বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

মাত্র দু’সপ্তাহের মধ্যেই
সম্পন্ন হল ৯৫ শতাংশ
নদীয়ায় কিশোর-কিশোরীদের টিকাকরণ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কৃষ্ণনগর: মাত্র দু’সপ্তাহে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের ৯৫ শতাংশ টিকাকরণ সম্পন্ন হয়েছে নদীয়া জেলায়। এখনও পর্যন্ত ১ লক্ষ ৭০ হাজার ৭৫ জনকে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যদপ্তরের কর্তারা। আগামী কিছুদিনের মধ্যে তা ১০০ শতাংশ লক্ষ্যমাত্রা ছুঁয়ে যাবে বলে তাঁরা আশাবাদী। নদীয়া জেলার অতিরিক্ত জেলাশাসক(স্বাস্থ্য) শেখর সেন বলেন, ১৫-১৮ বয়সিদের দ্রুত টিকাকরণ করানোই আমাদের লক্ষ্য ছিল। আমরা সেইমতো তৎপর হয়েছিলাম। এতেই সাফল্য এসেছে। আশা করছি, সময়ের আগেই আমরা টিককরণের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁতে পারব। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সি ছাত্রছাত্রীদের টিকাকরণ শুরু হয়েছে। এক মাসের মধ্যেই এই বয়সসীমার ছাত্রছাত্রীদের প্রথম ডোজ শেষ করা নিয়ে তৎপর হয়েছিল রাজ্য সরকার। সেইমতো নদীয়া জেলাতেও টিকাকরণ কর্মসূচি পালনে জোর দিয়েছিল প্রশাসন। প্রথমে জে‌লার ১৮টি ব্লকে একটি করে কেন্দ্র ঠিক করে টিকাকরণ শুরু হয়েছিল। সেইমতো একটি করে স্কুলকে টিকাকেন্দ্র হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছিল। তারপর জেলার পুরসভাগুলিতেও ভ্যাকসিনশন সেন্টার করে টিকা দেওয়া হয়। ২০০৫, ২০০৬ এবং ২০০৭ সালে যারা জন্মেছে, তাদেরই এই টিকা দেওয়া হয়। 
জানা গিয়েছে, নদীয়া জেলায় ১ লক্ষ ৮০ হাজার ছাত্রছাত্রীকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছিল। যার মধ্যে ১৪ দিনে জেলার ৯৫ ‌শতাংশ ছাত্রছাত্রীকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। ১ লক্ষ ৭০ হাজার ৭৫ ছাত্রছাত্রী এখনও পর্যন্ত করোনা টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছে।
বেয়াড়া কোভিডের কারণে নতুন বছরে ফিরে এসেছে বিধিনিষেধ। টিকা নিয়ে বহু মানুষের মধ্যে অনীহা দেখা দিয়েছিল। করোনার বাড়বাড়ান্তর কারণে ফের টিকা নিতে উৎসাহ দেখাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, নদীয়া জেলায় বুস্টার ডোজ পেয়েছেন ১৪ হাজার ৭০২ জন। টিকাকরণের এক বছর পার হয়েছে। এখনও পর্যন্ত জেলায় করোনার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ৩৫ লক্ষ মানুষ। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ২৭ লক্ষ মানুষ। 
নদীয়া জেলার সিএমওএইচ স্বপনকুমার দাস বলেন, ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের টিকাকরণ প্রায় শেষের দিকে। বিগত কয়েদিনে ব্লক ও পুরসভা স্তরে জোরকদমে টিকাকরণ হয়েছে। নদীয়া জেলায় অনেকটা কমল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। রবিবার সকাল ৭টা থেকে সোমবার সকাল ৭টা পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৫ জন। যার মধ্যে বীরনগর পুরসভায় একজন, চাকদা পুরসভা ও ব্লকে ২৪জন, চাপড়া ব্লকে ১১জন, কুপার্স ক্যাম্পে একজন, গয়েশপুর পুরসভায় চারজন, হাঁসখালি ব্লকে ১১জন, হরিণঘাটা ব্লক ও পুরসভায় ১০জন, কালিগঞ্জে ১৫জন, কল্যাণী পুরসভায় ২২জন, করিমপুর-১ ও ২ ব্লকে ১২জন সংক্রামিত হয়েছেন। এছাড়া কৃষ্ণগঞ্জে সাতজন, কৃষ্ণনগর-১ ও ২ ব্লক এবং পুরসভায় ৬২জন, নবদ্বীপ ব্লক ও পুরসভায় ২৮জন, নাকাশিপাড়ায় ন’জন, রানাঘাট-১ ও ২ ব্লক ও পুরসভায় ৩৯জন, শান্তিপুর পুরসভা ও ব্লকে ২০জন, তেহট্ট-১ ও ২ ব্লকে ১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

18th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ