বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

৩ মার্চ সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পের উদ্বোধন আলিপুরদুয়ারে

সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার: ১৯৫৭ সালে পথচলা শুরু হয়েছিল আলিপুরদুয়ার পুরসভার। ৬৭ বছর পর চালু হচ্ছে পুরসভার বহু প্রতীক্ষিত সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্প। আগামী ৩ মার্চ শহর থেকে সাত কিমি দূরে মাঝেরডাবরি চা বাগানের জমিতে তৈরি হওয়া আলিপুরদুয়ার পুরসভার এসডব্লুএম প্রকল্প চালু হচ্ছে। বুধবার শহরের মিউনিসিপ্যাল হলে সবুজ ও  নীল বালতিতে জঞ্জাল পৃথকীকরণ নিয়ে নাগরিক কনভেনশনে এসডব্লুএম প্রকল্পটির উদ্বোধনের তারিখ স্থির হয়েছে। তারআগে সময়মতো বালতিতে জঞ্জাল সংগ্রহ করে রাখার বিষয়ে নাগরিকদের আরও সচেতন করতে পুরসভা ১ মার্চ শহরে শোভাযাত্রার ডাক দিয়েছে। জঞ্জাল সংগ্রহ করে রাখতে পুরসভা বাড়ি বাড়ি বালতি দেওয়াও শুরু করেছে। 
২০১৮ সালে পুরসভা এই প্রকল্পের জন্য মাঝেরডাবরি চা বাগানের জমি কিনেছিল। কিন্তু, শুরুতেই বাধা আসায় প্রকল্পের কাজ শুরু হয় অনেকদিন পরে। শেষ পর্যন্ত সেই সমস্যা কাটিয়ে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। এদিন নাগরিক কনভেনশনে শহরের বিভিন্ন ক্লাব, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, ব্যবসায়ী, হোটেল, লজ, নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধি ও প্রবীণ নাগরিকরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও ছিলেন পুরসভার কাউন্সিলাররাও। পুরসভার বহু প্রতীক্ষিত এই প্রকল্প চালুর জন্য নাগরিকরা খুশি। তাঁরা বলেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর শহর জঞ্জালমুক্ত হচ্ছে। পুর চেয়ারম্যান প্রসেনজিৎ কর বলেন, পুরসভার এসডব্লুএম প্রকল্পের কাজ শেষ। ৩ মার্চ প্রকল্পটির উদ্বোধন হবে। তার আগে ১ মার্চ জঞ্জাল সংগ্রহে সচেতনতার জন্য শহরে শোভাযাত্রা হবে। আশপাশের কোনও পঞ্চায়েত পুরসভার এই প্রকল্পে জঞ্জাল দিতে চাইলে দিতে পারে। এই জঞ্জাল থেকে জৈব সার তৈরি হবে। 
এদিন নাগরিক কনভেনশনে বেশকিছু প্রস্তাবও এসেছে। যেমন শহরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্ণধার রাতুল বিশ্বাস পুরসভাকে প্রস্তাব দিয়েছেন শহরের বিপিএলভুক্ত মানুষদের কাছ থেকে যেন জঞ্জাল কর না নেওয়া হয়। বালতি দেওয়ার পরেও কেউ যদি যেখানে সেখানে জঞ্জাল ফেলে রাখেন, তার জন্য পুরসভা যেন মোটা টাকা জরিমানা করে সংশ্লিষ্ট বাড়ির মালিককে। 
জঞ্জাল নেওয়ার জন্য পুরসভা বাড়িপ্রতি মাসিক ৫০ টাকা জঞ্জাল কর ধার্য করেছে। কংগ্রেস অবশ্য পুরসভার ৫০ টাকা জঞ্জাল কর নিয়ে আপত্তি করেছে। পুরসভার ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলার শান্তনু দেবনাথ বলেন, শহরে বস্তি এলাকায় বহু গরিব মানুষের বাস। তাঁদের পক্ষে এত টাকা জঞ্জাল কর দেওয়া সম্ভব? 
যদিও পুর চেয়ারম্যানের বক্তব্য, শান্তনুবাবু তো বোর্ড মিটিংয়ে এই সিদ্ধান্তে সই করেছিলেন। এখন বাইরে কেন এ নিয়ে আপত্তি করছেন বুঝতে পারছি না। 
এদিকে, রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আলিপুরদুয়ার পুরসভায় প্রথম এই প্রকল্প তৈরির কৃতিত্ব দেখাল তৃণমূল পরিচালিত পুরবোর্ড। তার জন্য চব্বিশের ভোটে শহর এলাকায় সুবিধাজনক জায়গায় চলে গেল শাসকদল। 

29th     February,   2024
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ