায়াঙ্ক আগরওয়ালের (৪ ব্যাটিং) সঙ্গে চেতেশ্বর পূজারা (৯ ব্যাটিং)। এই পিচে চতুর্থ ইনিংসে আড়াইশো রান তাড়া করাও বেশ কঠিন হয়ে উঠবে।
একসময় মনে হচ্ছিল, ভারতের প্রথম ইনিংসের রান টপকে যেতে চলেছে নিউজিল্যান্ড। অথচ, তাদের শেষ ৯ উইকেট পড়ল মাত্র ৯৯ রানে। যার মধ্যে অক্ষর প্যাটেলের একার শিকার সংখ্যা পাঁচ। স্বপ্নের ছন্দে রয়েছেন ২৭ বছর বয়সি বাঁহাতি স্পিনারটি। কেরিয়ারের প্রথম তিন টেস্টে নিয়েছিলেন ২৭ উইকেট। চতুর্থ টেস্টের মাঝপথে তাঁর ঝুলিতে জমা পড়েছে আরও পাঁচটি শিকার। ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়া হয়ে গেল বার পাঁচেক। এর আগে অভিষেকের বছরে কেবল একজনই পাঁচবার ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন। তিনি অস্ট্রেলিয়ার রডনি হগ। শনিবার সেই কীর্তি স্পর্শ করলেন অক্ষর। গ্রিন পার্কে রীতিমতো বিধ্বংসী দেখাল তাঁকে।
১৫১ রানে প্রথম উইকেট হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। অশ্বিনের ডেলিভারিতে ব্যাট ছুঁইয়ে পরিবর্ত উইকেটকিপার শ্রীকর ভরতের হাতে ধরা পড়েছিলেন ইয়ং। ঘাড়ে ব্যথার সমস্যায় কিপিং করতে পারেননি ঋদ্ধিমান সাহা। তা যে কত বড় ধাক্কা, টার্নিং ট্র্যাকে তা বোঝা গেল বারবার। ভরত প্রতিভাবান হলেও এখনও পরিণত নন। তা নাহলে আরও আগেই শেষ হয়ে যেত কিউয়িদের ইনিংস। 
লাঞ্চের ঠিক আগে দ্বিতীয় নতুন বল নেয় ভারত। শুরুতেই উমেশ যাদবের বলে এলবিডব্লু হন উইলিয়ামসন। সেই শুরু। কিউয়ি ইনিংস আর গতি পায়নি। দ্বিতীয় সেশনে উঠল ৪৭ রান, পড়ল চার উইকেট। শতরানের দোরগোড়া থেকে ফিরলেন লাথাম। দিশেহারা রাচীন, ব্লান্ডেলদের মনে হল সিলেবাস শেষ না করেই পরীক্ষা হলে বসে পেন কামড়ানো কিশোর। কেমন প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে সেটাই জানা নেই!
বলা হয়, অন্য মেট্রোপলিটন শহরের তুলনায় কানপুরের রাস্তা যথেষ্ট খারাপ। যার ফলে প্রায়শই সিগন্যালে আটকে থাকে গাড়ি। এগতেই চায় না। নিউজিল্যান্ডের ইনিংসও এদিন চলল শহরের গতিমন্থরতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে। অক্ষরের ঘূর্ণিজালে ক্রমশ খোলসে ঢুকে পড়ল বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দল। বাউন্ডারি তো বটেই, সিঙ্গলসও গেল আটকে। থমকে গেল রানের গতি। আর সেই সুযোগে মাথায় চড়লেন বোলাররা। অক্ষরকে সঙ্গতে থাকলেন অশ্বিন-জাদেজা। একদিন আগে কেউ কি ভেবেছিল, প্রথম ইনিংসে তিনশো পেরবে না নিউজিল্যান্ড! মাঠ ছাড়ার সময় মনের আয়নায় ভেসে উঠছিল শহরের কেন্দ্রস্থলে দেখে আসা সেই ঘণ্টাঘরের প্রতিচ্ছবি।
তৃতীয় দিনের স্কোর: ভারত প্রথম ইনিংস- ৩৪৫।
নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস (বিনা উইকেটে ১২৯ থেকে)- লাথাম স্টাম্প ভরত বো অক্ষর ৯৫, ইয়ং ক ভরত বো অশ্বিন ৮৯, উইলিয়ামসন এলবিডব্লু বো উমেশ ১৮, টেলর ক ভরত বো অক্ষর ১১, হেনরি এলবিডব্লু বো অক্ষর ২, ব্লুন্ডেল বো অক্ষর ১৩, রাচীন বো জাদেজা ১৩, জেমিসন ক অক্ষর বো অশ্বিন ২৩, সাউদি বো অক্ষর ৫, সোমেরভিলে বো অশ্বিন ৬. আজাজ অপরাজিত ৫, অতিরিক্ত ১৬, মোট ১৪২.৩ ওভারে ২৯৬। উইকেট পতন: ১-১৫১, ২-১৯৭, ৩-২১৪, ৪-২১৮, ৫-২২৭, ৬-২৪১, ৭-২৫৮, ৮-২৭০, ৯-২৮৪, ১০-২৯৬। বোলিং: ইশান্ত ১৫-৫-৩৫-০, উমেশ ১৮-৩-৫০-১, অশ্বিন ৪২.৩-১০-৮২-৩, জাদেজা ৩৩-১০-৫৭-১, অক্ষর ৩৪-৬-৬২-৫।
ভারত দ্বিতীয় ইনিংস- মায়াঙ্ক অপরাজিত ৪, শুভমান বো জেমিসন ১, পূজারা অপরাজিত ৯, অতিরিক্ত ০, মোট এক উইকেটে ১৪। উইকেট পতন ১-২। বোলিং: সাউদি ২-১-২-০, জেমিসন ২-০-৮-১, আজাজ ১-০-৪-০।

28th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ