বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিংয়ে
যাওয়া যুবক নিখোঁজ
উৎকণ্ঠায় রানাঘাটের পরিবার

সংবাদদাতা, রানাঘাট: দু’সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও রানাঘাটের যুবক প্রীতম রায়ের সঙ্গে কোনওভাবেই যোগাযোগ করতে পারছে না তাঁর পরিবার। উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিংয়ে যাওয়া ডাক্তারি পড়ুয়া প্রীতমের পরিজনেরা উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন। রাতে দু’চোখের পাতা এক করতে পারছেন না ওই যুবকের বাবা-মা। রানাঘাটের নতুন গোপালপুরে যুবকের বাড়িতে থমথমে পরিবেশ। ছেলে যে অবস্থায় থাকুক তাকে বাড়ি ফেরাতে প্রশাসনের কাছে আর্জি জানিয়েছেন নিখোঁজ যুবকের আত্মীয় ও পরিজনরা।
পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, পুজোর আগে পঞ্চমীর দিন উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিংয়ের উদ্দেশে রওনা দেয় পাঁচজনের একটি দল। এরপরই ওই রাজ্যে বিধ্বংসী প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়। ওই অভিযাত্রী দল গত ১৭অক্টোবর দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। রানাঘাট-১ ব্লকের বিডিও সঞ্জীব সরকার বলেন, বিষয়টি আমাদের নজরে রয়েছে। আমরা পুলিসের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। ইতিমধ্যেই রাজ্যের তরফে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।প্রীতম পরিবারের বড় সন্তান। কল্যাণী নবোদয় কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করার পর উচ্চশিক্ষার জন্য তার জার্মানি যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিবারের আপত্তিতে তিনি বিদেশে যাননি। পরবর্তীতে জয়েন্ট দিয়ে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে ডাক্তারির পড়াশোনা শুরু করেন। এবছরই তাঁর ডাক্তারি পড়ার শেষ বছর। প্রীতমের বোন প্রিয়াঙ্কা হাওড়া হোমিওপ্যাথি মেডিক্যালের ছাত্রী, বাবা প্রমিলকান্তি রায় আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক।ছোট থেকেই বেড়াতে ভালোবাসেন প্রীতম। আগেও বেশ কয়েকবার বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিলেন। তাঁর বাড়িতে গিয়ে দেখা গেল, শোকেসে সাজানো রয়েছে মেধাবী ছাত্রের বিভিন্ন পুরস্কার। পরিবারের মহিলা সদস্যরা কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। প্রতিবেশী ও আত্মীয়রা মাঝেমধ্যেই বাড়িতে এসে খোঁজ নিয়ে যাচ্ছেন। প্রীতমের কাকা জয়ন্তবাবু মোবাইলে ভাইপোর ছবি দেখিয়ে বলেন, নবান্ন পর্যন্ত বিষয়টি জানানো হয়েছে। উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বর কন্ট্রোল রুমে খোঁজ নিয়েছি। কিন্তু তারাও ওর কোনও খবর দিতে পারেনি। সরকারিভাবে এখনও পর্যন্ত আমাদের কিছু জানানো হয়নি। আমরা চাইছি, ও যে অবস্থাতেই থাকুক ঘরের ছেলেকে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করুক প্রশাসন।
ছেলের দুর্ঘটনার খবর পেয়ে শোকে মুহ্যমান তাঁর বাবা ও মা। বাবা প্রমিলকান্তিবাবু বলেন, পঞ্চমীর দিন ওরা বেড়াতে গিয়েছিল। উত্তরাখণ্ড পৌঁছনোর পরও বেশ কয়েকবার ছেলের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ হয়েছে। গত ১২ অক্টোবর শেষবার ছেলের সঙ্গে ফোনে কথা বলতে পেরেছি। 
স্থানীয় বাসিন্দা ও প্রতিবেশীরা বলেন, এলাকায় মেধাবী ছাত্র হিসেবে পরিচিত ছিল প্রীতম। নতুন নতুন জায়গার বেড়াতে যাওয়া ছিল ওর নেশা। যে পাহাড়ের হাতছানিতে ও ঘর ছেড়েছিলেন সেই পাহাড়ই পরিবারের কাছে আতঙ্ক হয়ে দাঁড়াল।

26th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021