বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

অ্যাকাউন্টের তথ্য জেনে ছাত্রছাত্রীদেরও
স্কলারশিপের টাকা হাতাচ্ছে অপরাধীরা

সুখেন্দু পাল, বহরমপুর : এবার সাইবার অপরাধীদের নজর পড়েছে ছাত্রছাত্রীদের স্কলারশিপের টাকার দিকে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকজন পড়ুয়া প্রতারণার শিকার হয়েছে। রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য ঐক্যশ্রী, শিক্ষাশ্রী সহ বিভিন্ন ধরনের স্কলারশিপ চালু রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের বেশ কয়েকটি প্রকল্পও চালু রয়েছে। ছাত্রছাত্রীরা কয়েক কিস্তিতে টাকা পেয়ে থাকে। প্রথম কিস্তির টাকা পাওয়া পড়ুয়ারাই সাইবার অপরাধীদের শিকার হচ্ছে। 
পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন কৌশলে অপরাধীরা ছাত্রছাত্রীদের ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত  তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে। কখনও তারা  ব্যাঙ্ক আধিকারিকের পরিচয় দিয়ে তথ্য জোগাড় করছে। আবার কখনও দ্বিতীয় কিস্তির টাকা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ছাত্রছাত্রীদের কাছে থেকে তথ্য জোগাড় করছে। তারপরই তারা অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা গায়েব করে দিচ্ছে। মুর্শিদাবাদ সাইবার থানায় আসা এক পড়ুয়া বলেন, প্রথম কিস্তির টাকা তুলতে পেরেছিলাম। দ্বিতীয় কিস্তির টাকা জমা হওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে তা কাজে লাগা‌ইনি। কয়েকদিন পর দেখি ওই টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে তোলা হয়ে গিয়েছে বলে মেসেজ আসছে। কীভাবে টাকা উঠল কিছুই বুঝতে পারলাম না। কাউকে ফোনে কোনও তথ্য দিইনি। তবে এলাকার একটি ক্যাফেতে গিয়ে স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলাম। সেখান থেকে কিছু হয়েছে কিনা বুঝতে পারছি না। এক আধিকারিক বলেন, সাইবার অপরাধীরা বিভিন্নভাবে তথ্য জোগাড় করছে। বেশিরভাগ স্কলারশিপের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হয়। পড়ুয়ারা সাইবার ক্যাফেতে গিয়ে আবেদন করে। সেক্ষেত্রে তারা ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য দ্বিতীয় ব্যক্তিকে শেয়ার করে। তথ্য নিয়ে তাদের কেউ কেউ এই ধরনের কাজ করতে পারে। মুর্শিদাবাদ সাইবার থানায় স্কলারশিপ প্রতারণা সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি অভিযোগ জমা পড়েছে। সেগুলি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। পুলিস সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, একসময় সাইবার সংক্রান্ত সমস্ত অপরাধ ঝাড়খণ্ডের জামতাড়া থেকে নিয়ন্ত্রিত হতো। কিন্তু এখন জামতাড়া ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সাইবার অপরাধীরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। পুরনো কৌশল বদলে তারা নতুন নতুন পদ্ধতিতে টাকা হাতাচ্ছে। একাধিক সোশ্যাল মিডিয়া কাজে লাগিয়েও অনেকের সঙ্গে তারা প্রতারণা করছে। খোদ মুর্শিদাবাদের পুলিস সুপার ও অতিরিক্ত পুলিস সুপারের নামে ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে তারা প্রতারণার চেষ্টা করেছিল।  সাইবার অপরাধীদের এই গ্যাংটি অধরা রয়েছে। তারপর আবার অন্য গ্যাং ছাত্রছাত্রীদের স্কলারশিপের টাকা হাতানোর চেষ্টা শুরু করায় আধিকারিকদের চিন্তা বেড়ে গিয়েছে। 
সাইবার অপরাধীদের হাত থেকে পড়ুয়াদের রক্ষা করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পুলিস লাগাতার প্রচার শুরু করেছে। দুষ্কৃতীদের সন্ধান পেতে তারা মরিয়া হয়ে উঠেছে। মুর্শিদাবাদের পুলিস সুপার কে শবরী রাজকুমার বলেন, অপরিচিত কাউকে ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত কোনও তথ্য দেওয়া উচিত নয়। পুলিসের পক্ষ থেকে বহুদিন ধরেই জনগণকে সচেতন করা হচ্ছে।

18th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021