বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

গ্রিনরুমে পড়াশোনা করে
জীবনের লড়াই দুই বোনের

উজ্জ্বল পাল, বিষ্ণুপুর : ‘জিনা ইয়হা মরনা ইয়হা, ইসকে সিভা জানা কাঁহা’। মেরা নাম জোকার। রাজ কাপুর ফুটিয়ে তুলেছিলেন সার্কাসের মধ্যে থাকা এক জোকারের জীবন। পাত্রসায়রের দুই বোনের জীবনের গল্পও জড়িয়ে গিয়েছে সার্কাসের সঙ্গে। পরিস্থিতির চাপে। পরিবারের পাশে দাঁড়াতে সার্কাসে যোগ দিলেও এই পেশায় জীবন কাটাতে চায় না পাত্রসায়রের বামিরা গ্রামের দুই বোন সায়ন্তী বাগদি ও বৃষ্টি বাগদি। তাই শোয়ের ফাঁকেই গ্রিনরুমে পড়াশোনা করে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার লক্ষ্যে লড়াই জারি রেখেছে তারা। বর্তমানে ওন্দায় চলা একটি সার্কাসে দর্শকদের বিনোদনে জিমনাস্টিক ডান্স করে তারা। সায়ন্তী গুরুদাস বিদ্যায়তন স্কুলের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। বৃষ্টি ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। পড়াশোনাকে বাদ দিতে চায় না কেউই। তাই সার্কাসের তাঁবুতে শোয়ের ফাঁকে দুই বোন পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছে। সার্কাস কর্তৃপক্ষও তাদের পড়াশোনার সুবিধার জন্য পৃথক তাঁবুর ব্যবস্থা করেছে। সায়ন্তী ও বৃষ্টির বাবা দেবনাথ বাগদি উচ্চশিক্ষিত। কিন্তু চাকরি পাননি। সামান্য জমিতে চাষবাস করে কোনরকমে ছ’জনের সংসার চালান। তবুও তিনি চান মেয়েরা পড়াশোনা করুক। তাঁর স্ত্রী দুর্গা বাগদি গান ও নাচ জানেন। মূলত তাঁর উৎসাহেই দুই মেয়েকে ছোট বয়স থেকেই গান ও নাচের তালিম দেওয়া শুরু। কিন্তু নুন আনতে পান্তা ফুরনো সংসারে পড়াশোনার পাশাপাশি দুই মেয়ের সঙ্গীত ও নৃত্যের চর্চা চালানো মুশকিল হয়ে পড়ে। তাই পরিবারের পাশে দাঁড়াতে দুই বোন এগিয়ে আসে। প্রথমদিকে এলাকার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান ও নাচের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া শুরু করে। সম্প্রতি একটি সার্কাস কোম্পানিতে যোগ দেয়। বর্তমানে ওন্দায় সার্কাস চলছে। পরপর তিনটি শোয়ে গানের তালে তালে জিমনাস্টিক ডান্স করে দর্শকদের আনন্দ দেয়। এভাবেই তারা টাকা তুলে দিচ্ছে বাবার হাতে। কিন্তু তা বলে পড়াশোনায় ফাঁকি দিলে চলবে না। সায়ন্তী এবার মাধ্যমিক পরীক্ষা দেবে। তাই শোয়ের ফাঁকে পড়াশোনাও করছে। পাশে বসে পড়ায় মন দেয় বোনও।  দেবনাথবাবু বলেন, আমি পরিবেশবিদ্যায় মাস্টার ডিগ্রি করেছি। বিএডও রয়েছে। চাকরি না পাওয়ায় সামান্য জমিতে চাষবাস করে সংসার চালাই। পড়াশোনার পাশাপাশি মেয়েদের নাচ ও গানে পারদর্শী করার স্বপ্ন ছিল। সেজন্য কষ্ট হলেও গান ও নাচের চর্চার মধ্যে রেখেছি। কিন্তু খরচ টানতে পারছি না। দুই মেয়ে নিজেদের ইচ্ছাতেই সার্কাসে যোগ দিয়েছে। মেয়েদের কষ্ট হচ্ছে। তবুও সংসার চালাতে কিছুটা সুবিধা হবে ভেবেই আমি বাধা দিইনি। দুর্গাদেবী বলেন, আমি বিয়ের আগে গান ও নাচের সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। তাই ছোট থেকেই দুই মেয়েকে তালিম দিয়েছি। এখন ওরা সমস্ত ধরনের গান ও নাচে পারদর্শী হয়েছে। স্বামীর রোজগার কম। তাই দুই মেয়ে সার্কাসে যোগ দিয়েছে। সায়ন্তী বলে, গানের তালে জিমনাস্টিক ডান্স করি। দর্শকরা হাততালি দিলে ভালো লাগে। আরও উৎসাহ পাই। বাবার আর্থিক অবস্থার কথা ভেবে সার্কাসে যোগ দিয়েছি। কিন্তু পড়াশোনায় ফাঁকি দিই না। দু’টি শোয়ের ফাঁকে বেশ কিছুটা সময় থাকে। তখন গ্রিনরুমে আমি আর বোন বই নিয়ে বসে পড়ি। 

30th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021