বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

দুর্গাপুজোয় পর্যটক সমাগমে শান্তিনিকেতন,
বোলপুরের হোটেল ব্যবসায়ীদের মুখে হাসি

সংবাদদাতা, বোলপুর: করোনার জেরে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ বিশ্বভারতী। কিন্তু এবার প্রশাসন করোনাবিধির রাশ একটু আলগা করতেই পুজোর ছুটিতে পর্যটকরা ভিড় জমান কবিগুরুর সাধের শিক্ষাঙ্গন শান্তিনিকেতনে। এখানে দীর্ঘদিন ধরে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকলেও সোনাঝুরির খোয়াই, কঙ্কালীতলা, কোপাই নদীর তীর, অজয় নদের চর, ইলামবাজার জঙ্গল প্রভৃতি জায়গায় পুজোর ছুটিতে পর্যটকদের ভালো ভিড় দেখা গিয়েছে। সপ্তাহান্তের ছুটিতেও পর্যটকরা এখানে এসে ভিড় জমানো শুরু করেছেন। ফলে দীর্ঘদিন পর ভালো ব্যবসা হওয়ায় খুশি বোলপুর হোটেল ব্যবসায়ী সহ ছোট-বড় অন্যান্য ব্যবসায়ীরাও। অনেকদিন পর তাঁদের মুখে হাসি দেখা গিয়েছে।
করোনা আবহে প্রায় দেড় বছরের বেশি সময় ধরে বন্ধ কবিগুরুর সাধের আশ্রমিক পরিবেশের শিক্ষা প্রাঙ্গণ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। এজন্য শান্তিনিকেতনের ভিতরের অংশ পর্যটকরা ঘুরে দেখতে না পারলেও রাস্তা থেকে উপাসনাগৃহ, ছাতিমতলা, নাট্যঘর প্রভৃতি জায়গা পরিদর্শন করেন। এমনিতে বোলপুরে ভ্রমণের জায়গা কম নেই। খোলা আকাশ ও প্রকৃতির মাঝে ঘোরার জন্য বর্তমানে অন্যতম সেরা আকর্ষণ সোনাঝুরির জঙ্গল ঘেরা খোয়াইয়ের হাট। এই হাট আবার শনিবারের হাট নামে পরিচিত। এখন আর শুধু শনিবারই নয়, প্রায় প্রতিদিনই সেখানে বিকিকিনি চলে। বোলপুর লাগোয়া এলাকার হস্ত ও কুটীর শিল্পীরা নিজেদের তৈরি নানা সামগ্রী নিয়ে সেখানে হাজির হন। ফলে, পুজোর মরশুমে প্রায় প্রতিদিনই পর্যটকরা খোয়াইয়ের হাটে ভিড় করেছেন। 
ষষ্ঠীর দিন থেকেই বোলপুরের প্রায় প্রতিটি হোটেল, রিসর্ট, হোম স্টে ভরে গিয়েছে পর্যটকে‌। বোলপুরের হোটেল মালিক অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক প্রসেনজিৎ চৌধুরী বলেন, করোনা আবহে দীর্ঘদিন মন্দার মোকাবিলা করার পর পুজোয় হোটেল ব্যবসায়ীরা ভালো ব্যবসা হওয়ায় খুশি। বোলপুর শহরের প্রায় প্রতিটা হোটেলেই ফুল বুকিং হয়েছে। ফলে তাঁদের ভালো উপার্জন হয়েছে। শুধু হোটেল ব্যবসায়ীই নয়, ছোট-বড় নানা খাবারের হোটেল, রেস্তরাঁ, গাড়ি চালকরাও এই পর্যটক সমাগমে দু’পয়সা আয় করেছেন। দীর্ঘদিন পর শান্তিনিকেতনের প্রকৃতির মাঝে আনন্দ খুঁজে পেয়ে খুশি পর্যটক সহ স্থানীয় ছোট-বড় ব্যবসায়ী এবং হস্তশিল্পীরা। 
পর্যটকরা মূলত রেলপথেই শান্তিনিকেতন যান। পুজোর দিনগুলিতে শিয়ালদহ থেকে মাতারা এক্সপ্রেস, কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ও হাওড়া থেকে গণদেবতা, ইন্টারসিটি, শান্তিনিকেতন স্পেশাল এক্সপ্রেসে প্রচুর পর্যটক শান্তিনিকেতনে ভিড় করেছেন বলে পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক একলব্য চক্রবর্তী জানান। তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কঠোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই নির্দেশিকা মেনেও এবার পুজোয় বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ শান্তিনিকেতনকে পর্যটন গন্তব্য হিসেবে বেছে নিয়েছেন। কলকাতা থেকে আসা দম্পতি স্বপ্নীল ও চন্দ্রা মুখোপাধ্যায়, নদীয়ার কল্যাণীর সুজিত রায় বলেন, করোনা সংক্রমণের জন্য দীর্ঘদিন ওয়ার্ক ফ্রম হোম করে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। তাই পুজোর ছুটিতে চুটিয়ে শান্তিনিকেতন ঘুরে আনন্দ পেয়েছি। পাশাপাশি কঙ্কালীতলা, ইলামবাজারের জঙ্গলঘেরা বনলক্ষ্মী, আমখই উড ফসিলস্ পার্ক, কোপাই নদীর তীরে হস্তশিল্প হাট, রায়পুরের সিংহ পরিবারের রাজবাড়ি প্রভৃতি জায়গায় পুজোয় পর্যটকদের ভালো ভিড় হয়েছিল বলে স্থানীয়দের দাবি। বোলপুরের পাশাপাশি লাভপুরের ফুল্লরাতলা, নানুরের বিভিন্ন পরিবারের পটের পুজো দেখতেও প্রচুর পর্যটক ভিড় করেছিলেন। 

18th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021