বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

প্রতিমা দর্শনে ঢল
সামলাতে নাকাল
বৃষ্টির পূর্বাভাসের জেরে আতঙ্ক

সংবাদদাতা, রামপুরহাট, বোলপুর ও সিউড়ি: অষ্টমী থেকে দশমী বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। তাই ঝুঁকি না নিয়ে আগেভাগে ঠাকুর দর্শন সেরে নিতে চাইছেন বীরভূমবাসী। পঞ্চমীর রাত থেকেই জেলার বিভিন্ন মণ্ডপে দর্শনার্থীদের ঢল নামতে শুরু করে। তবে মহষষ্ঠীতে সেই ভিড় কয়েকগুণ বাড়ল। জেলার বেশকিছু বিগ বাজেটের মণ্ডপের চিত্র দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে, ষষ্ঠী নাকি অষ্টমীর রাত। এমনকী গ্রামীণ এলাকার মানুষও আগাম দুর্গা দর্শনে বেরিয়ে পড়েন। এদিকে পুজোর সময় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আগাম সতর্কতায় জেলাজুড়ে ২০ জনকে গ্রেপ্তার করল পুলিস।
জেলার পুলিস সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী বলেন, সোমবার থেকে রাস্তায় রাস্তায় পুলিসের স্পেশাল ডিউটি শুরু হয়েছে। গ্রেপ্তারের সংখ্যা আরও বাড়বে। 
সোমবার ষষ্ঠীর সকাল থেকেই ভিড়ের স্রোত শুরু হয়। বিশেষ করে গ্রামের মানুষজনের ভিড় বেশি ছিল। তবে সন্ধ্যা থেকে শহরের মানুষ রাস্তায় বেরনোয় ভিড় বাড়তে থাকে। বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকায় অধিকাংশর হাতে ছাতা লক্ষ্য করা গিয়েছে। বিশেষ করে রামপুরহাটের বিগ বাজেটের পুজো নবীন ক্লাব, হাটতলা সার্বজনীন, বুলেট ক্লাব থেকে শুরু করে তরুণের আহ্বান, দশের পল্লির পুজোমণ্ডপের সামনে ভিড় ছিল সব থেকে বেশি। যদিও করোনা উদ্বেগের কথা মাথায় রেখে ফেসবুক পেজ থেকে চারদিন পুজো দেখানোর ব্যবস্থা করেছে হাটতলা সর্বজনীন। কমিটির অন্যতম সদস্য প্রশান্ত রায় বলেন, কোভিড সংক্রমণের আশঙ্কায় বয়স্করা বাড়ির বাইরে বেরতে পারছেন না। তাই তাঁরা যাতে বাড়িতে বসে প্রতিমা দর্শন করতে পারেন, তার জন্য এই উদ্যোগ।
বুলেট ক্লাবের কর্তা গোলক হালদার বলেন, পঞ্চমীর সন্ধ্যা থেকেই ভিড় শুরু হয়েছে। আসলে অনেকে ভিড় এড়াতে আগেই প্রতিমা দর্শন শুরু করেছেন। আবার বৃষ্টির আশঙ্কা থেকেও কেউ ঝুঁকি নিতে চাইছেন না। এদিকে প্রচুর মানুষের আনাগোনায় শহরে ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয়। তার উপরে শহরের ফুটপাত দখল থাকায় যানজট কয়েকগুণ বেড়েছে। যদিও এদিন রাস্তার দু’ধারে যত্রতত্র দাঁড়িয়ে থাকা যানবাহন ও স্থায়ী দোকানের বাড়তি অংশ সরিয়ে দিতে অভিযানে নামেন এসডিপিও সায়ন আহমেদ, আইসি ত্রিদিব ভট্টাচার্য প্রমুখ। পিছিয়ে নেই নলহাটিও। উদয়ন সঙ্ঘ থেকে মিলনী সঙ্ঘ ও আপনজন ক্লাবের মণ্ডপে ভিড় ছিল। নলহাটির এক হাজারের বেশি পুরনো সিংহবাহিনী  মন্দিরেও ভিড় করেন দর্শনার্থীরা। সোনালি দত্ত নামে এক মহিলা বলেন, পুজোর সময় বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়ে রেখেছে আবহাওয়া দপ্তর। কখন যে বৃষ্টি নামে, এই আশঙ্কায় আগেভাগেই বেরিয়ে পড়েছি।ষষ্ঠী থেকেই জেলার সিউড়ি মহকুমার তিন শহর সিউড়ি, সাঁইথিয়া ও দুবরাজপুরের মণ্ডপগুলিতেও মানুষের ঢল নামে। শহরের রেস্তরাঁগুলিতেও এদিন দুপুর থেকেই ভিড় শুরু হয়েছে। তবে প্রশাসনিক নির্দেশ অনুযায়ী দর্শনার্থীদের করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য পুজোমণ্ডপগুলিতে মাইকিং করে লাগাতার সচেতনতামূলক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন উদ্যোক্তারা। শহরের মণ্ডপ সহ বেশকিছু মোড়ে পুলিসি সহায়তা ক্যাম্প করা হয়েছে। শহরের আনাচে কানাচে পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে ঘুরবে পুলিসের বাইক বাহিনী।বোলপুরে পঞ্চমীর সন্ধ্যা থেকেই শুরু হয়েছে দেবী দর্শন। গতবছর করোনা সংক্রমণের কারণে সেভাবে পুজো দেখা হয়নি বলে এবছর একটু আগে থেকেই বোলপুর শহরে ঢল নেমেছে দর্শনার্থীদের। বোলপুর অ্যাথলেটিক্স অ্যান্ড কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের দুর্গাপুজো প্রাঙ্গণে প্রতিবছরের মতো এবছরও ভিড় হয়েছে চোখে পড়ার মতো। শহরের পুজো থেকে একটু আলাদা শান্তিনিকেতনের সোনাঝুরি খোয়াই সংলগ্ন হীরালিনী দুর্গাপুজো। স্থানীয় মানুষ ছাড়াও এই পুজোয় ভিড় করছেন পর্যটকরাও। বোলপুরের পাশাপাশি নানুর ও লাভপুরের বেশকিছু পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী পটের ঠাকুর দর্শন করতে আশেপাশের মানুষ ভিড় করেছেন। 

12th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021