বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বীরভূমে জ্বরে আক্রান্ত 
শিশুর সংখ্যা বাড়ছে 
জেলার তিন হাসপাতালে ভর্তি তিন শতাধিক

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: বীরভূম জেলায় জ্বরে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। ইতিমধ্যে জেলার তিন মহকুমা হাসপাতালে তিন শতাধিক শিশু ভর্তি রয়েছে। পরিস্থিতি এমনই যে হাসপাতালগুলিতে গাদাগাদি অবস্থা। একই বেডে দু’-তিনজন করে শিশুকে রাখা হয়েছে। কয়েক দিনের ব্যবধানে জ্বর, সর্দি, কাশি সহ শ্বাসকষ্ট নিয়ে একের পর এক শিশুর হাসপাতালে ভর্তিতে অভিভাবকমহলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। যদিও আক্রান্ত বাড়লেও আতঙ্কের কারণ নেই বলে জেলার স্বাস্থ্যকর্তাদের দাবি। তাঁরা বলছেন, এসময় আবহাওয়ার পরিবর্তনের জন্য শিশুরা ভাইরাল জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে। ঠান্ডা এসে গেলে এসব কমে যাবে। 
করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে যখন গোটা রাজ্য সরগরম সেসময় রোজ জ্বর, সর্দি-কাশি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে শিশুরা হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। ফলে, বেড পেতে সমস্যায় পড়ছেন অভিভাবকরা। বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে শিশু বিভাগে মোট ৫১টি বেড রয়েছে। এই মুহূর্তে সেখানে ভর্তি রয়েছে ১৫২টি শিশু।  হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপার বুদ্ধদেব মুর্মু বলেন, ঠাণ্ডা লাগা, জ্বর নিয়েই মহকুমার বিভিন্ন এলাকার দশ বছরের নীচে শিশুরা এখানে ভর্তি রয়েছে। তাদের নানা পরীক্ষা চলছে। তিনি বলেন, শিশু ভর্তির সংখ্যা বেশি হওয়ায় একটি বেডেই দু’-তিনজন করে শিশুকে রাখতে বাধ্য হচ্ছি। 
জেলা সদরের সিউড়ি হাসপাতালেরও একই চিত্র। সেখানে শিশু বিভাগে মোট ৫০টি বেড রয়েছে। অথচ ভর্তি রয়েছে একশোর বেশি শিশু। অর্থাৎ বেড প্রতি দু’জন করে রাখা হচ্ছে। ফলে, মায়েদের কেউ দাঁড়িয়ে, কেউবা মেঝেয় বসে রয়েছেন। হাসপাতালের নীচে বা ওয়ার্ডের বাইরে গম্ভীর মুখে অপেক্ষা করছেন বাবারা। মাঝে মাঝে ওয়ার্ডের জানালা দিয়েই শিশুর মায়েদের কাছে খাবার ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন তাঁরা। মহম্মদবাজারের মালাডাং গ্রামের বিশ্বনাথ মণ্ডলের পাঁচ বছরের ছেলে গোপাল এখানে ভর্তি রয়েছে। বিশ্বনাথবাবু বলেন, পাঁচদিন ধরে ছেলে জ্বরে কাহিল। সিউড়িতে এক প্রা‌঩ইভেট ডাক্তারকে দেখানো হয়। তিনি ইঞ্জেকশন দেন। সাময়িক জ্বর কমলেও ফের আসে। তাই বাধ্য হয়ে তিনদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি করেছি। কিন্তু জ্বর কমছে না। ওপেন কিস্কু বলেন, ছেলের জ্বর না কমায় মঙ্গলবার রক্ত পরীক্ষা করা হয়েছে। কিন্তু রিপোর্ট এখনও আসেনি। খুব চিন্তায় রয়েছি।  রামপুরহাট মেডিক্যালে শিশু ভর্তির সংখ্যা দু’দিন আগে ছিল ৩৬। সেটা বুধবার দুপুরে হয়েছে ৫৯। এদিন নতুন করে ২৯টি শিশু জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়েছে। মেডিক্যালে শিশু ওয়ার্ডের বেড সংখ্যা ৪০। বেশি শিশু ভর্তি হওয়ায় এখানেও একটি বেডে দু’জন করে রাখা হচ্ছে। এমএসভিপি পলাশ দাস বলেন, প্রতিটি শিশু শ্বাসযন্ত্রে তীব্র সংক্রমণ নিয়ে ভর্তি হয়েছে। রুটিন পরীক্ষার মাধ্যমে তাদের চিকিৎসা চলছে। এপ্রসঙ্গে বীরভূমের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক হিমাদ্রি আড়ি বলেন, আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। প্রতি বছরই এসময় আবহাওয়া বদলের জন্য শিশুদের ঠান্ডা লেগে ভাইরাল জ্বর হয়। এটা স্বাভাবিক ঘটনা। শিশুদের উপর আমাদের ২৪ঘণ্টা সতর্ক নজর রয়েছে। 
সাঁইথিয়া গ্রামীণ হাসপাতালের আউটডোরে জ্বরে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যাও হঠাৎ বৃদ্ধি পাওয়ায় এদিন সেখানে পরিদর্শনে যান সিএমওএইচ। তিনি বলেন, আউটডোরে প্রায় এক হাজার শিশুকে অভিভাবকরা এসেছিলেন। এর মধ্যে প্রায় ৭০০-৮০০ শিশু ভাইরাল জ্বরে আক্রান্ত।

23rd     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021