বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

মিমুল দুগ্ধ প্রকল্পের জন্য
৩৭ কোটি টাকার প্রস্তাব
নবান্নে রিপোর্ট পাঠাল জেলা
প্রশাসন, মিলল জমিও

সংবাদদাতা, মেদিনীপুর: দুধের অভাবী বিক্রি বন্ধে এবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ৫০ হাজার লিটার ক্ষমতাসম্পন্ন দুগ্ধ প্রকল্প গড়তে চায় দ্য মেদিনীপুর কো-অপারেটিভ মিল্ক প্রোডিউসার ইউনিয়ন লিমিটেড(মিমুল)। এর জন্য ডেবরায় পাঁচ একর জমিও চিহ্নিত করা হয়েছে। সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর মলয়কুমার দাস বলেন, জমি পাওয়ার পর ৩৭ কোটি টাকার পরিকল্পনা তৈরি করে নবান্নে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। প্রকল্প অনুমোদন করে অর্থ বরাদ্দ হলেই কাজ শুরু হবে। আমাদের উদ্দেশ্য, চাষিদের অভাবী বিক্রি রোধ করা। পাশাপাশি চাহিদামতো বিভিন্ন দুগ্ধজাত সামগ্রী তৈরি করা। 
সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, এখানে চাষিদের কাছ থেকে নেওয়া দুধ প্রক্রিয়াকরণের পর প্যাকেটজাত করে বাজারে ছাড়া হবে। এছাড়াও দই, প্যাড়া, ঘি সহ নানা জিনিসপত্র তৈরি করা হবে। ইতিমধ্যেই মিমুল এই সব জিনিস তৈরি করে বাজারে বিক্রি করছে। বিভিন্ন জায়গায় তাদের কাউন্টারও করা হয়েছে। চাহিদাও আছে। কিন্তু চাহিদামতো জিনিস তৈরি করা যাচ্ছে না। বর্তমানে যে দুগ্ধ প্রকল্প আছে, তার ক্ষমতা খুবই কম। সেখানে যেমন দুগ্ধজাত সামগ্রী কম তৈরি হয়, তেমনই চাষিদের কাছ থেকে খুবই কম পরিমাণ দুধ কেনা যায়। ম্যানেজিং ডিরেক্টর বলেন, আমাদের জেলায় প্রায় ৩০-৩২ হাজার লিটার দুধ উৎপাদন হয়। এখন উৎপাদনের পরিমাণটা কম হলেও গ্রীষ্মকালে তা বাড়ে। জেলার কেশিয়াড়িতে এখন একটাই প্রকল্প আছে, তা খুবই ছোট। প্রকল্পটি পাঁচ হাজার লিটার ক্ষমতাসম্পন্ন। ফলে গরমকালে যে দুধ উৎপাদন হয়, তার সবটা আমরা নিতে পারি না। উৎপাদকরা মাদার ডেয়ারিতেও দুধ দেন। তবুও তাঁদের হাতে অনেক দুধ থেকে যায়। সেই দুধ বাধ্য হয়ে খোলাবাজারে তাঁদের অনেক কম দামে বিক্রি করে দিতে হয়। আমরা যদি ডেবরায় ৫০ হাজার লিটার ক্ষমতাসম্পন্ন প্রকল্প তৈরি করতে পারি, তাহলে চাষিদের আর বাইরে কম দামে দুধ বিক্রি করতে হবে না। আমরাই তাঁদের কাছ থেকে সব দুধ কিনে নিতে পারব। এতে অভাবী বিক্রি রোধ করা যাবে। আমাদের বিভিন্ন দুগ্ধজাত সামগ্রী তৈরির পরিমাণও বাড়বে। কর্মসংস্থানও সৃষ্টি হবে। 
সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, ডেবরায় ৩০টিরও বেশি দুগ্ধ সমবায় সমিতি আছে। দুধ উৎপাদনের পরিমাণও বেশি। সমবায় সমিতিগুলি গো-পালকদের কাছ থেকে দুধ কেনে। মিমুল সমবায় সমিতিগুলির মাধ্যমেই দুধ কিনবে। ডেবরায় উৎপাদন বেশি বলেই এই এলাকাকে দুগ্ধ প্রকল্প তৈরির জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। ডেবরা পঞ্চায়েত সমিতি সূত্রে জানা গিয়েছে, ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে দলপতিপুরে মিমুলকে প্রায় পাঁচ একর খাস জমি দেওয়া হয়েছে। সেখানে তারা দুগ্ধ প্রকল্প তৈরি করবে। 
প্রসঙ্গত, বাম আমলে ডেবরায় দুগ্ধ প্রকল্প গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। মেশিনও বসে যায়। কিন্তু গোড়ায় গলদ থেকে যাওয়ায় সেই প্রকল্প আর শুরু করা যায়নি। জমি জটে তা আটকে গিয়েছে। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছিল। এবার আর সেই সম্ভাবনা নেই। তাই দ্রুত প্রকল্পটি বাস্তাবায়িত হবে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

30th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021