বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

ঝাড়খণ্ড সীমানা পেরিয়ে মুঙ্গের
থেকে অস্ত্র ঢুকছে রামপুরহাটে
গ্রেপ্তার ৪

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: বিহারের মুঙ্গের থেকে ঝাড়খণ্ড সীমানা পেরিয়ে রামপুরহাটের চেনা রুটেই আ঩গ্নেয়াস্ত্র ঢুকছে। দুই সীমানার গ্রামের রাস্তা ধরেই অস্ত্র পৌঁছে যাচ্ছে এরাজ্যে। মঙ্গলবার ভোররাতে অস্ত্র সহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে এমনই তথ্য পেয়েছে রামপুরহাট থানার পুলিস। পুলিশের এক কর্তা জানিয়েছেন, মুঙ্গেরের কারবারিরা বিভিন্ন উপায়ে ঝাড়খণ্ড সীমানায় আগ্নেয়াস্ত্র পৌঁছে দিচ্ছে। সেখান থেকে সুযোগ বুঝে সীমানা পেরিয়ে এরাজ্যে ঢুকছে। কখনও দুষ্কৃতীরা সরাসরি মুঙ্গের থেকে অস্ত্র কিনে আনছে। এদিকে পুলিসও সোর্স বাড়িয়ে তাদের উপর লাগাতার নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছে। যার জেরে অস্ত্রও উদ্ধার হচ্ছে। দুষ্কৃতীরা পুলিসের জালে ধরা পড়তে শুরু করেছে। 
মঙ্গলবার ভোররাতে পুলিসের কাছে খবর আসে, রানিগঞ্জ-মোড়গ্রাম ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে রামপুরহাটের গোরুরহাটের কাছে জনাদশেক দুষ্কৃতী ছিনতাইয়ের উদ্দেশে জড়ো হয়েছে। সেইমতো পুলিসের টহলদারি গাড়ি সেখানে অভিযানে যায়। তা দেখেই দৌড় দেয় দুষ্কৃতীরা। পুলিস পিছুধাওয়া করে তাদের মধ্যে চারজনকে ধরে ফেলে। বাকিরা মাঠের পথ ধরে পালিয়ে যায়। পুলিস জানিয়েছে, ধৃতদের নাম বাদশা শেখ, জাভেদ শেখ, মুকুল শেখ ও শুভম প্রসাদ। এদের মধ্যে বাদশার বাড়ি বগটুই গ্রামের পূর্বপাড়ায়, জাভেদ ও মুকুলের বাড়ি রামপুরহাটের দখলবাটি গ্রামে। শুভম রামপুরহাটের চামড়াগোদাম পাড়ার বাসিন্দা। বাদশার কাছ থেকে একটি পাইপগান ও এক রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে। অস্ত্রটি মুঙ্গেরের তৈরি বলে দাবি পুলিসের। দুষ্কৃতীরা সেখান থেকে ১২ হাজার টাকার বিনিময়ে পাইপগানটি কিনে ঝাড়খণ্ড সীমানা পেরিয়ে রামপুরহাটে আসে। জাতীয় সড়কের ধারে ছিনতাইয়ের জন্যই তারা জড়ো হয়েছিল। পলাতকদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, কিছুদিন ধরে লাগাতার নজরদারি চালানোর ফলে অস্ত্র সহ বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী ধরা পড়েছে। অস্ত্রগুলির সিংহভাগই মুঙ্গের থেকে এসেছে। খুব কম সংখ্যক ঝাড়খণ্ডের কামারশালায় তৈরি অস্ত্র পাওয়া গিয়েছে। লাগাতার পুলিসি অভিযানের জেরে অস্ত্র কারবারিরা কখনও রুট পরিবর্তন করেছে, কখনও বা মহিলাদের ব্যবহার করে কারবার সচল রাখার চেষ্টা করছে। তবে পুলিসও সোর্স বাড়িয়ে তাদের উপর নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছে। তাই আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারে কোনও বিরাম নেই।
কিন্তু এত কিছুর পরেও অস্ত্র ঢুকছে কী করে? জেলা পুলিশের এক কর্তা বলেন, অস্ত্র কারবারিরা ফাঁক-ফোকড় বের করে কারবার চালানোর চেষ্টা করছে। তবে পুলিসও লাগাতার ধরপাকড় করছে। রামপুরহাট মহকুমা পুলিস আধিকারিক ধীমান মিত্র বলেন, এদিনই অস্ত্র সহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে নানা তথ্য পেয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিস। উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে অস্ত্র ও বোমা উদ্ধারে লাগাতার অভিযান শুরু করেছে পুলিস। তাতেই একের পর এক দুষ্কৃতী গ্রেপ্তার হতে শুরু করেছে। ঝাড়খণ্ড থেকে আগ্নেয়াস্ত্র এরাজ্যে প্রবেশ রুখতে কড়া নজরদারি শুরু করেছে পুলিস।

25th     May,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ