বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দক্ষিণবঙ্গ
 

বর্ধমান মেডিক্যালে পুজোর আগেই
অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু করতে উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: দুর্গাপুজোর আগেই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দু’টি অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু করতে চূড়ান্ত তৎপরতা শুরু হল। অক্টোবরেই করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই তার আগেই হাসপাতালের দু’টি প্রেসার স্যুইং অ্যাডসর্পশন(পিএসএ) প্ল্যান্ট থেকে উৎপাদিত অক্সিজেন হাসপাতালের মুমূর্ষ রোগীর জন্য ব্যবহার করা যাবে। মঙ্গলবার ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেন (ডিআরডিও) ও ন্যাশনাল হাইওয়ে অথরিটি অব ইন্ডিয়ার প্রতিনিধিরা (এনএইচএআই) মেডিক্যাল কলেজের অক্সিজেন প্ল্যান্টের কাজ সরেজমিনে পরীক্ষা পরিদর্শন করেন। কাজ দেখে সন্তুষ্ট তাঁরা। যেটুকু কাজ বাকি রয়েছে, তা চলতি মাসেই শেষ করার টার্গেট নিয়েছে দায়িত্বপ্রাপ্ত এজেন্সিগুলি। এরপর হাসপাতালের কিছু কর্মীদের এই প্ল্যান্ট অপারেট করার জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। হাসপাতালের কর্মীরাও ওই প্রশিক্ষণের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন। 
বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সুপার চিকিৎসক তাপস ঘোষ বলেন, দু’টি পিএসএ প্ল্যান্টের কাজ প্রায় শেষের পথে। বাকি সামান্য কিছু কাজ চলছে। ডিআরডিও ও এনএইচএ কর্তৃপক্ষ এগুলি পরিদর্শন করেছেন। আশা করছি সব ঠিকঠাক থাকলে পুজোর আগেই প্ল্যান্টগুলি চালু হয়ে যাবে। করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার যে আশঙ্কা রয়েছে, তার আগে এই প্ল্যান্টগুলি প্রস্তুত হয়ে যাওয়া আমাদের জন্য খুবই কার্যকরী। শুধু করোনার রোগী নয়, মুমূর্ষু রোগীদের জন্যও এই প্ল্যান্ট খুবই উপযোগী হবে। 
দু’টি পিএসএ প্ল্যান্ট ছাড়াও আরও একটি লিকুইড অক্সিজেন প্ল্যান্ট বসানোর কাজ চলছে। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পার্কিং জোনের জায়গাটি এই প্ল্যান্ট তৈরির জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। সবকটি প্ল্যান্ট চালু হলে মেডিক্যালের অক্সিজেন প্রতুলতা বহু গুণ বেড়ে যাবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এর ফলে শুধু বর্ধমান নয়, আশেপাশের জেলা পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, বাঁকুড়া ও হুগলির একাংশ এবং বিহার, ঝাড়খণ্ডের মতো ভিনরাজ্য থেকে চিকিৎসা পরিষেবা নিতে আসা মানুষজনও উপকৃত হবেন। 
করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অক্সিজেনের চাহিদা ব্যাপক হারে বেড়ে যায়। সেই সময় অক্সিজেনের কালোবাজারি শুরু হয়। মানুষকে চড়া দামে অক্সিজেন সিলিন্ডার কিনতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে অক্সিজেন না পেয়ে রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ ওঠে। এরপরই দেশের বিভিন্ন জায়গায় অক্সিজেন প্ল্যান্ট তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ ও ডিআরডিও অক্সিজেন প্ল্যান্ট বসানোয় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়। বর্ধমান মেডিক্যালে চলতি বছরের মে মাসে প্ল্যান্ট তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়। এই পরিষেবা চালু হলে হাসপাতালের অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা আরও ভালো হবে বলে কর্তৃপক্ষের আশা। কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় হাসপাতালে বিশেষ ইউনিট খোলা হয়েছে। নতুন প্ল্যান্ট তৈরি করে সেই ইউনিটে পাইপের মাধ্যমে রোগীদের কাছে অক্সিজেন পৌঁছনোর ব্যবস্থা করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। করোনা ওয়ার্ডের পাশাপাশি যেসব ওয়ার্ডে রোগীদের অক্সিজেনের চাহিদা আছে, সেখানেও পাইপ লাইন প্রস্তুত করা হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। তবে এই প্ল্যান্টের বিভিন্ন প্রকল্পে একাধিক এজেন্সি কাজ করছে। সেই এজেন্সিগুলির মধ্যে সমন্বয় রক্ষা করা প্রয়োজন। তাহলেই নির্দিষ্ট সময়ে প্ল্যান্ট চালু করা যাবে বলে মনে করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এবার সেই বিষয়টির উপরই জোর দেওয়া হয়েছে।

23rd     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021