বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

সামগ্রী কম দেওয়ায় রেশন দোকানে তালা গ্রাহকদের
তুফানগঞ্জ

সংবাদদাতা, কুমারগ্রাম: রেশন দোকান থেকে কম পরিমাণ খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হচ্ছে। আধারের সঙ্গে রেশনকার্ডের লিঙ্কও করে দেওয়া হচ্ছে না। এমনই সব অভিযোগ তুলে বৃহস্পতিবার ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা রেশন দোকানে তালা মেরে তুমুল বিক্ষোভ দেখান। সকালে তুফানগঞ্জ-১ ব্লকের দেওচড়াই গ্রাম পঞ্চায়েতের কৃষ্ণপুর গ্রামে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায়।  এদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দোকানে তালা ঝোলানো থাকে। বিকেলে খাদ্যদপ্তরের আধিকারিকরা বিষয়টি জানতে পেরে হস্তক্ষেপ করেন। তাঁরা সমস্যা সামাধানের ব্যাপারে গ্রাহকদের সঙ্গে কথা বলেন। তারপরই গ্রাহকরা বাড়িতে চলে যান। 
গ্রাহকদের অভিযোগ, নভেম্বর মাস থেকে রেশন ডিলার সরকারের গ্রাহক পিছু বরাদ্দ করা খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন না। প্রাপ্য থেকে অনেক কম পরিমাণে চাল, গম, আটার প্যাকেট দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ড লিঙ্ক রেশন দোকানে হবে বলে জানানো হলেও গ্রাহকরা প্রয়োজনীয় নথিপত্র নিয়ে এলেও ডিলাররা তাঁদের নানা অজুহাতে বারবার ঘোরাচ্ছেন। ফলে অনেকে রেশন তুলতে গিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। 
তুফানগঞ্জ মহকুমা খাদ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রেশন দোকানের অনেক গ্রাহকের আধারের সঙ্গে রেশনকার্ড লিঙ্ক হয়নি। তাই গ্রাহকদের রেশন সামগ্রী তোলার তথ্য খাদ্যদপ্তরের নির্দিষ্ট পোর্টালে নথিভুক্ত হচ্ছে না। অফলাইনে আর রেশন দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই কারণে যাঁদের আধার ও রেশন কার্ডের লিঙ্ক নেই, তাঁরা রেশন পাচ্ছেন না। লিঙ্কের কাজটি শেষ করার জন্য পদক্ষেপ করা হয়েছে। 
কৃষ্ণপুর গ্রামের ওই রেশন ডিলার জাবেদা বিবি বলেন, আমাদের কিছুই করার নেই। কারণ, খাদ্যদপ্তর থেকেই কম পরিমাণে রেশন সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে। তাই গ্রাহকদের সরকার বরাদ্দ মাথাপিছু নির্দিষ্ট ওজনের চাল, গম, আটা দিতে পারছি না। এটা গ্রাহকদের বোঝানো হলেও তাঁরা বুঝতে চাইছেন না। তবে এটা ঠিক, সকল গ্রাহকের আধারের সঙ্গে রেশন কার্ডের লিঙ্ক  এখনও করে উঠতে পারিনি। আসলে আগে দোকানটি শ্বশুরের নামে ছিল। তিনি মারা যাওয়ার পর স্বামীর নামে হয়েছে। কিন্তু তিনিও এখন বেঁচে নেই। তাই লিঙ্কের কাজ করার জন্য কোড নম্বর ইনভ্যালিড হয়ে আছে। সেটি চালু করার জন্য খাদ্যদপ্তরে আবেদন করা হয়েছে। মহকুমা খাদ্যদপ্তরে বিষয়টি আগেই জানিয়েছি। এটাও গ্রাহকদের বোঝানোর চেষ্টা করছি। 
তুফানগঞ্জ মহকুমা খাদ্য নিয়ামক সিদ্ধার্থ বোমজান বলেন, অনেক গ্রাহকের রেশন কার্ড ব্লক হয়ে আছে। তাই অনলাইনে খাদ্যসামগ্রী আসছে না। আপাতত ওই রেশন দোকানে আমরা অফলাইনের মাধ্যমে কিছু সামগ্রী পাঠিয়েছি। সমস্যার বিষয়টি উপর মহলে জানানো হয়েছে। আশা করি, আগামী মাসের মধ্যে সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে যাবে। 
গ্রাহকদের অভিযোগ, অন্যসব রেশন দোকান থেকে একসঙ্গেই কেন্দ্র ও রাজ্যের বরাদ্দ খাদ্যসামগ্রী গ্রাহকদের দেওয়া হয়। কিন্তু, এখানে দু’মাস ধরে সমস্যা হচ্ছে। এক সপ্তাহে রাজ্য সরকারের বরাদ্দ চাল, গম, আটা দিচ্ছে। আবার কয়েকদিন পর কেন্দ্রের বরাদ্দ চাল ও গম দিচ্ছে। তাও কম দেওয়া দিচ্ছে। স্থানীয় রেশন গ্রাহক দিলীপ বর্মন বলেন, আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ড লিঙ্কের  কাজটি করার জন্য বহুবার রেশন দোকানে এসেছি। কিন্তু, কাজ হয়নি। আমরা সবাই নিজেদের কাজকর্মে প্রতিদিন ব্যস্ত হয়ে থাকি। বারবার রেশন দোকানে যাওয়া সম্ভব হয় না। আমরা চাই, দ্রুত সুষ্ঠুভাবে লিঙ্কের কাজটি করা হোক। ডিলার অনেক কথাই বলছেন, ওসব আমরা বুঝি না। আমরা চাই, দ্রুত আধার ও রেশন কার্ডের লিঙ্ক করে দিক খাদ্যদপ্তর। 

3rd     December,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021