বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

স্কুল, কলেজ খোলা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর
ঘোষণাকে স্বাগত জানাল শিক্ষামহল

সংবাদদাতা, মালদহ, ইসলামপুর ও পতিরাম: আগামী ১৬ নভেম্বর থেকে রাজ্যে স্কুল, কলেজ খোলার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণাকে স্বাগত জানাল গৌড়বঙ্গের শিক্ষক মহল ও পড়ুয়ারা। এমনকী বিরোধী বিজেপি বা বাম ঘনিষ্ঠ শিক্ষক সংগঠনগুলিও ২০ মাস পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছে। তবে একই সঙ্গে স্কুলে ক্লাস চালুর বিষয়ে বেশকিছু প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে শিক্ষক সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে। শিক্ষক নেতৃত্বের বক্তব্য, পড়ুয়াদের স্বার্থেই তাদের প্রস্তাবগুলিও বিবেচনা করুক রাজ্য সরকার।
রাজ্যের শাসক দল ঘনিষ্ঠ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির মালদহ জেলা সভাপতি বিপ্লব গুপ্ত বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে আমরা স্বাগত জানাই। বহুদিন পরে বিদ্যালয়ের চেনা পরিবেশে ফিরতে পেরে নতুন করে উদ্দীপিত হবে পড়ুয়ারা। নিখিলবঙ্গ শিক্ষক সমিতির মালদহ জেলা সভাপতি মনোরঞ্জন দাস বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর স্কুল খোলার ঘোষণাকে আমরা ২০০ শতাংশ সমর্থন জানাই। তবে চিকিৎসক মহলের অভিমত নিয়ে স্কুল,কলেজে করোনার বিপদের কথা মাথায় রেখে সুরক্ষামূলক নির্দেশিকা জারি ও বহাল করা দরকার। ওই সংগঠনের মালদহ জেলা সম্পাদক অরুণ প্রসাদ বলেন, আমাদের সংগঠনের দাবি, প্রথম ধাপে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়াদের নিয়ে রোটেশনের ভিত্তিতে স্কুল চালু করা হোক। তাদের টিকাকরণের বিষয়টিও অগ্রাধিকারের সঙ্গে বিবেচনা করা হোক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে ধাপে ধাপে নিচু ক্লাসগুলি চালু করা হোক। বিজেপি ঘনিষ্ঠ শিক্ষক সংগঠন বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সংঘের রাজ্য সহ সম্পাদক উজ্জ্বল তালুকদার বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর স্কুল, কলেজ খোলার সিদ্ধান্তকে স্বাগত। আরও আগে এই সিদ্ধান্ত নিলে ভালো হতো। তবে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের কথা বিবেচনা করে কঠোর সুরক্ষাবিধি মেনে চলা আবশ্যক করা দরকার। মালদহ জেলা শিক্ষাদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় হাইস্কুল ও হাই মাদ্রাসা মিলিয়ে ৫৫০টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রাইমারি স্কুল রয়েছে ১৯০০টির কিছু বেশি। 
এবিটিএ’র উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর জোনাল কমিটির সম্পাদক সোমনাথ মজুমদার বলছে, আমরা সংগঠন থেকে করোনা বিধি মেনে স্কুল খোলার বিষয়ে অনেক আগে থেকেই দাবি জানিয়েছি। স্কুল খোলার ঘোষণাকে আমরা স্বাগাত জানাচ্ছি। অন্যান্য রাজ্যে অনেক আগেই স্কুল খুলেছে। পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রথমিক শিক্ষক সমিতির উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি গৌরাঙ্গ চৌহান বলেন, অনেক দিন থেকে স্কুল বন্ধ থাকায় বাড়িতে থেকে পড়ুয়াদের প্রতিভা নষ্ট হচ্ছে। এবার স্কুল খোলার সিদ্ধান্তে ভালোই হবে। তবে স্কুলে মাস্ক, স্যানিটাইজার ব্যবহার করা ও দূরত্ব বজায় রাখতেও পদক্ষেপ করতে হবে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় ১৮৬৫টি প্রাথমিক স্কুল ও ৪০৪টি হাইস্কুল আছে। এদিনের ঘোষণায় খুশির হাওয়া ছড়িয়েছে জেলার শিক্ষা মহলে। 
অন্যদিকে, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার স্কুলগুলিতে পরিষ্কার পরিছন্ন, স্যানিটাইজেশন ও সংস্কারের কাজ চলছে। জেলায় ১১৮৯টি প্রাথমিক, ৩২৭টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল রয়েছে। এছাড়াও ২০টির বেশি কলেজ রয়েছে। সবই খোলার প্রস্তুতি চলছে। জেলার স্কুলগুলিতে বেশি সতর্কতা ও নানা ধরনের ব্যবস্থা গড়ে তুলছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এবিষয়ে জেলা স্কুল পরিদর্শক নারায়ণ চন্দ্র পাল বলেন, আমরা আগে থেকেই স্কুল খোলার জন্য নানারকম প্রস্তুতি নিয়েছি। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন স্কুলে পরিষ্কার পরিছন্ন স্যানিটাইজেশন, সংস্কার সহ নানা ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আমরা সবরকমভাবে প্রস্তুত রয়েছি। 

26th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021