বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিতে অনেকের অনীহা, উদ্বেগ বাড়ছে প্রশাসনের
হরিশ্চন্দ্রপুর-২

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয়  ডোজ নিতে একাংশের মানুষের মধ্যে অনীহা তৈরি হয়েছে। এনিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। তবে ব্লকের সমস্ত উপ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে স্বাস্থ্যকর্মীদের দিয়ে নানাভাবে প্রচার চালানো হচ্ছে। ব্লক স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্লকে নভেম্বর পর্যন্ত টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১ লক্ষ ১৭ হাজার ৪০৫ জন। যা ১৮ ঊর্ধ্ব জনসংখ্যার ৬৫ শতাংশ। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২৫ হাজার ৩৩৯ জন। অনেকে প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ৮৪দিন পেরিয়ে গেলেও দ্বিতীয় ডোজ নেননি। তাঁদের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে। সকলেই যাতে ভ্যাকসিন পান, তার জন্য ব্লকের ৩৩টি উপ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টে পর্যন্ত ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়া চলছে। যাতে প্রতিটি মানুষ ভ্যাকসিন নিতে পারেন, সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবরকম ব্যবস্থা করা হয়েছে। 
প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এত প্রচার চালানো সত্ত্বেও মানুষের মধ্যে ভ্যাকসিন নিতে অনীহা দেখা যাচ্ছে। হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে প্রথম ডোজ নেওয়ার পর অনেকেই দ্বিতীয় ডোজ নিচ্ছেন না। এই সংখ্যা উদ্বেগ বাড়িয়েছে প্রশাসনের। দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার জন্য মানুষকে উৎসাহিত করতে স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রতিটি গ্রামে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করছেন। কিন্তু তারপরও আশাজনক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক হিমাদ্রি ঘটক বলেন, মানুষের অনেকেরই ধারণা, আর করোনা নেই। অনেকেই সরকারি কাজের সুবিধার জন্য টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। তাই প্রথম ডোজের সার্টিফিকেট পাওয়ার পর দ্বিতীয় ডোজ নিচ্ছেন না। আবার প্রথম ডোজ নেওয়ার পর অনেকেই ভিনরাজ্যে কাজের জন্য পাড়ি দিয়েছেন। আবার অনেকেই প্রতিবেশী রাজ্যে গিয়ে ভ্যাকসিন নিয়েছেন। তবে করোনা রোধে ভ্যাকসিন নেওয়া যে অত্যন্ত জরুরি, এ বিষয়ে কোনও বিতর্ক নেই। করোনাকে অবহেলা করা যাবে না। অনেকেই টিকার দু’টো ডোজ নিয়েও আক্রান্ত হয়েছেন। তাই সতর্কতা অবলম্বন করতে ভ্যাকসিন নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারি এখনও যায়নি। তাই প্রত্যেককেই ভ্যাকসিন নিতে হবে। জেলা প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী, আমরা ১৮ ঊর্ধ্ব বাসিন্দাদের ১০০ শতাংশ টিকাকরণের সমস্ত ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মানুষকে সচেতন করার জন্য নানা কর্মসূচিও নেওয়া হয়েছে। গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়েরা ও সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী ভ্যাকসিন নিতে পারবেন। এতে কোনও সমস্যা নেই। এই ব্লকে দ্বিতীয় ডোজ নিতে মানুষের ভীষণ অনীহা। এটা খুবই উদ্বেগজনক। দ্বিতীয় ডোজ না নিলে কারও প্রয়োজন হলে বুস্টার ডোজ দেওয়া যাবে না। 
এ প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর-২ বিডিও বিজয় গিরি বলেন, করোনা মহামারি থেকে বাঁচতে হলে ভ্যাকসিন নেওয়া জরুরি। ব্লকের ১৮ ঊর্ধ্ব প্রতিটি মানুষ যাতে ভ্যাকসিন পান, তার জন্য ব্লক প্রশাসন সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। ইতিমধ্যেই গ্রামে গ্রামে মাইকিং করে মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে। 

3rd     December,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021