বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বাঁকুড়ায় ডুবল মীনাপুর ও ভাদুলের কজওয়ে
টানা বৃষ্টিতে বিষ্ণুপুরের প্রকাশঘাটে
ভেসে গেল অস্থায়ী কাঠের সেতু

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়া ও সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: টানা বৃষ্টিতে জলের তোড়ে বৃহস্পতিবার সকালে বিষ্ণুপুরে দ্বারকেশ্বরের প্রকাশঘাটে কাঠের অস্থায়ী সেতু ভেসে গেল। তার জেরে বিষ্ণুপুরের উলিয়াড়া, ভড়া ছাড়াও পাত্রসায়র ব্লক এলাকার সঙ্গে বিষ্ণুপুরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে। একইভাবে দ্বারকেশ্বরে বাঁকুড়া শহরের সঙ্গে সংযোগকারী মীনাপুর ও ভাদুলের দু’টি কজওয়ের উপর দিয়ে জল বইছে। তা দিয়েও যাতায়াত বন্ধ হয়েছে। শহরের কানকাটা এলাকায় একটি প্রকাণ্ড গাছ ভেঙে পড়ায় কিছুক্ষণ যান চলাচল ব্যাহত হয়। 
কৃষিদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বাঁকুড়ায় গড় ৮৫.৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। রাতভর বৃষ্টিতে গন্ধেশ্বরী, দ্বারকেশ্বর, কংসাবতী, শিলাবতীতে জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। এদিন সকাল থেকে বাঁকুড়া শহর লাগোয়া মীনাপুর ও ভাদুল এলাকার কজওয়ে কার্যত ডুবে যায়। ফলে গ্রামের বহু বাসিন্দা এদিন ঘুরপথে শহরে এসেছেন। শহরের কানকাটা এলাকায় রাস্তায় একটি প্রকাণ্ড গাছ ভেঙে পড়ে। তার ফলে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ কিংবা বাসস্ট্যান্ড যাতায়াতে অসুবিধা হয়। পরে গাছটি কেটে সরিয়ে দেওয়া হয়। সেখানে গাছ কাটার সময় যন্ত্রের আঘাতে এক সিভিল ডিফেন্স কর্মী জখম হন।     
বিষ্ণুপুরের প্রকাশ ঘাট ভেঙে যাওয়ায় বাসিন্দাদের প্রায় ২০কিলোমিটার ঘুরপথে জয়কৃষ্ণপুর হয়ে মহকুমা সদরে যাতায়াত করতে হচ্ছে। তবে এই ঘটনা নতুন নয়। ফি বছর বর্ষাকালে অস্থায়ী সেতু ভেঙে যায়। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। সেই জন্য স্থানীয় বাসিন্দারা প্রকাশ ঘাটে পাকা সেতু তৈরির দাবি জানিয়েছেন। স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, বাম আমল থেকে প্রকাশ ঘাটে সেতু তৈরির দাবি জানানো হচ্ছে। কিন্তু, সেতু তৈরির আশ্বাস ছাড়া কিছু মেলেনি।
বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষ বলেন, এলাকার মানুষের দাবি মেনে প্রকাশঘাটে দ্বারকেশ্বর নদে পাকা সেতু তৈরির জন্য বিধানসভায় প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। পূর্তদপ্তরকে মাপজোখ করার নির্দেশ পাঠানো হয়েছে। আগামী দিনে সেখানে সেতু তৈরি হবে।
বিষ্ণুপুরের মহকুমা শাসক অনুপ কুমার দত্ত বলেন, প্রকাশঘাটে বিষ্ণুপুর পঞ্চায়েত সমিতি থেকে ফেরিঘাট ইজারা দেওয়া হয়েছে। প্রতিবছর জল বাড়লে সেখানে নৌকা চলাচলের ব্যবস্থা করা হয়। যিনি ইজারা পেয়েছেন এবারও তিনি তা করবেন। সেখানে পাকা সেতুর বিষয়ে রাজ্যে প্রস্তাব পাঠানো আছে। তবে নিম্নচাপের বৃষ্টিতে জেলার বিভিন্ন এলাকায় চাষের কাজ জোরকদমে শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত বাঁকুড়ায় এক লক্ষ ১৫ হাজার ৩৬০ হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে। কৃষি উপ অধিকর্তা দীপঙ্কর রায় বলেন, ভালো বৃষ্টিতে চাষে গতি এসেছে। এভাবে আরও কয়েক দফায় বৃষ্টি হলে ঘাটতি অনেকটাই মিটবে।

12th     August,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ