বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

জঙ্গিপুর, সামশেরগঞ্জে প্রচারের
শেষ দিনেও ঝড় তুলল তৃণমূলই

নিজস্ব প্রতিনিধি, বহরমপুর: ভোট প্রচারের শেষ দিনও সামশেরগঞ্জ এবং জঙ্গিপুরে ময়দান কাঁপাল তৃণমূল। এদিন জঙ্গিপুরের রানিনগরের রাজানগর মাঠে সোহম, জুন মালিয়া এবং রাজ চক্রবর্তী সভা করেছেন। সামশেরগঞ্জেও দলের প্রার্থী আমিরুল ইসলাম বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রচার করেছেন। 
দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এই কেন্দ্রে মূলত দাদা ও ভাইয়ের মধ্যে লড়াই চলছে। দাদা তৃণমূলের জেলা সভাপতি খলিলুর রহমান। ভাই কংগ্রেস প্রার্থী জইদুর রহমান। এই কেন্দ্রে জেতানোর জন্য তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্ব জেলা সভাপতির উপর দায়িত্ব সঁপে দিয়েছে। তাই ভাইয়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলেও লড়াইয়ের ময়দানে তিনি এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে রাজি নন। কয়েকদিন ধরে টানা প্রচার করছেন। খলিলুর সাহেব বলেন, দু’টি বিধানসভা কেন্দ্র বিপুল ভোটে জিতিয়ে দিদিকে উপহার দেব। ভাই কংগ্রেস প্রার্থী মাঝে লড়াইয়ের ময়দান থেকে সরে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তিনি নেমেছেন। তিনি বলেন, লকডাউনে মানুষের পাশে থেকেছি। সবসময় মানুষের কাজ করছি। তাই আমি যথেষ্টই আশাবাদী। 
ভোটপ্রচারের শেষ দিনে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী প্রচার করেছেন। তিনি ধানঘরায় ভাঙন কবলিত এলাকাতেও গিয়েছিলেন। তবে এই কেন্দ্রে শেষ দিনেও বিজেপিকে ভোটপ্রচারে দেখা যায়নি। রাজনৈতিক মহলের মতে এখানে বিজেপি ফ্যাক্টরই নয়। মূলত কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের ভোটের লড়াই হবে। বামেদেরও প্রার্থী এখানে রয়েছে। সামশেরগঞ্জে প্রথম থেকেই জোট হয়নি। এখানে বামেরাও সেভাবে দাগ কাটতে পারেনি। কয়েকদিন আগে সুজন চক্রবর্তী এবং মীনাক্ষীরা ভোট প্রচারে এলেও তেমন সাড়া ফেলেনি। তবে জঙ্গিপুরে তৃণমূলের প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি। এখানে জোট হলেও বাম বা কংগ্রেস কোনও দলেরই সেই সংগঠন নেই। ভোট প্রচারের শেষ দিনে বিজেপি প্রার্থী সুজিত দাস বাড়ি বাড়ি ঘুরেছেন। তিনি বলেন, তৃণমূল ভয় পেয়েছে বলেই এত তারকাদের ভোটপ্রচারে এনেছে। এখানে আমরা লড়াই দেব।
এদিন ভোটপ্রচারে এসে জুন মালিয়া বলেন, মুর্শিদাবাদে ২০টি’র মধ্যে ১৮টা জিতে এসেছি। বাকি দু’টি জিতলে ষোলোকলা পূর্ণ হবে। অন্য দলকে ভোট দিয়ে নিজেদের পায়ে কুড়ুল মারবেন না। সোহম বলেন, দুর্দিনে তৃণমূল ছাড়া আর কেউ থাকে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মানুষের কথা ভাবেন। তিনিই একমাত্র উন্নয়ন করতে জানেন। তাই অন্য দলের কথা ভাববেন না। বিজেপি অশান্তি ছাড়া কিছু জানে না। এরা কোনওদিনই মানুষের ভালো করতে পারে না। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা বিধির জন্যই এবার তিন দিন আগে ভোট প্রচার বন্ধ করা হয়েছে। সোমবার বিকেল ৫টায় ভোটপ্রচার শেষ হয়ে গিয়েছে। ভোটের দিনও করোনাবিধি মেনেই সবকিছু করা হবে।
প্রসঙ্গত, বিধানসভা নির্বাচনের সময় দু’জন প্রার্থী মারা যাওয়ায় ওই দুই কেন্দ্রে নির্দিষ্ট সময় ভোট হয়নি। তৃণমূল সেই সময় থেকেই ময়দানে ছিল। জঙ্গিপুরের তাদের প্রার্থী বোমা বিস্ফোরণে জখম হয়েছিলেন। তারপরও তিনি ময়দান ছাড়েননি। ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার আগে তিনি বেশ কয়েকবার জঙ্গিপুরে এসে জনসংযোগ সেরেছেন। কিন্তু তখনও বিরোধীদের সেভাবে ময়দানে দেখা যায়নি বলে স্থানীয়দের দাবি।

28th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021