বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বীরভূমে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা
বাড়ানোর নির্দেশ দিল স্বাস্থ্যদপ্তর
২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রামিত ১৫ ,বাড়ছে উদ্বেগ

 

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: করোনা সংক্রমণ রোধে বেশি করে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্যদপ্তর। সেই মতো বীরভূম ও রামপুরহাট স্বাস্থ্যজেলায় একাজে জোর দেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে যেসব এলাকায় করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলছে, সেখানকার বাসিন্দাদের র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যদপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে সংক্রামিত হয়েছেন ১৫জন। সংক্রমণ বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে মানুষের অনীহার ছবি প্রকট হয়ে উঠেছে। তাই মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে ফের প্রচারে নামছেন স্বাস্থ্যকর্তারা। 
দীর্ঘদিন ঘরবন্দি মানুষজন পুজোর আনন্দ উপভোগে কোনও খামতি রাখেনি। পঞ্চমী থেকেই জেলার মণ্ডপগুলিতে ঢল নেমেছিল। পুজো শপিং থেকে শুরু করে নানা মণ্ডপে মাস্কহীন মানুষের সংখ্যা ছিল নজরকাড়া। টিকার উপর ভর করে জনতার এমন বেপরোয়া মনোভাব দেখে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন স্বাস্থ্যকর্তারা। সেজন্য পুজোতে করোনা বিধি মেনে চলার প্রচারে জোর দিয়েছিল স্বাস্থ্যদপ্তর। কিন্তু তাতে অনেকেই কান দেননি। সেজন্যই উৎসব শেষে ফের করোনার বাড়বাড়ন্ত।স্বাস্থ্যদপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, এপর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪১হাজার ৩৬জন। সুস্থ হয়েছেন ৪০হাজার ৬৩৬জন। মারা গিয়েছেন ২৮৬জন। এই মুহূর্তে জেলায় সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১৪। স্বাস্থ্যকর্তারা বলছেন, মাস তিনেক আগে সংক্রমণ একেবারে শূন্যে নেমেছিল। পুজো শেষেই সেই সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। এতেই উদ্বেগে স্বাস্থ্যদপ্তর। সংক্রমণ যাতে দ্রুত না ছড়ায় সেজন্য টিকাকরণের পাশাপাশি করোনা পরীক্ষার উপরও জোর দেওয়া হচ্ছে। আগে দুই স্বাস্থ্যজেলা মিলিয়ে দৈনিক প্রায় সাড়ে তিনহাজার করে করোনা পরীক্ষা করা হতো। পুজোর মরশুমে সেই পরীক্ষা কমে আসে। অনেকেই ভাবেন, রিপোর্ট পজিটিভ হলে পুজোয় ঘরবন্দি থাকতে হবে। তাই অনেকেই অজান্তে উপসর্গহীন করোনার বাহক হয়ে পথে নামেন। এজন্যই নতুন করে সংক্রমণ বাড়ছে বলে স্বাস্থ্যদপ্তরের দাবি। এই অবস্থায় সংক্রমণ রুখতে করোনা পরীক্ষায় জোর দেওয়া হচ্ছে। 
রামপুরহাট স্বাস্থ্যজেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক(সিএমওএইচ) রবীন্দ্রনাথ প্রধান বলেন, দৈনিক ১১০০করে পরীক্ষার টার্গেট রয়েছে। কিন্তু পুজোর আগে বা পরে অনেকেই পরীক্ষা করাতে আসেননি। পুজো মিটতেই সেই টার্গেট পূরণে জোর দেওয়া হয়েছে। যেসব এলাকায় পজিটিভ ধরা পড়বে, সেখানে রোগীকে আলাদা রেখে লাগোয়া বাসিন্দাদেরও টেষ্ট করাতে বলা হচ্ছে। বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে মানুষকে বোঝানো হচ্ছে। আশাকর্মীরাও ঘুরে ঘুরে জ্বর আক্রান্তদের চিহ্নিত করে পরীক্ষার জন্য উৎসাহিত করছেন। প্রতিটি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। শুধুমাত্র মানুষকে সহযোগিতা করতে হবে। ডেপুটি সিএমওএইচ(৩) প্রকাশ রায় বলেন, অতীত থেকে শিক্ষা না নিয়ে আজও বহু মানুষ বেপরোয়া মনোভাব দেখাচ্ছেন। প্রথম দিকে মানুষ যতটা ভয় পাচ্ছিলেন এখন সেই ভয় কেটে গিয়েছে। অনেকেই মাস্ক ব্যবহার বা শারীরিক দূরত্ববিধি মানছেন না। আমরাই তৃতীয় ঢেউ ডেকে আনছি।  বীরভূম স্বাস্থ্যজেলার ডেপুটি সিএমওএইচ(৩) তাপসকুমার দাস বলেন, জ্বর, সর্দি, কাশি উপসর্গ নিয়ে কেউ হাসপাতালের এমারজেন্সি বা ওপিডিতে গেলে তাঁর র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ব্যাপক হারে টিকাকরণও চলছে। এই স্বাস্থ্যজেলার ৯৮শতাংশ বাসিন্দাকে করোনার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়ে গিয়েছে। নির্দিষ্ট সময় অন্তর দ্বিতীয় ডোজও দেওয়া হচ্ছে। রামপুরহাট স্বাস্থ্যজেলায় ৮২ শতাংশ মানুষ প্রথম ডোজ পেয়েছেন। যাঁরা ভয় বা নানা কারণে এখনও প্রথম ডোজ নেননি তাঁদের বোঝাতে পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। 

26th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021