বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

একশো দিনের কাজে স্বচ্ছতা
আনতে এবার মোবাইল অ্যাপ

নিজস্ব প্রতিনিধি, আরামবাগ: একশো দিনের কাজে স্বচ্ছতা আনতে অস্ত্র এবার মোবাইল মনিটরিং সিস্টেম অ্যাপ। কর্মরত শ্রমিকদের ছবি ও হাজিরার তথ্য নিমেষে পৌঁছে যাবে প্রশাসনের কাছে। আরামবাগ মহকুমার প্রতিটি ব্লকে এই অ্যাপের ব্যবহারে জোর দেওয়া হয়েছে। মোবাইলে ছবি তোলা থেকে কাজের নথি পাঠানোর সমস্ত ব্যাপারে পঞ্চায়েতের নির্বাচিত কর্মীদের ট্রেনিং দেওয়া হবে। এই কর্মীরা কাজের দিনে মোবাইলে শ্রমিকদের ছবি ও উপস্থিতির তথ্য পাঠাবেন সকাল এগারোটার মধ্যে। প্রশাসন সেই তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারবে একশো দিনের কাজে কোথাও কোনও অনিয়ম হচ্ছে কিনা। প্রশাসন সূত্রের খবর, একশো দিনের কাজে স্বচ্ছতা ও নজরদারি বাড়াতেই এই উদ্যোগ। একশো দিনের কাজে যেসব বেনিয়মের অভিযোগ উঠছে এই অ্যাপ ব্যবহারের তা অনেকটাই রোধ করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন মহকুমার ব্লক আধিকারিক থেকে পঞ্চায়েত প্রধান ও পঞ্চায়েতের সদস্যরা। আরামবাগ ব্লকের বিডিও কৌশিক বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, আগে একশো দিনের কাজের জায়গা থেকে ঘটনাস্থলের বিবরণ ও কাজে যুক্ত শ্রমিকদের নাম খাতায় লেখা হতো। অফিসে এসে কম্পিউটারে তথ্য নথিভুক করে তা জেলায় পাঠানো হতো। এখন এই মোবাইল মনিটরিং সিস্টেম অ্যাপের মাধ্যমে সরাসরি কাজের জায়গা ও কর্মরত শ্রমিকদের ছবি পাঠানো হবে। এতে সহজেই জানা যাবে কাজটা কবে হয়েছে আর কাজটা কারা করছে। সেইসঙ্গে তিনি বলেন, এটা খুবই বড় পরিকল্পনা। মোবাইল মনিটরিং সিস্টেমের মাধ্যমে কাজটি সুষ্ঠুভাবে করার জন্য প্রতিটি পঞ্চায়েতে দক্ষ লোক লাগবে। যাঁরা এই সিস্টেমটাকে ব্যবহার করতে পারবেন। তার জন্য নিযুক্ত লোকদের ট্রেনিং দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই প্রতিটি পঞ্চায়েতকে এই বিষয়ে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কাজ শুরু করার জন্য ।‌
পুরশুড়া ব্লকের শ্যামপুর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান অনিমা মান্না বলেন এই বিষয়ে সবেমাত্র নির্দেশিকা পেয়েছি। আমি একজন প্রধান হয়ে বলছি, এইরকম একটি ব্যবস্থার খুব জরুরি ছিল। এই পঞ্চায়েতে একুশজন মেম্বার আছেন কিন্তু সব প্রচেষ্টা স্বত্বেও আমার পঞ্চায়েতে একশ দিনের কাজে বেশ কয়েকটি সংসদ এলাকার অনিয়ম থামাতে পারিনি। এমন উদাহরণ আছে একটি কাজে তিনশজনের নাম আছে। কাজ করছে মাত্র ১৬০ জন। কিন্তু টাকা তোলা হয়েছে সকলের। কারা কাজ করেছে তার কোনও ছবি ছিল না। এই ব্যবস্থায় এবার ছবি থাকবে, বুঝতে পারব কারা সত্যি কাজে এসেছিল। মোবাইল মনিটরিং অ্যাপ শুরু হলে একশো দিনের কাজে স্বচ্ছতা আসবে বলেই আমি আশাবাদী।মলয়পুর -২ নম্বর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান শাহ্ মহম্মদ রফিক বলেন, এই বিষয়ে আমাদের নির্দেশিকা এসেছে। এই কাজটি কীভাবে করা হবে সেই বিষয়েও আমাদের জানানো হয়েছে। একশো দিনের কাজে যারা কাজ পাওয়ার পাওয়ার যোগ্য তাদের কাজ দেওয়ার যথাসাধ্য  চেষ্টা করেছি। এই সিস্টেমে কাজ আরও দ্রুত ও স্বচ্ছ হবে বলেই মনে করছি। একশো দিনের কাজে স্বচ্ছতা আনতে এর আগে ‘সিকিওর’ (সফটওয়্যার ফর এস্টিমেট ক্যালকুলেশন ইউজিং রুরাল রেটস ফর এমপ্লয়মেন্ট) চালু করা হয়।  মূল উদ্দেশ্যই ছিল একশো দিনের কাজে কাজের এলাকার ছবি, তারিখ, কর্মরত শ্রমিক সংখ্যার হিসেব ও মজুরির তথ্য নথিভুক্ত করা। তা সত্ত্বেও একশো দিনের কাজ নিয়ে উঠছিল নানা অভিযোগ। এবার মোবাইল মনিটরিং ব্যবস্থার মাধ্যমে কাজে স্বচ্ছতা আনা অনেকটাই সম্ভব হবে বলে মনে করছে 
প্রশাসন।

18th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021