বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বালি পাচার রুখতে ড্রোনের
সাহায্যে নজরদারি পুলিসের

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিউড়ি: অফিসের সময়ে পুলিসি নজরদারি কম থাকায় নদী থেকে বালি চুরির জন্য এই সময়কেই বেছে নেয় অবৈধ বালি পাচারকারীরা। মঙ্গলবার হঠাৎ ময়ূরাক্ষ্মী নদীর বালি চুরি রুখতে ও অবৈধ বালির কারবার রুখতে সিউড়ি থানা ও মহম্মদবাজার থানা যৌথভাবে অফিস সময়েই সিউড়ির তিলপাড়া ব্যারেজ ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ড্রোন উড়িয়ে নজরদারি শুরু করে। জেলার পুলিস সুপারের নির্দেশে এই অভিযান এদিন থেকে শুরু হল বলে জানা গিয়েছে। অফিস সময়ে পুলিসকর্মীরা ব্যাঙ্ক, সরকারি দপ্তর, স্কুল, হাসপাতালে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। সেসময় বালি কারবারিরা পুলিসি নিষ্ক্রিয়তার কথা ভেবে নদীর চর থেকে ট্র্যাক্টর, ভ্যানে করে বালি চুরির পরিকল্পনা নেয়। সেই পরিকল্পনা বানচাল করতে পুলিস ড্রোন দিয়ে নজররদারি চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যাতে খুব কম সময়ের মধ্যেই অনেকটা জায়গার অবস্থা ড্রোন মারফৎ ধরা পরে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, বালি মাফিয়াদের দৌরাত্ম্য রুখতে ড্রোন দিয়ে এই নজরদারি নিয়মিত চলবে।
সম্প্রতি বীরভূমের কোপাই নদীতে মাটি কারবারিদের রুখতে তৎপর হয়েছে পুলিস, প্রশাসন। আচমকা নানা অঞ্চলে ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর ও পুলিস যৌথভাবে অভিয়ান চালাচ্ছে। এছাড়াও বীরভূমে বালি পাচারের একাধিক অভিযোগ রয়েছে। সরকার অনুমোদিত বালিঘাটের পাশাপাশি অবৈধ ভাবেও নদীর চর থেকে বালি চুরির অভিযোগ ওঠে। পুলিসি নজরদারিকে ফাঁকি দিয়ে ট্র্যাক্টর, ভ্যান তো কখনও বস্তায় করে বালি অন্যত্র পাচারের অভিযোগ শোনা যায়। সিউড়ির ময়ূরাক্ষী নদীর উপর তিলপাড়া ব্যারেজের আশপাশে বেশ কয়েকটি সরকারি অনুমোদিত বালিঘাট রয়েছে। যেখান থেকে সরকারি চালান কেটে বালি তোলা হয়। বালি চুরি নিয়ে পুলিসের কাছে বেশ কিছুদিন ধরেই নানান অভিযোগ আসছে বলেই সূত্রের খবর। বিশেষ করে দুপুরের দিকে ট্রাক্টরে করে নদীর চর থেকে বালি বোঝাই করে পাচার করা হচ্ছে বলে শোনা যায়। এইসময় পুলিস সরকারি দপ্তর, ব্যাঙ্ক, জনবহুল অফিস চত্বরে ব্যস্ত থাকে। এইসময়টাকে কাজে লাগাতে চাইছে বালি পাচারকারিরা। মঙ্গলবার সিউড়ি থানার আইসি শেখ মহম্মদ আলির নেতৃত্বে তিলপাড়া ব্যারেজ থেকে ড্রোন উড়ানো হয়। নদীর চর বরাবর প্রায় তিন কিমি দীর্ঘ অঞ্চলে ড্রোন দিয়ে নজরদারি চালানো হয়। অনেকেই মনে করেছে পুলিসের এই তৎপরতায় বালিচুরি কিছুটা কমবে। আইসি বলেন, ড্রোন দিয়ে অনেক দূর পর্যন্ত সহজে নজরদারি চালানো যায়। বালি তোলার ক্ষেত্রে সমস্ত বিধি মানা হচ্ছে কিনা তা দূরে দাঁড়িয়ে দেখেই বোঝা যাবে। জেলা পুলিস সুপারের নির্দেশ মোতাবেক এই অভিযান শুরু হল। নিয়মিত এই অভিযান চালানো হবে। আশা করি এতে বালি পাচারকারিদের দৌরাত্ম্য কমবে।

25th     May,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ